পাকিস্তানের সকল টিভিতে ইমরান খানের বক্তব্য প্রচার নিষিদ্ধ

প্রকাশিত: মার্চ ৬, ২০২৩; সময়: ১০:১৯ পূর্বাহ্ণ |
পাকিস্তানের সকল টিভিতে ইমরান খানের বক্তব্য প্রচার নিষিদ্ধ

পদ্মাটাইমস ডেস্ক : পাকিস্তানের স্যাটেলাইট টেলিভিশন চ্যানেলগুলোতে দেশটির সাবেক প্রধানমন্ত্রী ও পাকিস্তান তেহরিক-ই-ইনসাফ চেয়ারম্যান ইমরান খানের বক্তৃতা সম্প্রচার নিষিদ্ধ করেছে দেশটির মিডিয়া নিয়ন্ত্রক কর্তৃপক্ষ পাকিস্তান ইলেকট্রনিক মিডিয়া রেগুলেটরি অথরিটি (পিইএমআরএ)।

প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, পাকিস্তানের সমস্ত স্যাটেলাইট টিভি চ্যানেলে ইমরান খানের বক্তৃতা সম্প্রচার নিষিদ্ধ করে রোববার নির্দেশনা জারি করে দেশটির মিডিয়া নিয়ন্ত্রক কর্তৃপক্ষ। নির্দেশনা জারির পর রোববার থেকে তা তাৎক্ষণিকভাবে কার্যকর হয়েছে।

দ্য ডন বলছে, পিটিআই চেয়ারম্যান ইমরান খান লাহোরে তার বাসভবন জামান পার্কের বাইরে দলীয় কর্মীদের উদ্দেশে ভাষণ দেওয়ার কয়েক ঘণ্টা পরে এই নিষেধাজ্ঞা দেওয়া হয়। পাকিস্তানের সাবেক এই প্রধানমন্ত্রীর রোববারের ওই ভাষণ দেশটির টিভি চ্যানেলগুলোতেও সম্প্রচার করা হয়।

এদিনের ভাষণে ইমরান বলেন, তিনি কোনও ব্যক্তি বা প্রতিষ্ঠানের সামনে কখনও মাথা নত করেননি এবং আপনাদেরও তা করতে দেবেন না। এসময় তিনি সরকারি দলের নেতাদের বিরুদ্ধেও কটাক্ষ করেন। বিশ্বকাপজয়ী সাবেক এই ক্রিকেট তারকা অভিযোগ করেন, তারা তাদের সম্পদ বিদেশে লুকিয়ে রেখেছেন এবং সাবেক সেনাপ্রধান জেনারেল (অব.) কামার জাভেদ বাজওয়া তাদেরকে আইনি মামলায় সুরক্ষা দিয়েছেন।

এদিকে ইমরানের বক্তব্য প্রচারের ওপর নিষেধাজ্ঞার আদেশের একটি অনুলিপি দেখেছে সংবাদমাধ্যম ডন.কম। সেখানে পাকিস্তানের মিডিয়া নিয়ন্ত্রক কর্তৃপক্ষ পূর্ববর্তী নির্দেশাবলী উল্লেখ করে দেশের সকল লাইসেন্সধারী টিভি চ্যানেলকে ‘রাষ্ট্রীয় প্রতিষ্ঠানের বিরুদ্ধে কোনও বিষয়বস্তু (কন্টেন্ট) সম্প্রচার করা থেকে বিরত থাকতে’ নির্দেশ দেয়।

নিয়ন্ত্রক এই সংস্থাটি উল্লেখ করেছে, ইমরান খান বক্তৃতা ও বিবৃতির মাধ্যমে ‘রাষ্ট্রীয় প্রতিষ্ঠান এবং কর্মকর্তাদের বিরুদ্ধে তার উস্কানিমূলক বক্তব্যের মাধ্যমে ভিত্তিহীন অভিযোগ এবং বিদ্বেষমূলক বক্তব্য ছড়াচ্ছেন যা আইনশৃঙ্খলা রক্ষার জন্য প্রতিকূল এবং জনসাধারণের শান্তি ও শৃঙ্খলা বিঘ্নিত করতে পারে।’

এর আগে রোববার ইমরান খানকে গ্রেপ্তার করার চেষ্টা চালিয়ে ব্যর্থ হয় পাকিস্তানের পুলিশ। মূলত সাবেক এই প্রধানমন্ত্রীকে গ্রেপ্তারের চেষ্টার বিরুদ্ধে প্রতিবাদ জানাতে লাহোর শহরে ইমরানের বাড়ির সামনে সমবেত হন তার শত শত সমর্থক।

এদিন লাহোরের জামান পার্ক এলাকায় ইমরানের বাসভবনের বাইরে পুলিশের একটি দল অপেক্ষা করছিল তাকে গ্রেপ্তার করার জন্য। ইসলামবাদ পুলিশের এক টুইট বার্তায় জানানো হয়, ইমরান খানকে গ্রেপ্তার করার জন্য লাহোর পুলিশের সহায়তার অভিযান চলছে।

সেসময় ইমরান খান তার বাসভবনে দলের কর্মীদের সামনে বক্তব্য রাখেন এবং তার ডাকে সরকারবিরোধী বিক্ষোভে অংশ নেওয়ার জন্য সমর্থকদের ধন্যবাদ দেন। পুলিশ জানায়, ইমরান খান গ্রেপ্তার এড়ানোর চেষ্টা করছেন।

তবে শেষ পর্যন্ত পুলিশ ইমরানকে গ্রেপ্তার না করেই চলে যায়।

এর আগে গত সপ্তাহে আদালত একটি মামলায় ইমরান খানের বিরুদ্ধে গ্রেপ্তারি পরোয়ানা জারি করে। ওই মামলার অভিযোগে বলা হয়, ইমরান খান প্রধানমন্ত্রী থাকার সময় বিদেশের নেতাদের কাছ থেকে যেসব উপহার পেয়েছিলেন সেগুলোর কথা তিনি সঠিকভাবে জানাননি।

অবশ্য ইমরান খান এই মামলাটিকে রাজনৈতিক উদ্দেশ্যপ্রণোদিত বলে উল্লেখ করেছেন।

অন্যদিকে ইমরান খানের রাজনৈতিক দল তেহরিক-ই-ইনসাফ হুঁশিয়ারি দিয়েছে, তাদের নেতাকে গ্রেপ্তার করা হলে পাকিস্তানের রাজনৈতিক পরিস্থিতির গুরুতর অবনতি হবে।

 

পদ্মাটাইমস ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন
topউপরে