গরীব ও অসহায়দের পাশে রাজশাহীর ছাত্রসমাজ

প্রকাশিত: ২২-০১-২০২০, সময়: ১৯:৩৯ |
Share This

আশিকুজ্জামান আশিক (১৬), রাজশাহী : রাজশাহী বাঘা উপজেলার সরেরহাট এলাকায় কল্যাণী শিশু সদন ও মমতাজ আজিজ বৃদ্ধা নিকেতনের বৃদ্ধ, বৃদ্ধা এবং শিশুদেরকে শীতবস্ত্র বিতরণ করা হয়েছে। গত সোমবার (৬ই জানুয়ারি) রাজশাহীর একটি ছাত্র সংগঠন “Students Association of Rajshahi” এর উদ্যোগে এ শীতবস্ত্র বিতরণ করা হয়।

৬ জন বন্ধু মিলে গরিবদের সাহায্য করা দিয়ে শুরু এ সংগঠনের। যা সময়ের সাথে সদস্য বেড়ে আজ ১৫০ জন এ দাড়িয়েছে।

গত সোমবার ১০০ জন শীতার্থদের মাঝে শীতবস্ত্র বিতরণ করা হয় এ সংগঠনের ছাত্রদের পক্ষ থেকে। যার মধ্যে ৬০ জন বৃদ্ধ ও বৃদ্ধা এবং ৪০ জন এতিম শিশু।

গতবছরে রাজশাহীর বানেশ্বর এলাকার ১০ জন দরিদ্র শিশুদের মাঝে বস্ত্রবিতরণ এর মাধ্যমে এর যাত্রা শুরু করেছিল Students Association of Rajshahi নামক সমাজসেবা মূলক শিক্ষার্থীদের সংস্থার। এখানে স্কুল, কলেজ, বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রত্যেক সদস্য যে যার সামর্থ অনুযায়ী আত্নীয়, প্রতিবেশী, শিক্ষকদের কাছে অর্থ এবং বস্ত্র সংগ্রহ করে থাকে।

এ সংস্থার উদ্যেশের ব্যাপারে জানতে চাইলে সদস্য ইমাম হোসেন ইমন বলেন, “আমরা সেবা করতে এসেছি,মানুষের মুখে হাসি ফুটানোই আমাদের উদ্দ্যেশ্য”।

তাদের ভবিষ্যৎ পরিকল্পনা সম্পর্কে জানতে চাইলে আরেকজন সদস্য রোহান ইসলাম বলেন, “আমরা আমাদের কর্মপরিধি বাড়াতে চাই, আমরা ভবিষ্যতে অসহায় মানুষকে বিনামূল্যে রক্ত দেয়ার পরিকল্পনা করছি এবং অনেক শিশু আছে যারা অর্থের কারণে লেখাপড়া করতে পারছে না তাদের পাশে দাড়ানোর পরিকল্পনা রয়েছে”।

আরেক সদস্য আবদুল্লা আল মামুন বলেন, “আমরা যদি আমাদের আশেপাশের মানুষকে সাহায্য করি তবে দেশকে সম্পূর্ণ দারিদ্রমুক্ত করা সম্ভব। আমরা আমাদের এই কার্যক্রম আরো বাড়াতে চাই, আমাদের শুরু ছিল ১০ জনকে সাহায্য করার মাধ্যমে এবং এবার ১০০ জন পরবর্তীতে হাজার থেকে লক্ষ মানুষকে সাহায্য করতে চাই।”

শীতবস্ত্র বিতরণের সময় একজন বৃদ্ধার সাথে কথা হলে তিনি বলেন, “এই শীতে আমাদের গরম কাপড় না থাকায় অনেক কষ্ট হয়েছে। এই শীতবস্ত্র আমাদের কষ্ট লাঘব করবে।”

আরেকজন শিশুর সাথে কথা বললে তিনি জানান,”আমার পড়াশুনা করার ইচ্ছা, এই ভাইয়ারা আমার পড়াশুনা করার যাবতীয় খরচের ব্যবস্থা করবেন বলে কথা দিয়েছেন।”

সকলের সহযোগীতা পেলে তাদের কার্যক্রম আরো অনেক দূর এগিয়ে যেতে পারবে এমনটি মনে করছে এ সংগঠনটির সদস্যবৃন্দ।

উপরে