চলন্ত ট্রেনে পাথর নিক্ষেপে রাবি শিক্ষার্থী আহতের প্রতিবাদে মানববন্ধন

প্রকাশিত: ফেব্রুয়ারি ২০, ২০২২; সময়: ৮:৪৪ অপরাহ্ণ |
চলন্ত ট্রেনে পাথর নিক্ষেপে রাবি শিক্ষার্থী আহতের প্রতিবাদে মানববন্ধন

নিজস্ব প্রতিবেদক : চলন্ত ট্রেনে পাথর নিক্ষেপে রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের (রাবি) এক শিক্ষার্থী আহতের প্রতিবাদে মানববন্ধন কর্মসূচি করেছেন বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা। রবিবার (২০ ফেব্রুয়ারি) সকাল ১১টায় ক্যাম্পাসের প্যারিস রোডে এই কর্মসূচি পালিত হয়। কর্মসূচি থেকে এই ঘটনায় জড়িতদের শাস্তির দাবি জানান তারা।

আহত রাবি শিক্ষার্থীর নাম এমএ আজিজ। তিনি বিশ্ববিদ্যালয়ের ফারসি ভাষা ও সাহিত্য বিভাগের ২০১৯-২০ সেশনের শিক্ষার্থী।

মানববন্ধনে ফারসি বিভাগের তৃতীয় বর্ষের শিক্ষার্থী আশফাকুর রহামান সঞ্চালনা করেন। মানববন্ধনের সাথে একাত্মতা জানান ফারসি বিভাগের সভাপতি অধ্যাপক মো. ওসমান গণী। এসময় বিভিন্ন বিভাগের অর্ধশতাধিক শিক্ষার্থী উপস্থিত ছিলেন। কর্মসূচিতে শিক্ষার্থীদের হাতে ‘দুর্বত্তকারীদের চিহ্নিত করুন’ দুর্বত্তকারীদের শাস্তি চাই । রেলগাড়ির বাইরে সিসি ক্যামেরার ব্যবস্থা চাই’ রেল আইন কার্যকর করুন লেখা প্লাকার্ড দেখা যায়।

কর্মসূচিতে ফোকলোর বিভাগের শিক্ষার্থী রিসা বলেন, নিরাপদে চলার জন্য আমরা ট্রেন বেছে নিই। কিন্তু এখন দেখছি ট্রেনেও আমরা নিরাপদ না। বাংলাদেশের পত্রিকাগুলো খুলে দেখলে অহরহ দুর্বৃত্তদের পাথরের আঘাতে ট্রেনের যাত্রী আহতের ঘটনা দেখা যায়। এমনকি অনেকে মারাও গেছেন। আজকে আমরা আমাদের এক বন্ধুকে চলন্ত ট্রেনে ঢিল ছোড়ার প্রতিবাদে এখানে দাঁড়িয়েছি।

কর্মসূচিতে একই বিভাগের শিক্ষার্থী আপন বলেন, কী দোষ ছিল আমার বন্ধুর, তাকে কেনো আহত করা হলো। এই মানুষগুলো নিরাপরাধ মানুষকে আঘাত করে কী মজা পায়। আমরা এই কর্মসূচিতে থেকে এই ঘটনার তীব্র প্রতিবাদ ও জড়িতদের দ্রুত শাস্তির আওতায় নিয়ে আসার দাবি জানাই। দুর্বৃত্তদের এমন শাস্তি দেওয়া হোক যাতে করে এ ধরনের ঘটনা এ দেশে আর না ঘটে।

উল্লেখ্য, গত ১৭ ফেব্রুয়ারি রাত ৯টার দিকে পাঁচজন বন্ধুসহ মহানগর ট্রেন মহানন্দা এক্সপ্রেস করে আব্দুলপুর থেকে রাজশাহীতে আসছিলেন আজিজ। পথে আড়ানি স্টেশন পার হওয়ার পর দুর্বত্তদের পাথরের আঘাতে আহত হন তিনি। পরে তাকে চিকিৎসার জন্য রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের চিকিৎসা কেন্দ্রে নিয়ে আসে তার বন্ধুরা। সেখানে তার অবস্থা শ‌ঙ্কাজনক হলে তাকে রাজশাহী মেডিকেল কলেজ (রামেক) হাসপাতালে ভর্তি করা হয়।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
পদ্মাটাইমস ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন
topউপরে