ষড়যন্ত্র রুখে নৌকার বিজয় ঘটাতে হবে : এমপি এনামুল

প্রকাশিত: নভেম্বর ১২, ২০২৩; সময়: ২:৩২ অপরাহ্ণ |
ষড়যন্ত্র রুখে নৌকার বিজয় ঘটাতে হবে : এমপি এনামুল

নিজস্ব প্রতিবেদক, বাগমারা : কয়েক দিন পরেই ঘোষণা করা হবে দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনের তফসীল। দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে এরই মধ্যে সারাদেশেই প্রার্থী নিয়ে চলছে না না গুঞ্জণ। দেশব্যাপি বইছে নির্বাচনী হাওয়া।

সেই হাওয়ায় বাদ পড়েনি বাগমারাও। দীর্ঘ সময় ধরে বাগমারায় আপামর জনগণের পাশে থেকে উন্নয়নের মহাযজ্ঞ সম্পাদন করছেন ইঞ্জিনিয়ার এনামুল হক এমপি।

১৫ বছর থেকে দৃশ্যমান সকল উন্নয়ন ঘটানোর সঙ্গে সঙ্গে প্রতিটি মানুষের যে কোন প্রয়োজনে কাছে থেকেছেন সর্বদায়। অশান্ত আর রক্তাক্ত বাগমারাকে শান্তির জনপদে পরিণত করেন তিনি।

এছাড়াও এক সময়ের অন্ধকার বাগমারাকে আধুনিক উপজেলায় বাস্তবায়ন করে চলেছেন। সে কারনে সকল জল্পনা-কল্পনার অবসান ঘটিয়ে চতুর্থ বারের মতো বাগমারা উপজেলা আওয়ামী লীগের পক্ষ থেকে ইঞ্জিনিয়ার এনামুল হক এমপিকেই প্রার্থী হিসেবে সর্বসম্মতিক্রমে সুপারিশ করা হয়েছে।

শনিবার সন্ধ্যায় উপজেলা আওয়ামী লীগের দলীয় কার্যালয় বঙ্গবন্ধু স্মৃতি জাদুঘর কমপ্লেক্সের সভাকক্ষে উপজেলা আওয়ামী লীগের কার্যকরি কমিটির মাসিক সভায় এই সুপারিশ করেন আওয়ামী লীগ নেতৃবৃন্দ।

ইঞ্জিনিয়ার এনামুল হক এমপির হাত ধরে ২০০৮ সাল থেকে আওয়ামী লীগের নেতৃত্বে পরিচালনা হয়ে আসছে রাজশাহী-৪(বাগমারা) আসন। বাগমারার প্রতিটি দৃশ্যমান উন্নয়নের পাশাপাশি চলমান কার্যক্রম বাস্তবায়ন হচ্ছে ইঞ্জিনিয়ার এনামুল হক এমপির প্রচেষ্টায়।

উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক অধ্যক্ষ গোলাম সারওয়ার আবুলের পরিচালনায় কার্যকরি কমিটির মাসিক সভায় সভাপতি হিসেবে বক্তব্য রাখেন, আসন্ন দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে নৌকার পদপ্রার্থী ইঞ্জিনিয়ার এনামুল হক এমপি।

ইঞ্জিনিয়ার এনামুল হক এমপি বলেছেন, আসন্ন জাতীয় সংসদ নির্বাচনে সকল ষড়যন্ত্র রুখে নৌকার বিজয় ঘটাতে হবে। দেশের উন্নয়নে নৌকার পক্ষে সবাইকে আরো দৃঢ় ভাবে কাজ করতে হবে।

জাতীয় নির্বাচনকে সামনে রেখে সকল প্রস্তুতি গ্রহণ করছে উপজেলা আওয়ামী লীগ। তৃণমূল আওয়ামী লীগ শক্তিশালী হলে নৌকার বিরোধীতা করে লাভ নেই। তৃণমূল আওয়ামী লীগ ঐক্যবদ্ধ থাকলে নৌকার বিজয় কেউ ঠেকাতে পারবেনা।

আওয়ামী লীগ নেতৃবৃন্দের কাছে জাতীয় সংসদ নির্বাচন সবার আগে। নৌকার বিজয়ের লক্ষ্যে নতুন নতুন পরিকল্পনা নিয়ে সামনে এগিয়ে চলেছে উপজেলা আওয়ামী লীগ।

তিনি আরও বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার দৃঢ় নেতৃত্বে এগিয়ে চলেছে দেশের সকল উন্নয়ন। জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের স্বপ্ন বাস্তবায়ন করছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

নেতৃবৃন্দের উদ্দেশ্যে তিনি বলেন, আওয়ামী লীগের সংগঠনে থেকে কেউ দলের বিরুদ্ধে কথা বলতে পারে না। দল কোন বড় নেতার ক্ষমতায় চলে না। দল চলে গঠনতন্ত্র মেনে।

দেশে উন্নয়নের ভিত্তি আরো শক্তিশালী এবং স্মার্ট বাংলাদেশ গড়তে আওয়ামী লীগ সরকারকে আবারও ক্ষমতায় আনতে হবে। দলের সবাইকে সুসংগঠিত হয়ে সামনে এগিয়ে যেতে হবে।

তিনি আরও বলেন, নৌকার বিজয়ের লক্ষ্যে এরই মধ্যে প্রতিটি ইউনিয়নে ভোট কেন্দ্র কমিটি গঠনের কার্যক্রম এগিয়ে চলেছে। আগামী নির্বাচনে রাজনীতিক পরিস্থিতি সাংগঠনিক ভাবেই এগিয়ে নেয়া হবে।

বিএনপি-জামায়াত দেশে যে নৈরাজ্য সৃষ্টি করে মানুষরে জানমালের ক্ষতি করছে তা মেনে নেয়ার মতো না। তাদের সন্ত্রাসী সকল কর্মকান্ডকে প্রতিহত করতে আওয়ামী লীগ ও সহযোগী সংগঠনের নেতৃবৃন্দকে ঐক্যবদ্ধ হয়ে প্রতিরোধ করতে হবে।

প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশনায় অবৈধ কর্মসূচীর বিরুদ্ধে কঠোর অবস্থান গ্রহণ করতে হবে বলেও জানান তিনি। মাসিক সভার শুরুতে আওয়ামী লীগ ও সহযোগী সংগঠনের যে সকল নেতৃবৃন্দ মৃত্যুবরন করেন তাদের বিদেহী আত্মার শান্তি কামনায় শোক প্রস্তার গ্রহণের পাশাপাশি দোয়া করা হয়।

কার্যকরি কমিটির মাসিক সভায় প্রধান অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন, রাজশাহী জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি ও বাগমারা উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান বীর মুক্তিযোদ্ধা অনিল কুমার সরকার।

অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য রাখেন, উপজেলা আওয়ামী লীগের শিক্ষা ও মানবসম্পদ বিষয়ক সম্পাদক আব্দুল জব্বার, বন ও পরিবেশ বিষয়ক সম্পাদক আব্দুল হাকিম, বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিষয়ক সম্পাদক মোসলেম উদ্দীন, চেয়ারম্যান অধ্যক্ষ আজাহারুল হক, রেজাউল হক, ভাইস চেয়ারম্যান মমতাজ আক্তার বেবী।

মাসিক সভায় উপস্থিত ছিলেন, উপজেলা আওয়ামী লীগের সিনিয়র সহ-সভাপতি ও ভবানীগঞ্জ পৌরসভার মেয়র আব্দুল মালেক মন্ডল, সহ-সভাপতি আফতাব উদ্দীন আবুল, রিয়াজ উদ্দীন আহমেদ, জাহাঙ্গীর আলম হেলাল, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক সিরাজ উদ্দীন সুরুজ, আসাদুজ্জামান আসাদ, মকবুল হোসেন, দপ্তর সম্পাদক নুরুল ইসলাম, সহ-দপ্তর সম্পাদক আব্দুল জলিল মাস্টার, সাংগঠনিক সম্পাদক হারুন অর রশীদ সরকার, আল-মামুন, জাহাঙ্গীর আলম, তথ্য ও গবেষনা সম্পাদক আশরাফুল ইসলাম, প্রচার ও প্রকাশনা সম্পাদক ফরহাদ হোসেন মজনু, সহ-প্রচার ও প্রকাশনা সম্পাদক আনোয়ার হোসেন।

অন্যান্যের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন, যুব ক্রীড়া বিষয়ক সম্পাদক আশিকুর রহমান সজল, ত্রান ও সমাজকল্যাণ সম্পাদক মাসুদ রানা কামাল, কৃষি ও সমবায় বিষয়ক সম্পাদক আব্দুল মতিন, শ্রম সম্পাদক সাইফুল ইসলাম, স্বাস্থ্য বিষয়ক সম্পাদক আলী হাসান, সাংস্কৃতিক সম্পাদক ইসমাইল হোসেন বেঙ্গল, মহিলা বিষয়ক সম্পাদিকা জাহানারা বেগম, কার্যকরী কমিটির সদস্য চেয়ারম্যান আনোয়ার হোসেন, মোজাম্মেল হক, মাজেদুল ইসলাম সোহাগ, সাবেক অধ্যাপক আব্দুস সামাদ, আসলাম আলী আসকান, আবুল কালাম আজাদ, বকুল আলী খরাদি, আব্দুল মান্নান, আখতারুজ্জামান বুলবুল, কাউসার আলী, লোকমান আলী, আকবর আলী, শাহরিয়া আলী, আব্দুল জলিল, জাহেদুর রহিম মিঠু, মিজানুর রহমান, আতাউর রহমান, জহুরুল ইসলাম, মহিলা লীগের সভাপতি কহিনুর বানু, কৃষকলীগের সভাপতি মহসীন আলী, সাধারণ সম্পাদক আব্দুর রাজ্জাক, যুব মহিলা লীগের সভাপতি শাহিনুর খাতুন, সাধারণ সম্পাদক পারভীন আক্তার প্রমুখ।

উক্ত সভায় উপজেলা আওয়ামী লীগ ও উপজেলা পর্যায়ের সহযোগী সংগঠনের সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদক এবং ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদকবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।

 

 

  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
পদ্মাটাইমস ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন
topউপরে