আটলান্টিকে ৬০ অভিবাসীর মৃত্যুর আশঙ্কা

প্রকাশিত: আগস্ট ১৭, ২০২৩; সময়: ১০:১৬ পূর্বাহ্ণ |
আটলান্টিকে ৬০ অভিবাসীর মৃত্যুর আশঙ্কা

পদ্মাটাইমস ডেস্ক : আটলান্টিক মহাসাগরের পশ্চিম আফ্রিকার দেশ কেপ ভার্দের উপকূলে অভিবাসনপ্রত্যাশীদের বহনকারী একটি নৌকা ভেসে এসেছে। আশঙ্কা করা হচ্ছে, নৌকাটিতে থাকা ৬০ জনেরও বেশি মানুষ মারা গেছেন। এখন পর্যন্ত দুর্ঘটনাস্থল থেকে নারী ও শিশুসহ ৩৮ জনকে উদ্ধার করা হয়েছে।

বৃহস্পতিবার বিবিসির এক প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, এক মাসেরও বেশি সময় ধরে সমুদ্রে থাকা নৌকাটিতে থাকা প্রায় সবাই সেনেগাল থেকে এসেছেন বলে ধারণা করা হচ্ছে।

একটি ভিডিও ফুটেজে দেখা গেছে, সাল দ্বীপ থেকে কিছু স্ট্রেচার দিয়ে নৌকায় থাকা লোকজনকে উদ্ধার করা হচ্ছে। পুলিশ জানিয়েছে, একটি স্প্যানিশ মাছ ধরার নৌকা গত সোমবার জাহাজটিকে প্রথম দেখতে পায়। তখন এটি কেপ ভার্দের সাল দ্বীপ থেকে ৩২০ কিলোমিটার দূরে অবস্থান করছিল।

কর্মকর্তারা আরও জানিয়েছেন, প্রায় মাসখানেক আগে নৌকাটি শতাধিক আরোহী নিয়ে সেনেগাল থেকে যাত্রা শুরু করে। স্থানীয় পুলিশ জানিয়েছে, নৌকাটিকে প্রথমবারের মতো চিহ্নিত করা হয় গত সোমবার। প্রাথমিকভাবে জানা গিয়েছিল, নৌকাটি ডুবে গেছে কিন্তু পরে জানা যায়, নৌকাটি তখনো ভাসছে কিন্তু ডুবে যাওয়ার পথে রয়েছে।

পুলিশ আরও জানিয়েছে, কাঠের তৈরি নৌকাটিকে প্রথম দেখতে পাওয়া যায় সাল দ্বীপ থেকে ৩২০ কিলোমিটার দূরে। স্পেনের একটি মাছ ধরা নৌকা সেটিকে প্রথম দেখতে পায় এবং পরে তারা বিষয়টি পুলিশকে জানায়।

আন্তর্জাতিক অভিবাসন সংস্থা (আইএমও) জানিয়েছে, উদ্ধার হওয়া ৩৮ জনের মধ্যে ৪ জন শিশু। তাদের বয়স ১২ থেকে ১৬ বছরের মধ্যে। কেপ ভার্দের কর্মকর্তারা আন্তর্জাতিক গোষ্ঠীর প্রতি এই অবৈধ অভিবাসন বন্ধের আহ্বান জানিয়েছেন।

সাল দীপের স্বাস্থ্য কর্মকর্তা জোসে মোরেরা বলেছেন, উদ্ধার করা অভিবাসীদের শারীরিক অবস্থার উন্নতি হচ্ছে। তাদের দেখাশোনা করা হচ্ছে।

সমুদ্রে প্রাণহানি রোধে অভিবাসনের বিষয়ে বিশ্বব্যাপী পদক্ষেপ নেওয়ার আহ্বান জানিয়েছেন কেপ ভার্দের কর্মকর্তারা। কেপ ভার্দে উপকূল থেকে প্রায় ৬০০ কিলোমিটার দূরে স্প্যানিশ ক্যানারি দ্বীপপুঞ্জে একটি সামুদ্রিক অভিবাসন রুট। এই রুট প্রায়ই ইউরোপিয়ান ইউনিয়নে ঢোকার প্রবেশদ্বার হিসেবে ব্যবহৃত হয়।

পদ্মাটাইমস ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন
topউপরে