বাগমারায় এমপি এনামুলের ভালোবাসায় সিক্ত নতুন ভোটাররা

প্রকাশিত: সেপ্টেম্বর ১২, ২০২৩; সময়: ২:১৫ অপরাহ্ণ |
বাগমারায় এমপি এনামুলের ভালোবাসায় সিক্ত নতুন ভোটাররা

নিজস্ব প্রতিবেদক, বাগমারা : ২০০৮ সালের মহান জাতীয় সংসদ নির্বাচনে রাজশাহী-৪ (বাগমারা) আসনে প্রথম বারের মতো সংসদ সদস্য নির্বাচিত হয়েছেন ইঞ্জিনিয়ার এনামুল হক।

সংসদ সদস্য নির্বাচিত হওয়ার পর থেকেই উপজেলার বিভিন্ন সমস্যার সমাধান করেছেন। রক্তাক্ত বাগমারাকে করেছেন শান্তি আর উন্নয়নের জনপদ। বাগমারাবাসীর সুখে-দুখে পাশে থেকেছেন সর্বদায়।

ইঞ্জিনিয়ার এনামুল হকের এমন কর্মকান্ডে ২০১৪ সালে বিনা প্রতিদ্বন্দ্বীতায় দ্বিতীয় বারের মতো সংসদ সদস্য নির্বাচিত হন। দ্বিতীয় বার নির্বাচিত হওয়ার পর আবারও শুরু হয় নতুন নতুন চ্যালেঞ্জ।

সেই সাথে আত্মকর্মসংস্থান, যোগাযোগ, বিদ্যুৎ, শিক্ষা, স্বাস্থ্য, কৃষি, তথ্য প্রযুক্তি এমন কোন ক্ষেত্র নেই যেটা নিয়ে কাজ করেননি তিনি। অবহেলিত পশ্চ্যাদমুখ জনগোষ্ঠীর সেবায় ইঞ্জিনিয়ার এনামুল হক এমপি একজন নিবেদিত প্রাণ।

এরপর আসে ২০১৮ সালের জাতীয় সংসদ নির্বাচন। সেই নির্বাচনেও তৃতীয় বারের মতো একই আসনে সংসদ সদস্য নির্বাচিত হন তিনি। তার দূরদর্শী নেতৃত্বে বাগমারা হয়ে উঠে আধুনিক ও উন্নত উপজেলা।

বাগমারার প্রতিটি এলাকার সাথে উপজেলা সদরের যোগাযোগ ব্যবস্থার সেতুবন্ধন তৈরি করা হয়েছে। পাশাপাশি প্রত্যন্ত গ্রামের আঁকাবাকা মেঠো পথও পাকাকরণ করা হচ্ছে সমান তালে। বাগমারাবাসীর জন্য এমন ব্যক্তি আর আগে আসেনি।

বাগমারায় সকল ধর্মের লোকজন শান্তিপূর্ণভাবে তাদের ধর্মীয় সকল অনুষ্ঠানাদী পালন করতে পারে। নেই কোন রাজনৈতিক সহিংসতা। দিবারাত্রী লোকজন রাস্তায় চলাচল করলেও তেমন কোন সমস্যায় পড়তে হয় না। নিশ্চিতে সবাই চলাচল করতে পারে পুরো উপজেলা জুড়ে। বাগমারাবাসীর স্বার্থে এবং উন্নয়নে সব ব্যতিক্রমী কার্যক্রম করে চলেছেন তিনি।

সদ্য প্রকাশিত বাগমারা উপজেলার ১৪ হাজারের অধিক নতুন ভোটারদের বাড়ি বাড়ি অভিনন্দন বার্তা পাঠাচ্ছেন ইঞ্জিনিয়ার এনামুল হক এমপি। অভিনন্দন বার্তায় ২০০৮ সালের পূর্বের ইতিহাস ও বর্তমান সময়ের আধুনিক বাগমারার অনেক তথ্য দেয়া হয়েছে।

সেই সাথে বলা হয়েছে বর্তমান সরকার বাংলাদেশকে “স্মার্ট বাংলাদেশ” গড়ার কাজ করছে। সেই স্বপ্ন অন্তরে ধারণ করে বাগমারাকে “স্মার্ট বাগমারা” বিনির্মাণে কাজ করছে ইঞ্জিনিয়ার এনামুল হক এমপি।

তিনি বলেন,  এ কাজ একার পক্ষে করা সম্ভব নয়। স্মার্ট বাগমারা গড়তে নতুন ভোটারদের সমর্থন ও সহযোগিতা প্রয়োজন। উন্নত বিশ্বের মত বাগমারাকে তৈরি করতে হলে মননশীল চিন্তা ও শানিত শক্তির কোন বিকল্প নেই বলেও উল্লেখ করেছেন তিনি।

ইঞ্জিনিয়ার এনামুল হক এমপির স্মাট বাগমারা গড়ার অভিননন্দন বার্তা হাতে পেয়ে মহাখুশি নতুন ভোটাররা। সেই সাথে তাদের অভিভাবকবৃন্দ।

রায়হান, সাব্বির, মাইনুল সহ বেশ কয়েকজন ভোটার জানান, আমরা এবার নতুন ভাবে ভোটার হয়েছি। নতুন ভোটার হওয়ায় ইঞ্জিনিয়ার এনামুল হক এমপি আমাদের বাড়িতে অভিনন্দন বার্তা পাঠিয়েছেন।

এটা পড়ে সত্যিই অভিভূত হয়ে গেছি। এর আগে কোন এমপি-মন্ত্রী ভোটারদের নিয়ে চিন্তা করেনি। আমারও এবার ইঞ্জিনিয়ার এনামুল হকের পক্ষ নিয়ে স্মার্ট বাগমারা গড়ার প্রত্যয়ে কাজ করে যাবো।

এ ব্যাপারে ইঞ্জিনিয়ার এনামুল হক এমপি বলেন, আমি চেয়েছি বাগমারার ইতিহাস সম্পর্কে নতুন ভোটাররা জ্ঞান অর্জন করুক। সেই সাথে আধুনিক এবং শান্তির জনপদকে “স্মার্ট বাগমারা” হিসেবে গড়তে। একার পক্ষে যেহেতু এটি কথা সম্ভব না।

তাই স্মার্ট বাগমারা গড়তে নতুন ভোটারদের সহযোগিতা ও সমর্থন প্রয়োজন। সে জন্য নতুন ভোটার তালিকায় যাদের নাম অন্তর্ভূক্ত হয়েছে তাদের বাড়ি বাড়ি অভিনন্দন বার্তা পাঠিয়েছি।

 

  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
পদ্মাটাইমস ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন
topউপরে