৮৮ বছর পর মুম্বাইয়ে অর্শ্বারোহী টহল পুলিশ

প্রকাশিত: জানুয়ারি ২০, ২০২০; সময়: ২:৪৩ অপরাহ্ণ |
৮৮ বছর পর মুম্বাইয়ে অর্শ্বারোহী টহল পুলিশ

পদ্মাটাইমস ডেস্ক : ব্রিটিশ আমলে ভারতবর্ষে দেখা যেত অর্শ্বারোহী পুলিশ। ৮৮ বছর আগে মুম্বাইয়ের রাস্তায় প্রায়ই টহল দিতে দেখা যেত অর্শ্বারোহী (হর্স মাউন্টেড) এ পুলিশ বাহিনীকে।

ঘোড়ার খুরের খটখটানিতে সজাগ হতো মুম্বাইয়ের মানুষ। দীর্ঘ প্রায় ৯ দশক পর গত রোববার সেই দৃশ্য আবার দেখা গেল।

এ বছর দেশটির প্রজাতন্ত্র দিবসের প্যারেড অনুষ্ঠিত হবে শিবাজী পার্কে। তারই মহড়ায় শহরের পথে নেমেছিল পুলিশ ঘোড়সওয়ার বাহিনী।

মহারাষ্ট্রের স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অনিল দেশমুখ জানান, ১৯৩২ সালে শহরে ক্রমশ যানবাহনের সংখ্যা বাড়তে থাকায় ধীরে ধীরে স্মৃতি হয়ে যায় হর্স মাউন্টেড পুলিশ বাহিনী।

তার দাবি, এখন প্রশাসনের দ্রুত যাতায়াতের জন্য জিপ, মোটরসাইকেল আছে। কিন্তু ঘিঞ্জি ও জনবহুল এলাকায় এখনও হর্স মাউন্টেড পুলিশের প্রয়োজন আছে।

যেখানে যান চলাচল করতে পারে না সেখানে অপরাধ দমনে ঘোড়ায় চড়ে সহজেই পৌঁছে যেতে পারবে এই বিশেষ বাহিনী। স্বাধীনতার পরে এই প্রথম কোনো শহর আরও একবার পেতে চলেছে এই বিশেষ বাহিনী।

ঘোড়ার পিঠের ওপর থাকায় অনেক উঁচু থেকে অনেক দূর পর্যন্ত দেখতে পাবে এই বাহিনী। তাই একজন ঘোড়সওয়ার ৩০ জন পদাতিক বাহিনীর সমান।

এই ভাবনা থেকেই মন্ত্রী জানিয়েছেন, শুধু মুম্বাই নয়- পুনে ও নাগপুরের মতো শহরেও আস্তে আস্তে চালু করা হবে এই বাহিনী।

আগামী ছয় মাসের মধ্যে আনা হবে আরও ৩০টি ঘোড়া এবং ৩২ জন কনস্টেবল। আসবেন সাব-ইনস্পেক্টর, পিএসআইও।

তিনি জানান, বর্তমানে ১৩টি ঘোড়া কেনা হয়েছে। আগামী ছয় মাসে কেনা হবে আরও। আন্ধেরির মারোলে আড়াই একর জমির ওপর তৈরি হবে আস্তাবল।

পদ্মাটাইমস ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন
topউপরে