ভোট দিতে এসে বিব্রত ড. কামাল

প্রকাশিত: ফেব্রুয়ারি ১, ২০২০; সময়: ২:০৩ অপরাহ্ণ |
ভোট দিতে এসে বিব্রত ড. কামাল

পদ্মাটাইমস ডেস্ক : ঢাকা সিটি নির্বাচনে ভোট দিতে এসে বিব্রতকর অবস্থায় পড়েছেন জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের শীর্ষ নেতা ড. কামাল হোসেন। এসময় তিনি ইলেকট্রনিক ভোটিং মেশিনে (ইভিএম) ত্রুটি এবং কেন্দ্রে বিএনপির এজেন্ট না থাকার অভিযোগও করেন। শনিবার সকাল ১০টার দিকে ভিকারুননিসা নূন স্কুল অ্যান্ড কলেজে ভোট দিতে আসেন তিনি।

ভোট দেয়ার পর সাংবাদিকদের সঙ্গে কথা বলেন জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের এই নেতা। এসময় তিনি বেশকিছু অভিযোগও করেন। বলেন, ‘ইভিএমে যান্ত্রিক ত্রুটির কারণে ২০ মিনিট ধরে বারবার সমস্যা হচ্ছিল। এ কেন্দ্রে ধানের শীষের এজেন্ট ঢুকতে দেয়া হয়নি। অথচ বাইরে শত শত বহিরাগত নৌকার বেজ পরে মহড়া দিচ্ছে।’

ইভিএম এর উপর আস্থা কম থাকায় ভোটকেন্দ্রে ভোটারদের উপস্থিতি কম বলেও মন্তব্য করেন গণফোরামের এই সভাপতি। বলেন, ’জনগণ ইভিএম এর ওপর কোনো আস্থা রাখতে পারছে না। তারা ভাবছে এটা দিয়ে কোন লাভ হবে না। ভোটারদের উপস্থিতি দেখে আমি মোটেও সন্তুষ্ট নয়। সাড়ে দশটার মধ্যে মাত্র একশোরও কম ভোট পড়েছে। বিভিন্ন জায়গা থেকে নানা অভিযোগ আসছে তাদেরকে ভোট দিতে বাধা দেয়া হচ্ছে। এরকম অভিযোগ আমার কাছেও আসছে।’

ইভিএম অনেক জটিল প্রক্রিয়া এমন অভিযোগ করে ড.কামাল বলেন, ‘আমার ভোটার নাম্বার বের করতে আধাঘণ্টা সময় লেগেছে। দিতে লেগেছে ১০ মিনিট। এটা একট জটিল প্রক্রিয়া। আমার আধাঘণ্টা সময় লেগেছে অন্য ভোটাররা ধৈর্য ধরে ভোট দিতে পারবে কিনা সেটাই দেখার বিষয়। আড়াই ঘণ্টার মধ্যে মাত্র একশরও কম ভোট পড়েছে। দশটা থেকেই সবসময় ভোটারদের উপস্থিতি বেশি লক্ষ করা যায়।কিন্ত এখন পর্যন্ত এখানে সেটি লক্ষ করা যাচ্ছে না ‘

নির্বাচনের সার্বিক পরিস্থিতির বিষয়ে এক প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, ’সকাল সাড়ে দশটার মধ্যে দুই হাজার ৬ শত ভোটারের মধ্যে মাত্র একশরও কম ভোট পড়েছে। এটা থেকে বোঝা যাচ্ছে মানুষ ইভিএম এর উপর আস্থা রাখতে পারছে না।‘

ইভিএমে জনগণের রায় প্রতিফলিত হবে কিনা এমন প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন,’ এটা বোঝা যাবে পরে।

পদ্মাটাইমস ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন
topউপরে