তাড়াশে প্রেমিকের হাত ধরে উধাও প্রেমিকা

প্রকাশিত: মে ২৮, ২০২৩; সময়: ৩:২৪ অপরাহ্ণ |
তাড়াশে প্রেমিকের হাত ধরে উধাও প্রেমিকা

নিজস্ব প্রতিবেদক, তাড়াশ : সিরাজগঞ্জ তাড়াশে রক্তিম নামের এক যুবকের হাত ধরে স্কুল পড়ুয়া এক ছাত্রী পালিয়ে যাওয়ার ঘটনা ঘটেছে। রক্তিম নওগাঁ ইউনিয়নের পংরৌহালী গ্রামের আফজাল হোসেনের ছেলে তাদের দুজনের মধ্যে প্রেমের সম্পর্ক রয়েছে বলে দাবি স্থানীয়দের।

প্রেমিক ও প্রেমিকার দুজনেই পাশাপাশি একই এলাকার বাসিন্দা।

সরেজমিনে গিয়ে জানা যায়, গত বুধবার (২৪ মে) সকালে রক্তিমের সঙ্গে পালিয়ে যায় স্কুল মেয়েটি। এ নিয়ে মেয়ের পরিবার থানায় রক্তিমসহ ৪ জনের নামে একটি লিখিত অভিযোগ দায়ের করেছেন।

রক্তিমের বড় ভাই রুবেল বলেন, ‘আমার ভাই ও ওই মেয়ে অনেক আগে থেকে প্রেমের সম্পর্ক ছিল। এজন্য তারা দুজনে পালিয়ে গেছে। আমারা বাবা-মা ওদের খোঁজ জানতে বিভিন্ন আত্মীয়-স্বজনদের বাড়িতে তল্লাশি করতে বেরিয়েছি।

কিন্তু তার পরেও মেয়ের মা আমাদেরকে হয়রানি করার জন্য মিথ্যা মামলা করেছেন এবং বিভিন্ন হুমকি ধামকি দিচ্ছে। মেয়ের পরিবারের লোকজন কখন কি করে বসে সে ভয়ে আমরা আতঙ্কে আছি।

এ বিষয়ে মেয়েটির মা ছালমা খাতুন জানান, বুধবার (২৪ মে) সকাল সাড়ে ৯ টার দিকে আমার নিজ বাড়ি থেকে নওগাঁ বাজারের বটতলায় পৌঁছালে রক্তিম তার মেয়েকে জোরপূর্বক তুলে নিয়ে যায়। পরে স্থানীয়দের মাধ্যমে বিষয়টি জেনে তাদের মেয়েকে না পেয়ে থানায় অপহরণ মামলা দায়ের করেছি।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক মেয়েটির একাধিক বন্ধু ও বান্ধবীদের সাথে কথা বলে জানা যায়, দুজনের মধ্যে প্রেমের সম্পর্ক দীর্ঘদিনের। তবে মেয়ের পরিবার থেকে মেয়েকে অন্যত্রে বিয়ে দেওয়ার কথা চলছিল তাই তারা দুজন দুজনার হাত ধরে পালিয়ে যেতে বাধ্য হয়েছে।

যদি মেয়ের পরিবার থেকে মেয়েকে অন্যত্রে বিয়ে দিতে না চাইতো তাহলে দুজনেই পরিপূর্ণ বা প্রাপ্ত বয়স্ক হওয়ার পর বিয়ে করত। আর তখন এ ধরনের ঘটনা ঘটতো না।

এ প্রসঙ্গে তাড়াশ থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) শহিদুল ইসলাম মামলার বিষয়টি নিশ্চিত করে বলেন, ওই মেয়েটিকে উদ্ধারের চেষ্টা চলছে।

ইতোমধ্যে মেয়েটিকে উদ্ধার করতে একটি টিম ঢাকায় গিয়ে পৌঁছেছে। অচিরেই এ ঘটনার রহস্যের জট খুলবে।

পদ্মাটাইমস ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন
topউপরে