সুজানগরে এসএসসি পরীক্ষা কেন্দ্রে মোবাইল ফোন পাওয়ায় ১৪ শিক্ষককে অব্যাহতি

প্রকাশিত: ফেব্রুয়ারি ২২, ২০২৪; সময়: ৫:৩৩ অপরাহ্ণ |
সুজানগরে এসএসসি পরীক্ষা কেন্দ্রে মোবাইল ফোন পাওয়ায় ১৪ শিক্ষককে অব্যাহতি

এম এ আলিম রিপন, সুজানগর : পাবনার সুজানগরে চলমান এস এস সি পরীক্ষা চলাকালে দুটি পরীক্ষা কেন্দ্রে সঙ্গে মোবাইল পাওয়ায় ১৪ শিক্ষককে চলমান পরীক্ষা চলাকালীন সময়ে তাদের দায়িত্ব হতে অব্যাহতি দেয়া হয়েছে।

সুজানগর এ কেন্দ্র,কেন্দ্র কোড-৩৩০ সুজানগর সরকারি পাইলট মডেল উচ্চ বিদ্যালয় এবং সুজানগর ডি কেন্দ্র,কেন্দ্র কোড-৩৩৩ শহীদ দুলাল পাইলট বালিকা উচ্চ বিদ্যালয় পরীক্ষা কেন্দ্রে গত মঙ্গলবার ইংরেজী প্রথম পত্র পরীক্ষা চলাকালীন পরিদর্শনে গিয়ে বোর্ডের ভিজিলেন্স টিম কর্তৃক ১৪ কক্ষ পরিদর্শকের মধ্য ১২ জনের কাছে স্মার্ট মোবাইল ফোন এবং অপর ২ জন শিক্ষকের কাছে নরমাল বাটন ফোন পাওয়ায় কেন্দ্র সচিবদের মাধ্যমে অভিযুক্ত ওই শিক্ষকদের দায়িত্ব থেকে অব্যাহতি দেওয়া হয়।

অব্যাহতি পাওয়া শিক্ষকরা হলেন সুজানগর সরকারি পাইলট মডেল উচ্চ বিদ্যালয় পরীক্ষা কেন্দ্রে দায়িত্ব পালন করা উপজেলার উদয়পুর উচ্চ বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষক আলাউদ্দিন, মালিফা হাবিবুর রহমান বহুমূখী উচ্চ বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষক খাদিজা আক্তার, তাঁতীবন্দ উচ্চ বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষক মামুনর রশিদ, পোড়াডাঙ্গা হাজী এজেম উদ্দিন উচ্চ বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষক ফারজানা ইয়াসমিন, সাবিনা খাতুন, হাবিবুর রহমান ও হাজী অজেল আলী উচ্চ বিদ্যালয়ের শিক্ষক আব্দুল জলিল, উদয়পুর উচ্চ বিদ্যালয়র সহকারী শিক্ষক মিজানুর রহমান ও সাবিনা ইয়াসমিন, রাইপুর বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষক মালেকা পারভিন, সাদুল্লাপুর উচ্চ বিদ্যািলয়ের সহকারী শিক্ষক সাইফুদ্দিন, কামালপুর উচ্চ বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষক গণেশ চন্দ্র সরকার এবং শহীদ দুলাল পাইলট বালিকা উচ্চ বিদ্যালয় পরীক্ষা কেন্দ্রে দায়িত্ব পালন করা মথুরাপুর উচ্চ বিদ্যালয়ের শিক্ষক আবু বকর ও গোপালপুর উচ্চ বিদ্যালয়ের শিক্ষক রুহুল আমিন।

এর মধ্য সুজানগর এ কেন্দ্র,কেন্দ্র কোড-৩৩০ সুজানগর সরকারি পাইলট মডেল উচ্চ বিদ্যালয় কেন্দ্রে দায়িত্ব পালনকালে ১২ জন শিক্ষককের কাছ থেকে স্মার্ট ফোন এবং সুজানগর ডি কেন্দ্র,কেন্দ্র কোড-৩৩৩ শহীদ দুলাল পাইলট বালিকা উচ্চ বিদ্যালয় পরীক্ষা কেন্দ্রের ২ শিক্ষককের নিকট থেকে নরমাল বাটন ফোন উদ্ধার করে বোর্ডের ভিজিলেন্স টিম।

বিষয়টির সত্যতা নিশ্চিত করে উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা অফিসার সোলায়মান হোসেন বলেন, বোর্ডের ভিজিলেন্স টিম পরীক্ষা কেন্দ্র পরিদর্শনের সময় এ ঘটনা ঘটে। বিষয়টির সতত্যা নিশ্চিত করে উপজেলা নির্বাহী অফিসার সুখময় সরকার বৃহস্পতিবার বলেন, সরকারি নির্দেশনা অনুযায়ী স্মার্ট ফোন অথবা নরমাল বাটন ফোন যেটাই হোক কোন ফোনই পরীক্ষা কেন্দ্রে নিয়ে যেতে পরবেন না কক্ষ পরিদর্শকগণ।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
পদ্মাটাইমস ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন
topউপরে