বঙ্গবন্ধুর স্বদেশ প্রত্যাবর্তন দিবসে রামেবি’র সভা ও পুষ্পার্ঘ অর্পন

প্রকাশিত: জানুয়ারি ১১, ২০২০; সময়: ৬:২২ অপরাহ্ণ |
বঙ্গবন্ধুর স্বদেশ প্রত্যাবর্তন দিবসে রামেবি’র সভা ও পুষ্পার্ঘ অর্পন

নিজস্ব প্রতিবেদক : জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মশত বার্ষিকী এবং স্বদেশ প্রত্যাবর্তন দিবস উপলক্ষে আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে। শুক্রবার বিকেল ৪ টায় রাজশাহী মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়ের অস্থায়ী কার্যালয়ের কনফারেন্স রুমে এ সভা অনুষ্ঠিত হয়। এর আগে সকালে সূর্যদ্বয়ের সাথে সাথে জাতীয় পতাকা উত্তোলন ও বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতিতে পুষ্পস্তবক অর্পণ করা হয়।

আলোচনা সভায় সভাপতির বক্তব্যে রাজশাহী মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক ডা. মাসুম হাবিব বলেন, দীর্ঘ ২৩ বছরের আন্দোলন সংগ্রামে মৃত্যুর দাঁড় থেকে বারবার ফিরেছেন বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান। ১৯৭১ এর ২৫ মার্চ রাতে ধানমন্ডির বাসা থেকে গ্রেফতার হোন বঙ্গবন্ধু।

তিনি আরো বলেন, মুক্তিযুদ্ধের ৯ মাস জুড়েই পাকিস্তানি কারাগারে বন্দি ছিলেন স্বাধীনতার এই মহানায়ক। কারাগার থেকে মুক্ত হয়ে লন্ডন এবং ভারত হয়ে স্বাধীন বাংলার মাটিতে পা রাখেন তিনি। ১৯৭২ সালের ১০ই জানুয়ারি সদ্য বিজয়ী বাংলাদেশের লাখো মানুষের অপেক্ষা। কখন আসবেন নেতা, কখন দেখা মিলবে স্বাধীনতার স্বপ্ন নায়কের। তিনি আসলেন আবেগে আপ্লুত হলো বাঙালি জাতি।

উপাচার্য বলেন, তেঁজগাও বিমানবন্দর থেকে সৌহরাওয়ার্দী ওদ্যান। দুপাশে লাখো মানুষ, কণ্ঠে শুধু জয় বাংলা। স্বাধীনতার মহাকবি লাখো মানুষের উত্তাল ঢেউ পারি দিয়ে দৃপ্ত পায়ে দাঁড়ালেন মঞ্চে। বাঙালি এ মহানায়কের চোখে মুখে তখন ছিলো না কোন ক্লান্তির ছাপ। বঙ্গবন্ধুর ১০ জানুয়ারির সেই অলিখিত ভাষণে বাদ যায়নি কোন কিছুই। ৭৫’ এর ১৫ আগস্টে খুনিরা ব্যক্তি মুজিবকে হত্যা করতে পারলেও, পারেনি হিমালয়সম বক্তিত্ব্য বঙ্গবন্ধুকে নি:শেষ করতে।

এসময় উপস্থিত ছিলেন, রাজশাহী মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়ের রেজিস্ট্রার অধ্যাপক ডা.আনোয়ারুল কাদের, পরীক্ষা নিয়ন্ত্রক অধ্যাপক এসএমএ হুরাইরা, উপাচার্য মহোদয়ের একান্ত সচিব রাসেদুল ইসলামসহ কর্মকর্তা ও কর্মচারিবৃন্দ।

এছাড়া উপাচার্য অধ্যাপক ডা. মাসুম হাবিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়ে অনলাইন ব্যাংকিং ব্যাবস্থার কার্যক্রম এর উদ্বোধন করেন, এতে করে অধিভুক্ত কলেজের সকল ধরনের ফি এখন থেকে অনলাইনে মাধ্যমে জমা দেয়া যাবে।

উল্লেখ্য, মুজিববর্ষ ১০ জানুয়ারি থেকে ২৬ মার্চ পর্যন্ত রাজশাহী মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয় বিভিন্ন কর্মসূচি গ্রহণ করেছেন। আগামী ২১ ফেব্রুয়ারি আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস উপলক্ষে রামেবি এর কার্যালয়ে আলোকশয্যা, শহীদ মিনারে পুষ্পার্ঘ অর্পন, জাতীয় পতাকা (অর্ধনমিত) উত্তোলন, বাদ যোহর দোয়া মাহফিল অনুষ্ঠিত হবে।

এছাড়া ১৭ মার্চ বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মদিন ও জাতীয় শিশুদিবস উপলক্ষে রামেবি কার্যালয়ে আলোকশয্যা র‌্যালি, প্রতিকৃতিতে পুষ্পার্ঘ অর্পন, আলোচনা সভা, চিত্রাঙ্কণ প্রতিযোগিতা, পোশাক বিতরণ, খেলাধুলা, রবীন্দ্র সঙ্গীত, কবিতা আবৃত্তি করা হবে এবং ২৬ মার্চ স্বাধীনতা ও জাতীয় দিবস উপলক্ষে সভাকক্ষে আলোচনা সভা, আন্ত:কলেজ ডিবেট প্রতিযোগিতা অনুষ্ঠিত হবে।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
পদ্মাটাইমস ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন
topউপরে