জয়পুরহাটে বৈদ্যুতিক মিটার ও টান্সফর্মার চুরি চক্রের ১৬ সদস্য গ্রেপ্তার

প্রকাশিত: নভেম্বর ৩০, ২০২৩; সময়: ২:৪৫ অপরাহ্ণ |
জয়পুরহাটে বৈদ্যুতিক মিটার ও টান্সফর্মার চুরি চক্রের ১৬ সদস্য গ্রেপ্তার

নিজস্ব প্রতিবেদক, জয়পুরহাট : জয়পুরহাটে ডিপ টিউবওয়েলের বৈদ্যুতিক মিটার ও টান্সফর্মার চুরি চক্রের ১৬ সদস্যকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ।

বৃহস্পতিবার দুপুরে জয়পুরহাট পুলিশ সুপারের সভাকক্ষে আয়োজিত এক সংবাদ সন্মেলনে পুলিশ সুপার মোহাম্মদ নুরে আলম জানান, বেশ কিছুদিন যাবৎ জয়পুরহাট জেলার জয়পুরহাট সদর, পাঁচবিবি, আক্কেলপুর, কালাই, ক্ষেতলাল থানা এলাকার বিভিন্ন ডিপ টিউবয়েলের বৈদ্যুতিক মিটার ও ট্রান্সফর্মার চুরি করে উক্ত মিটার মালিকের নিকট ট্রান্সফরমার ফেরত দেওয়ার কথা বলে বিকাশ/ নগদ একাউন্টের মাধ্যমে টাকা দাবী করতো।

টাকা পেলে চোরাই মিটার/ ট্রান্সফর্মার কৌশলে সংশ্লিষ্ট ডিপ টিউবয়েল এলাকার আশেপাশে রেখে দিয়ে মালিককে অবগত করত তারা। এরকম একাধিক অভিযোগে জয়পুরহাট জেলায় প্রতিটি থানায় মামলা রুজু হয়।

মামলার প্রেক্ষিতে পুলিশের টিম এবং ডিবি, জয়পুরহাট-এর একটি চৌকশ টিমসহ জয়পুরহাট, বগুড়া, গাইবান্ধা, দিনাজপুর সীমানায় তথ্য প্রযুক্তি ও সোর্সের দেওয়া তথ্যের সহায়তায় ঘটনার সাথে প্রত্যক্ষভাবে জড়িতদের সনাক্তপূর্বক অভিযান পরিচালনা করে আসামীদের গ্রেফতার করা হয়।

গ্রেপ্তারকৃত প্রত্যেকের বিরুদ্ধে বিভিন্ন থানায় মিটার/ ট্রান্সফরমার চুরি, ছিনতাই, চুরিসহ একাধিক মামলা বিজ্ঞ আদালতে বিচারাধীন রয়েছে।

গ্রেপ্তাররকৃতরা হলেন, গাইবান্ধা জেলার ধাওয়াচিলা শাইলট্রি মৃত নছির উদ্দিনের ছেলে আঃ রশিদ, জয়পুরহাটের পাঁচবিবি উপজেলার বেড়াখাই গ্রামের আবু তাহেরের ছেলে মাহফুজ, আটুল গ্রামের লোকমানের ছেলে লাভলু, কুয়াতপুর গ্রামের মোজাফ্ফর মন্ডলের ছেলে মোসাদ্দেক মন্ডল, একই গ্রামের গোলাম হোসেনের ছেলে আহসান হাবিব,উচাই গ্রামের মৃত হুজুর আলীর ছেল খানু ফকির, সরাইল গ্রামের মোখছেদের ছেলে সাইদুর, পেয়ারা গ্রামের আমির হামজার ছেলে রাব্বি হাসান, ক্ষেতলাল উপজেলার রামপরা চৌধুরী পাড়ার মনির উদ্দিনের ছেলে তুহিন মন্ডল, আক্কেলপুর উপজেলার পারইল গ্রামের আসিদুলের ছেলে রায়হান কাজী, কালাই উপজেলার মহেষপুর গ্রামের আঃ করিম মন্ডলের ছেলে কাওসার রহমান, বেগুনগ্রামের সহিদুল ইসলাম এর ছেলে সোহাগ মন্ডল, আকলাপাড়া গ্রামের আঃ মন্ডলের ছেলে মেসবাউল ইসলাম, হাজিপুর সরকারপাড়া গ্রামের জসিম উদ্দিনের ছেলে ছানোয়ার হোসেন, সিকটা মাদ্রাসাপাড়ার সেকেন্দার আলীর ছেলে খোরশেদ আলম ধলু ও নওগাঁ জেলার সদর উপজেলার নদীকুল চৌধুরী পাড়া এলাকার সাত্তার আলী দেওয়ানের ছেলে জালাল হোসেন।

সংবাদ সন্মেলনে আরও উপস্থিত ছিলেন, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মামুন খান চিশতি, ইশতিয়াক আহম্মেদ, গোয়েন্দা পুলিশের অফিসার্স ইনচার্জ সাহেদ আলম, উপপরিদর্শক জাহাঙ্গীর হোসেন, মিজানুর রহমানসহ অন্যান্য কর্মকর্তারা।

পুলিশ সুপার নুরে আলম জানান, ট্রান্সফরমার চুরি একটা জঘন্য অপরাধ এর সাথে যারাই যুক্ত তাদের গ্রেপ্তার করা হবে।

তিনি বলেন, কৃষকদের কথা চিন্তা করেই পুলিশ ট্রান্সফরমার চোরদের ধরার বিষয়ে অধিক গুরুত্ব দেওয়া হয়েছে।

তিনি বলেন, পল্লী বিদ্যুতের জেনারেল ম্যানেজারকে সিজন শেষে বিনা খরচে ট্রান্সফরমার খুলে রাখা এবং ইরিগেশনের শুরুতে আবার লাগিয়ে দেওয়ার কথা বলা হয়েছে। তিনি বলেন, এ পর্যন্ত বিভিন্ন থানায় ৫টি মামলা ও ২৮ জনকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে।

তিনি আরও বলেন, এই চোর চক্রের সাথে পল্লী বিদ্যুৎ এর ঠিকাদারদের জড়িত থাকার প্রমাণ পাওয়া গেছে তাদের ও গ্রেপ্তার করা হবে।

 

  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
পদ্মাটাইমস ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন
topউপরে