চুল পড়া বন্ধ হচ্ছে না? এই খাবারগুলো খান

প্রকাশিত: ফেব্রুয়ারি ২০, ২০২৪; সময়: ১:৫২ অপরাহ্ণ |
চুল পড়া বন্ধ হচ্ছে না? এই খাবারগুলো খান

পদ্মাটাইমস ডেস্ক : চুল পড়া অস্বাভাবিক নয়। কিন্তু চুল যদি পড়তেই থাকে আর নতুন চুল না গজায়, তখন তা দুশ্চিন্তার বিষয় হয়ে দাঁড়ায়। আপনার যদি কেবল চিরুণি ভরে ভরে চুল উঠে আসতে থাকে তাহলে এখন সময় হয়েছে খাবারের তালিকার দিকে নজর দেওয়ার।

কারণ আমাদের প্রতিদিনের খাওয়া খাবার চুল পড়ার পরিমাণ বাড়িয়ে দিতে পারে আবার চুল গজানোর পরিমাণও বাড়িয়ে দিতে পারে। তাই আগে জেনে নিতে হবে কোন খাবার চুলের জন্য ভালো আর কোনটি নয়। চুল পড়া থামাতে হলে আপনাকে খেতে হবে উপকারী কিছু খাবার। চলুন, জেনে নেওয়া যাক-

১. ডিম

ডিম হচ্ছে প্রোটিনের সবচেয়ে সহজলভ্য উৎসগুলোর একটি। প্রোটিন হলো এমন একটি পুষ্টি উপাদান যা আমাদের শরীরের অনেক ক্ষতি রোধে কাজ করে। বেশিরভাগ সময় প্রোটিনের অভাব হলে চুল পড়ার পরিমাণ বাড়ে। তাই প্রোটিনযুক্ত খাবার খেতে হবে নিয়মিত।

এক্ষেত্রে ডিম আপনাকে সহায়তা করবে। নিয়মিত ডিম খেলে তা চুলকে স্বাস্থ্যকর এবং ঘন করতে সাহায্য করবে। সেইসঙ্গে এতে থাকা বায়োটিন চুলের জন্য কেরাটিন প্রোটিন তৈরিতে সাহায্য করবে। সুস্থ চুলের জন্য কেরাটিন খুবই গুরুত্বপূর্ণ।

২. ভিটামিন ই

চুল ভালো রাখার জন্য ভিটামিন ই একটি গুরুত্বপূর্ণ উপাদান। এটি মাথার ত্বকও ভালো রাখে। তাই প্রতিদিন ভিটামিন ই যুক্ত খাবার খেতে হবে। এক্ষেত্রে একটি সহায়ক খাবার হতে পারে কাঠবাদাম। এই বাদামে পাওয়া যায় পর্যাপ্ত ভিটামিন ই। সেইসঙ্গে এতে আরও থাকে স্বাস্থ্যকর ফ্যাট এবং জিঙ্ক। এগুলো চুলের জন্য বেশ কার্যকরী। বুঝতেই পারছেন, কেন প্রতিদিন একমুঠো কাঠবাদাম খেতে হবে?

৩. মিষ্টি আলু

মিষ্টি আলুর রয়েছে অনেক উপকারিতা। এতে থাকা বিটা ক্যারোটিনকে আমাদের শরীর ভিটামিন এ-তে রূপান্তরিত করে। এটি মাথার ত্বকে থাকা গ্রন্থিগুলো থেকে সিবাম উৎপাদন করতে সাহায্য করে।

যে কারণে চুল শুষ্ক ও ভঙ্গুর হয়ে যায় না। সেইসঙ্গে চুল থাকে সতেজ। এটি চুলের বৃদ্ধিতেও ভূমিকা রাখে। স্বাস্থ্যকর ডায়েটের অংশ হিসেবে মিষ্টি আলু রাখুন আপনার পাতে।

৪. পালং শাক

উপকারী শাকের তালিকায় সবার উপরেই রয়েছে পালংশাকের নাম। এতে থাকে আয়রন, ভিটামিন এ এবং ফোলেটের মতো উপকারী ও প্রয়োজনীয় উপাদান। এগুলো চুল ভালো রাখতে বেশ কার্যকরী। এই পুষ্টিগুলোর অভাবে চুল পড়ার পরিমাণ বাড়তে পারে। তাই নিয়মিত পালং শাক খেতে হবে।

এতে চুল ভালো থাকবে এবং কমবে চুল পড়ার পরিমাণ। সেইসঙ্গে অন্যান্য মৌসুমি শাক-সবজি, তাজা ফল ইত্যাদি খেতে হবে পর্যাপ্ত। প্রয়োজনীয় পানি পান করবেন নিয়ম মেনে। এতে চুল পড়ার সমস্যা কমে আসবে অনেকটাই।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
পদ্মাটাইমস ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন
topউপরে