বিয়ে না করায় শিকলে বেঁধে মেয়ের মাথা ন্যাড়া করে দিলেন মা

প্রকাশিত: জানুয়ারি ৫, ২০২০; সময়: ৬:০২ অপরাহ্ণ |
বিয়ে না করায় শিকলে বেঁধে মেয়ের মাথা ন্যাড়া করে দিলেন মা

পদ্মাটাইমস ডেস্ক : বগুড়ার শাজাহানপুরে নবম শ্রেণি পড়ুয়া মেয়ে বিয়েতে রাজি না হওয়ায় শিকল দিয়ে বেঁধে রেখে মাথা ন্যাড়া করে দিয়েছেন এক মা। এ ঘটনায় ওই মেয়ে বাদী হয়ে থানায় মামলা দায়ের করলে শনিবার বিকেলে মা ও ফুফুকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। ঘটনাটি ঘটেছে উপজেলার খোট্টাপাড়া গ্রামে।

মামলার এজাহার সূত্রে জানা গেছে, ওই মেয়ের ইচ্ছের বিরুদ্ধে বিয়ের আয়োজন করলে মেয়েটি লুকিয়ে তার ফুপাতো বোনের বাড়িতে আত্মগোপন করেন। গত ৩১ ডিসেম্বর তার মা মেয়েটিকে জোর করে ফুপাতো বোনের বাড়ি থেকে নিজ বাড়িতে নিয়ে আসেন। কিন্তু বিয়েতে রাজি না হওয়ায় শয়নকক্ষের খাটের সাধে শিকল দিয়ে বেঁধে তাকে ন্যাড়া করে দেওয়া হয়।

প্রতিবেশীরা জানান, মেয়েটির বাবা বেলাল হোসেন অটোটেম্পোচালক। বাবা-মার অবাধ্য ছিল মেয়েটি। সে পরিবারের মান-সম্মানের হানি করে আসছিল। কখনো জান্নাতি, কখনো লতা নাম ব্যবহার করে বিভিন্ন স্থানে অসামাজিক কার্যকলাপ করে বেড়াত। তাই পরিবারের মান-সম্মান রক্ষায় তাকে বিয়ে দিতে উদ্যোগ নেয় পরিবার। কিন্তু কথা না শোনায় তাকে ন্যাড়া করে দেওয়া হয়। যাতে করে লজ্জায় বাড়ির বাইরে বের হতে না পারে। মেয়ের ভবিষ্যৎ ভালো করতে মা ও ফুপুকে জেলে যেতে হলো।

খোট্টাপাড়া ইউপি চেয়ারম্যান আব্দুল্লাহ আল ফারুক জানান, মাথা ন্যাড়া করে দেওয়া অন্যায় হয়েছে। তবে মেয়েটির স্বভাব-চরিত্র ভালো না। বিভিন্ন জায়গায় যাতায়াত করত।

মামলার তদন্ত কর্মকর্তা এসআই রামজীবন ভৌমিক জানান, পাঁচজনকে আসামি করে মামলা দায়ের করা হয়েছে। তার মধ্যে মেয়েটির মা রূপালী বেগম ও ফুপু সাজেদা বেগমকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। অন্যদের গ্রেপ্তারে চেষ্টা চলছে। গ্রেপ্তারের স্বার্থে অন্য আসামিদের নাম প্রকাশে অনিচ্ছা প্রকাশ করেন তিনি।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
পদ্মাটাইমস ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন
topউপরে