কে হচ্ছেন পাকিস্তানের পরবর্তী প্রধানমন্ত্রী

প্রকাশিত: ফেব্রুয়ারি ৩, ২০২৪; সময়: ৯:১৯ অপরাহ্ণ |
কে হচ্ছেন পাকিস্তানের পরবর্তী প্রধানমন্ত্রী

পদ্মাটাইমস ডেস্ক: আগামী ৮ ফেব্রুয়ারি পাকিস্তানে সাধারণ নির্বাচন অনুষ্ঠিত হতে যাচ্ছে। এরই মধ্যে দেশটিতে কে প্রধানমন্ত্রী হতে যাচ্ছেন তার পূর্বাভাস পাওয়া যাচ্ছে। একইসঙ্গে বিভিন্ন সংবাদমাধ্যম ও জরিপে দেশটিতে সম্ভাব্য প্রধানমন্ত্রীর কথা উল্লেখ করা হয়েছে।

বিবিসি নিউজ রিপোর্টে বলা হয়েছে, পাকিস্তানের তিনবারের সাবেক প্রধানমন্ত্রী নওয়াজ শরীফ গত বছর স্বেচ্ছা নির্বাসন শেষে দেশে ফিরেছেন। তিনিই আগামী ৮ ফেব্রুয়ারির নির্বাচনে জয়ী হতে যাচ্ছেন।

এর আগে গ্যালাপের জরিপ ও ব্লুমবার্গ জানিয়েছে, নওয়াজ শরীফই আবার পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী হতে যাচ্ছেন। শেষবার যখন নওয়াজ শরীফ দেশটির প্রধানমন্ত্রী ছিলেন তখন তিনি দুর্নীতির দায়ে অভিযুক্ত হন। এর আগে তাকে ক্ষমতা থেকে হটানো হয়। এতোকিছুর পরেও নওয়াজ শরীফ আবার পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী হতে যাচ্ছেন।

যুক্তরাষ্ট্রভিত্তিক উইলসন সেন্টারের দক্ষিণ এশিয়া ইনস্টিটিউটের পরিচালক মাইকেল কুগেলম্যান বলেছেন, শুধু জনপ্রিয়তার কারণে নওয়াজ শরীফ পাকিস্তানের পরবর্তী নির্বাচনের শীর্ষ প্রার্থী হিসেবে আবির্ভূত হননি। এর অন্যতম কারণ হচ্ছে তিনি পর্দার আড়ালে সঠিক কার্ডটি খেলেছেন।

বর্তমানে নওয়াজ শরীফের অন্যতম প্রতিদ্বন্দ্বী দেশটির সাবেক প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান জেলে রয়েছেন। গত কয়েকদিন ধরেই তার বিভিন্ন মেয়াদে কারাদণ্ডের রায় হলো।

প্রধানমন্ত্রী থাকাকালীন ১৯৯৯ সালে নওয়াজ শরীফকে যখন হটানো হয়, এরপর ২০১৩ সালের সংসদ নির্বাচনে ভালোভাবেই ফিরে আসেন নওয়াজ শরীফ। তিনি তৃতীয়বারের মতো প্রধানমন্ত্রী হিসেবে ক্ষমতায় বসেন।

তবে দুর্নীতির দায়ে ২০১৭ সালের জুলাইতে নওয়াজ শরীফকে অযোগ্য ঘোষণা করেন দেশটির সুপ্রিম কোর্ট। এর কয়েকদিন পরেই পদত্যাগ করেন তিনি।

২০১৮ সালের জুলাইতে দুর্নীতির দায়ে অভিযুক্ত হন নওয়াজ শরীফ। তাকে ১০ বছরের কারাদণ্ড দেওয়া হয়। তবে এর দুইমাসের মধ্যে দেশটির আদালত এই সাজা বাতিল করে এবং চূড়ান্ত সাজা স্থগিত রাখে।

পরবর্তী সময়ে ২০১৮ সালের ডিসেম্বরে নওয়াজ শরীফের দুর্নীতির দায়ে জেল হয়। এবার তার সাত বছরের সাজা দেওয়া হয়। এরপর যুক্তরাজ্যে চিকিতসার কথা বলে জামিনের জন্য লড়েন নওয়াজ শরীফ।

২০১৯ সালেই তিনি জামিন পান এবং লন্ডনে যান। সেখানেই তিনি গত চার বছর ধরে এক বিলাসবহুল ফ্ল্যাটে স্বেচ্ছা নির্বাসনে থাকেন এবং গত অক্টোবরে পাকিস্তানে ফিরেন।

এতকিছুর পরেও গত ৩৫ বছর ধরে নওয়াজ শরীফ পাকিস্তানের রাজনীতে শীর্ষ পর্যায়ের নেতা হিসেবে নিজের অবস্থান ধরে রেখেছেন। তবে নওয়াজ শরীফের এতকিছুর নেপথ্যে তার দেশটির শক্তিশালী সেনাবাহিনীর সঙ্গে সম্পর্কের উত্থান পতন প্রধান কারণ বলে ধারণা পর্যবেক্ষকদের।

সেনাবাহিনীর সঙ্গে যোগসাজশের ফলেই নওয়াজ শরীফের দেশে ফেরা ও আবার প্রধানমন্ত্রী হতে যাচ্ছেন বলে মতামত বিশ্লেষকদের।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
পদ্মাটাইমস ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন
topউপরে