১০ বছর ধরে শুধু ঘাস-পাতা, কাঠ খেয়ে বেঁচে আছে ৫৫ বছরের ভুরা

প্রকাশিত: নভেম্বর ২৯, ২০২১; সময়: ১১:১৮ পূর্বাহ্ণ |
১০ বছর ধরে শুধু ঘাস-পাতা, কাঠ খেয়ে বেঁচে আছে ৫৫ বছরের ভুরা

পদ্মাটাইমস ডেস্ক : আমাদের প্রতিদিনের খাদ্যতালিকায় ভাত কিংবা রুটি থাকে। শাক-সবজি, ভাত, মাছ, মাংস, ডিম খেয়েই পেট ভরাই আমরা।

তবে কখনো কি শুনেছেন কোনো মানুষের খাদ্যতালিকায় রয়েছে শুধু ঘাস, পাতা আর কাঠ থাকে? আরো আশ্চর্যের এটাই যে, এগুলো তিনি ১০ বছর ধরে খাচ্ছেন।

অবিশ্বাস্য মনে হলেও এই ব্যক্তি এটাই করেছেন। তিনি দীর্ঘ ১০ বছর ধরে ঘাস, পাতা আর কাঠ খেয়েই পেট ভরান। ঐ ব্যক্তির নাম ভুরা যাদব শাহডোল। বয়স তার ৫৫ বছর।

তিনি মধ্যপ্রদেশের শাহডোল জেলার করকটী গ্রামের বাসিন্দা। সারা দিন ধরে গ্রামের এ গলি ও গলি ঘুরে বেড়ান তিনি। গ্রামের মানুষরা তাকে ঘাস, পাতা খেতে দেখতে অভ্যস্ত।

ভুরা যাদব শাহডোল দাবি, ছোটবেলা থেকেই একটু একটু করে পাতা এবং কাঠ খাওয়া শুরু করেন। তারপর তা আস্তে আস্তে অভ্যাসে পরিণত হয়ে গিয়েছে।

গত ১০ বছর ধরে ভুরা যাদব শাহডোল দৈনন্দিন খাবার এগুলোই। তার কথায়, ‘যত ক্ষণ না ঘাস, পাতা বা কাঠ খাচ্ছি তত ক্ষণ মনে হয় যেন কিছুই খাইনি।’

ভুরা যাদব শাহডোল অবিবাহিত। অত্যন্ত গরিব। মাঠে যখন গরু বা ছাগল চরাতে যান তখন গাছ থেকে পাতা ছিঁড়ে খেয়ে পেট ভরিয়ে নেন। কাঠ পেলে তাও খান।

এ সব খেয়েও নাকি তার কোনো শারীরিক অসুবিধা হয় না, এমনই দাবি ভুরা যাদব শাহডোলের। তেমন কোনো বড় রোগেও আক্রান্ত হননি কখনো।

ভুরা যাদব শাহডোলের এই ধরনের আচরণকে মানসিক রোগ বলেই দাবি করেছেন চিকিৎসকরা। তাদের মতে, এ সব জিনিস পেটের ভিতরে গিয়ে হজম হয় না। এর পুষ্টিগুণও নেই।

ফলে পেটের ভেতরে গুরুতর ক্ষতের সৃষ্টি হতে পারে। যা প্রাণঘাতীও হতে পারে। তবে এত দিন ধরে এ সব খেয়ে কীভাবে সুস্থ রয়েছেন, তা নিয়ে বিস্ময় প্রকাশ করেছেন চিকিৎসকরা।

পদ্মাটাইমস ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন
topউপরে