বাঘায় উপ-সহকারি প্রকৌশলীকে পেটানোর অভিযোগ

প্রকাশিত: জানুয়ারি ২০, ২০২০; সময়: ৬:৫৫ অপরাহ্ণ |
বাঘায় উপ-সহকারি প্রকৌশলীকে পেটানোর অভিযোগ

নিজস্ব প্রতিবেদক, বাঘা : রাজশাহীর বাঘায় প্রকৌশল অধিদপ্তরের এক উপ-সহকারী প্রকৌশলীকে পেটানোর অভিযোগে আ’লীগ নেতার ছেলে সেলিম আহম্মেদ সরকারের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করেছেন উপ-সহকারী প্রকৌশলী ফরিদ আহমেদ। সোমবার (২০ জানুয়ারী) এই মামলাটি দায়ের করা হয়েছে।

অভিযুক্ত সেলিম আহম্মেদ সরকার বাঘা পৌর আ’লীগের সভাপতি ও ঠিকাদার আব্দুল কুদ্দুস সরকারের ছেলে।

জানা গেছে, স্থানীয় সরকার (এলজিইডি)এর অধীনে ২০১৮-১৯ অর্থ বছরে ৩৮ লক্ষ ৩৪ হাজার টাকা ব্যয়ে বাঘা-চারঘাটের হাইওয়ে সড়ক থেকে চৌকিদারপড়া মোড় হতে হাবাসপুর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় পর্যন্ত ৫০০ মিটার রাস্তার বিটুমিনাস কার্পেটিং করণের কাজ পান, রাজশাহীর ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠান “মমো এন্টার প্রাইজ’’এর ঠিকাদার আমিরুল কবির।

তার কাছ থেকে কাজটি কিনে নেন, স্থানীয় ঠিকাদার ও বাঘা পৌর আ.লীগের সভাপতি আব্দুল কুদ্দুস সরকার। কাজটি গত বছরের ১৫ মে থেকে শুরু হয়ে একই বছরের ১৪ অক্টোবর শেষ হওয়ার কথা থাকলেও শুরু করা হয় চলতি বছরের জানুয়ারি মাসের দ্বিতীয় সপ্তাহে। এজন্য সাইডে ইট,বালু,খোয়াসহ নির্মাণ সামগ্রী ওই রাস্তায় ফেলেন কুদ্দুস সরকার। যার দেখভাল করেন তার বড় ছেলে সেলিম আহম্মেদ সরকার।

গত রোববার (১৯ জানুয়ারি) কাজটি পরিদর্শনে যান বাঘা উপজেলা প্রকৌশলী অধিদপ্তরের উপ-সহকারী প্রকৌশলী ফরিদ আহমেদ। তিনি ইট ও খোয়াসহ নিম্নমানের নির্মাণ সামগ্রী দেখে কাজ বন্ধ রেখে সিডিউল মোতাবেক কাজ করার নির্দেশ দিয়ে অফিসে চলে আসেন। এতে ক্ষিপ্ত হয়ে ওই প্রকৌশলীর উপজেলা কার্যালয়ে যান সেলিম আহম্মেদ সরকার।

সেখানে গিয়ে রোববার সকাল সাড়ে ১১টায় অফিসের বারান্দায় তর্ক বিতর্কে জড়িয়ে, অশ্লিল ভাষায় গালিগালাজ করে গলাধাক্কা দিয়ে ফেলে দেন এবং মরাপিট করেন। এতে মাথায় লেগে আহত হন উপ-সহকারী প্রকৌশলী ফরিদ আহম্মেদ। এর পর নিজে বাদি হয়ে সোমবার অভিযুক্ত সেলিমকে আসামি করে বাঘা থানায় মামলাটি দায়ের করেন।

দেরিতে কাজ শুরুর বিষয়ে ফরিদ আহাম্মেদ বলেন, কাজের নির্ধারিত সময় পার হলে সময় বর্ধিত করণের জন্য আবেদন করতে হয়। কিন্তু সেটাও করা হয়নি বলে জানান তিনি।

অভিযুক্ত সেলিম আহম্মেদ সরকার, মারধরের অভিযোগ অস্বিকার করে বলেন, তর্ক বিতর্কের এক পর্যায়ে ধাক্কা লেগে পড়ে গিয়েছে। কাজ বন্ধ রাখার কারন জানতে গিয়ে এধরনের ঘটনা ঘটেছে।

এ ঘটনায় মামলা হয়েছে বলে জানান,বাঘা থানার ডিউটি অফিসার, উপ সহকাারি পরিদর্শক (এসআই) নিজাম উদ্দীন।

পদ্মাটাইমস ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন
topউপরে