রাজশাহীতে ‘বাংলাদেশের অন্তর্ভূক্তিমূলক উন্নয়নের চ্যালেঞ্জ’ শীর্ষক সেমিনারের উদ্বোধন

প্রকাশিত: জানুয়ারি ২৪, ২০২০; সময়: ৫:১৭ অপরাহ্ণ |
রাজশাহীতে ‘বাংলাদেশের অন্তর্ভূক্তিমূলক উন্নয়নের চ্যালেঞ্জ’ শীর্ষক সেমিনারের উদ্বোধন

নিজস্ব প্রতিবেদক : রাজশাহীতে ‘বাংলাদেশের অন্তর্ভূক্তিমূলক উন্নয়নের চ্যালেঞ্জ’ শীর্ষক ৬ষ্ঠ সেমিনারের উদ্বোধন করা হয়েছে। শুক্রবার দুই দিনব্যাপি আশ্রয় সেন্টারে আশ্রয়ের ইনিস্টিটিউট অব সোস্যাল রিসার্চ এন্ড এ্যাপ্লাইড এ্যানথ্রোপলজি রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের নৃবিজ্ঞান বিভাগের উদ্যোগে এ সেমিনার অনুষ্ঠিত হয়।

এই সেমিনারের আহবায়ক ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের এ্যানথ্রোপলজি বিভাগের প্রফেসর ড. আহসান আলীর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের ভিসি প্রফেসর এম আব্দুস সোবহান। প্রধান বক্তা ছিলেন বিশিষ্ট উন্নয়ন অর্থনীতিবিদ ও পিকেএসএফ’র চেয়ারম্যান ড. কাজী খলীকুজ্জামান আহমদ। অতিথি ছিলেন বান্দরবন বিশ্ববিদ্যালয়ের ভিসি প্রফেসর ড. ইমাম আলী, কুমিল্লা বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রাক্তন ভিসি প্রফেসর ড. এএইচএম জেহাদুল করিম, রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রাক্তন ভিসি ড. মুহাম্মদ মিজানউদ্দিন, রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের সমাজবিজ্ঞান বিভাগের প্রফেসর কাজী তোবারক আলী, অর্থনীতি বিভাগের প্রফেসর ড. ইলিয়াস হোসোইন, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের নৃবিজ্ঞান বিভাগের প্রফেসর ড. জাহিদুল ইসলাম, সমাজবিজ্ঞান বিভাগের প্রফেসর মনিরুল ইসলাম খান।

এছাড়াও অতিথি ছিলেন শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের নৃবিজ্ঞান বিভাগের প্রফেসর একেএম মাজহারুল ইসলাম, রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের নৃবিজ্ঞান বিভাগের প্রফেসর ড. মোস্তফা কামাল আকন্দ, রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের নৃবিজ্ঞান বিভাগের প্রফেসর ও চেয়ারম্যান ড. বখতিয়ার আহমেদ, উইনরক ইন্টারন্যাশনাল বাংলাদেশের সাবেক কান্ট্রি রিপ্রেসেন্টেটিভ নাজমুল এইচ খান।

অনুষ্ঠানে বক্তারা বলেন, বৈশিক পরিমন্ডলে মানুষের উন্নয়ন ও অগ্রযাত্রায় বর্তমানে অন্তর্ভূক্তিমূলক উন্নয়ন বিশেষ গুরুত্ব বহন করছে। যা সমাজবিজ্ঞানী, নৃবিজ্ঞানী, অর্থনীতিবিদ, এবং উন্নয়নবিদদের কাজের মাধ্যমে উঠে এসেছে। অন্তর্ভূক্তিমূলক উন্নয়নে জাতি, ধর্ম, বর্ণ, শ্রেণি, পেশা ও লিঙ্গ নির্বিশেষে অন্তর্ভূক্ত করার জন্য আর্থ-সামাজিক অবস্থার ইতিবাচক পরিবর্তন ঘটে চলেছে। পাশাপাশি উন্নয়ন পরিকল্পনা যদি কিছু সামাজিক শ্রেণি ও জনগোষ্ঠির স্বার্থ কেন্দ্রিক হয় তা হলে নিঃসন্দেহে সার্বিক উন্নয়ন ব্যর্থ হবে। তাই অন্তর্ভূক্তিমূলক উন্নয়ন পরিকল্পনা ও বাস্তবায়নই সঠিক। নইলে সমাজে বিদ্যমান অর্থনৈতিক বৈষম্যের অবসান হবে না। যা পরিবার থেকে শুরু করে সমাজ ও রাষ্ট্রে অস্থিরতা ও টানা পোড়নের সৃষ্টি করবে।

এই সেমিনারে অংশ নেন দেশের বিভিন্ন বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক, শিক্ষার্থী ও আশ্রয়ের কর্মকর্তা-কর্মচারিবৃন্দ।

পদ্মাটাইমস ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন
topউপরে