দেশে ফিরেও দেখা হলো না মায়ের মরদেহ, সড়ক দুর্ঘটনায় নিহত

প্রকাশিত: ফেব্রুয়ারি ২২, ২০২৪; সময়: ৬:৪৭ অপরাহ্ণ |
দেশে ফিরেও দেখা হলো না মায়ের মরদেহ, সড়ক দুর্ঘটনায় নিহত

পদ্মাটাইমস ডেস্ক : শেষবারের মতো মায়ের মরদেহ দেখার জন্য ইতালি থেকে দেশে ফেরেন শাহ আলম। কিন্তু শেষ দেখা হলো না। পথে সড়ক দুর্ঘটনায় নিহত হন তিনি। বৃহস্পতিবার বেলা সাড়ে ১১টার দিকে ঢাকা-সিলেট মহাসড়কের নরসিংদীর শিবপুর উপজেলার ঘাসিরদিয়া এলাকায় এক সড়ক দুর্ঘটনায় শাহ আলমসহ আরও দুইজন নিহত হন।

নিহতরা হলেন- ব্রাহ্মণবাড়িয়া সদর উপজেলার নাটাই এলাকার বাসিন্দা শাহজাহান মেম্বারের ছেলে ইতালিপ্রবাসী শাহ আলম (৫০) এবং তার ভগ্নিপতি একই উপজেলার শামসু উদ্দিনের ছেলে সেলিম মিয়া (৪০)।

হাইওয়ে পুলিশ ও নিহতের পরিবারের সদস্যরা জানান, দীর্ঘ ১৪ বছর ধরে স্ত্রী-সন্তান নিয়ে ইতালিতে বসবাস করছিলেন ব্রাহ্মণবাড়িয়ার শাহ আলম। বুধবার সন্ধ্যায় বার্ধক্যজনিত কারণে তার মায়ের মৃত্যু হয়। খবর পেয়ে বৃহস্পতিবার দেশে ফিরে জানাজায় অংশ নিতে বিমানবন্দর থেকে মাইক্রোবাসযোগে বাড়ির উদ্দেশ্যে রওনা দেন শাহ আলম, তার ভগ্নিপতি সেলিম মিয়া ও ভাগিনাসহ চারজন।

তাদের বহনকারী মাইক্রোবাসটি ঢাকা-সিলেট মহাসড়কের শিবপুর উপজেলার ঘাসিদিয়া এলাকায় পৌঁছালে বিপরীত দিক থেকে আসা পাথর বোঝাই ট্রাকের সঙ্গে মুখোমুখি সংঘর্ষ হয়। এতে মাইক্রোবাসটি দুমড়ে মুচড়ে গিয়ে ঘটনাস্থলেই শাহ আলম এবং হাসপাতালে নেয়ার পর তার ভগ্নিপতি সেলিম মিয়া মারা যান। এ ঘটনায় মাইক্রোবাসের চালকসহ আরও দুইজন আহত হয়েছেন।

ইটাখোলা হাইওয়ে থানার উপ-পুলিশ পরিদর্শক আরিফুর রহমান জানান, মাইক্রোবাসের চালক এবং অপর যাত্রী নরসিংদী জেলা হাসপাতালে চিকিৎসাধীন আছেন।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
পদ্মাটাইমস ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন
topউপরে