ঢাকায় বসে ওটিটি প্ল্যাটফর্মে প্রতারণা, গ্রেপ্তার ৪

প্রকাশিত: ফেব্রুয়ারি ৬, ২০২৪; সময়: ১২:০১ অপরাহ্ণ |
খবর > জাতীয়
ঢাকায় বসে ওটিটি প্ল্যাটফর্মে প্রতারণা, গ্রেপ্তার ৪

পদ্মাটাইমস ডেস্ক: রাজধানীতে অভিযান চালিয়ে ওটিটি প্ল্যাটফর্মে সম্প্রচারিত এক্সক্লুসিভ ওয়েব কনটেন্ট পাইরেসির মাধ্যমে স্ট্রিমিং করা চক্রের ৪ সদস্যকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। অবৈধ এ প্রক্রিয়ায় তারা কোটি টাকার বেশি হাতিয়ে নিয়েছেন বলে স্বীকার করেছেন।

সোমবার (৫ ফেব্রুয়ারি) আদাবর এবং মতিঝিল থানা এলাকা থেকে তাদের গ্রেপ্তার করে ঢাকা মহানগর পুলিশের (ডিএমপি) কাউন্টার টেররিজম অ্যান্ড ট্রান্সন্যাশনাল ক্রাইম (সিটিটিসি) ইউনিটের সাইবার ক্রাইম ইনভেস্টিগেশন বিভাগের ই-ফ্রড ইনভেস্টিগেশন টিম। এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়।

গ্রেপ্তারকৃতরা হলেন- সাদমান সাকিব, মো. এজাজ আহমেদ, মো. রাবিব হোসেন এবং রাহাত খান।

তাদের কাছ থেকে প্রতারণার কাজে ব্যবহৃত ৬টি হার্ড ডিস্ক, ৪টি মোবাইল ফোন, ১০টি সিম কার্ড উদ্ধার করা হয়েছে। সেইসঙ্গে তাদের ডোমেইন প্ল্যাটফর্ম সিজ করা হয়েছে। তাদের আদালতে সোপর্দ করা হয়েছে। এ বিষয়ে সহযোগী ও পলাতকদের গ্রেফতারে অভিযান অব্যাহত আছে এবং তাদের অবৈধ ওটিটি ‘ওয়ানফ্লিক্স’- এর সার্ভার বিশেষ প্রক্রিয়ায় ডাউন করে দেয়া হয়েছে।

অভিযুক্তরা গত ৬ মাসে এ কাজে কোটির অধিক টাকা হাতিয়ে নেয়ার ব্যাপারে প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে স্বীকার করেছেন বলে জানিয়েছে পুলিশ।

সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়েছে, মোহাম্মদপুর থানায় গত ১৭ জানুয়ারি সাইবার নিরাপত্তা আইনে করা এক মামলার তদন্ত করতে গিয়ে সিটিটিসির সাইবার ক্রাইম ইনভেস্টিগেশন বিভাগের ই-ফ্রড ইনভেস্টিগেশন টিম বেশ কয়েক দিন ধরে বিশেষ প্রযুক্তি ব্যবহার করে ও গোয়েন্দা তৎপরতার মাধ্যমে অভিযুক্তদের গ্রেফতার করে। তাদের কাছ থেকে অপরাধকাজে ব্যবহৃত আলামত উদ্ধার করা হয়েছে।

চক্রটি দীর্ঘদিন ধরে তাদের বানানো প্ল্যাটফর্মে ‘হইচই টেকনোলজিস বাংলাদেশ লিমিটেড’ ‘নেটফ্লিক্স’ ‘আমাজন প্রাইম ভিডিও’ এবং ‘ডিজনি হটস্টারসহ বাংলাদেশে নিবন্ধিত বৈধ ব্যবসায়িক প্রতিষ্ঠানে সম্প্রচারিত এক্সক্লুসিভ ওয়েব কনটেন্ট পাইরেসির মাধ্যমে স্ট্রিমিং করে আসছিল। এতে তারা সরকারের বিপুল রাজস্ব ফাঁকি দিয়ে অবৈধ উপায়ে অর্থ হাতিয়ে নিচ্ছিলেন ও উল্লেখিত স্ট্রিমিং প্ল্যাটফর্মগুলোর আর্থিক ক্ষতি সাধন করে আসছিলেন।

এতে আরও বলা হয়, সামাজিক প্ল্যাটফর্মে সম্প্রচারিত এক্সক্লুসিভ ওয়েব কনটেন্ট পাইরেসির মাধ্যমে স্ট্রিমিং করে সরকারের বিপুল রাজস্ব ফাঁকি দিয়ে অবৈধ উপায়ে অর্থ হাতিয়ে নেয়া চক্রের বিভিন্ন সদস্যদের শনাক্ত ও তাদের বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ প্রক্রিয়া চলমান থাকবে।

এ বিষয়ে ডিএমপির সিটিটিসির সাইবার ইউনিটের এসপি নাজমুল ইসলাম বলেন, এটা একটি ডিজিটাল স্ক্যাম এবং অবৈধ স্ট্রিমিং ব্যবসা, যার কোনো নৈতিক ও আইনগত ভিত্তি নেই। ওয়ানফ্লিক্সসহ অন্যান্য সব অবৈধ স্ট্রিমিং ডোমেইনের বিরুদ্ধে আমাদের সাইবার ইউনিটের আইনগত অভিযান অব্যাহত থাকবে।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
পদ্মাটাইমস ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন
topউপরে