কফির সঙ্গে ঘি মিশিয়ে খেলে কী হয়?

প্রকাশিত: ফেব্রুয়ারি ২৮, ২০২৪; সময়: ১২:৫৩ অপরাহ্ণ |
কফির সঙ্গে ঘি মিশিয়ে খেলে কী হয়?

পদ্মাটাইমস ডেস্ক : কফি খেতে পছন্দ করেন নিশ্চয়ই? কিন্তু সেই কফির সঙ্গে কি কখনো ঘি মিশিয়ে খেয়েছেন? ভাবছেন, এ আবার কেমন কথা, কফির সঙ্গে ঘি মিশিয়ে কে খায়! স্বাদের কথা হয়তো ভাবছেন যে খেতে উদ্ভট হতে পারে। আসলে কিন্তু তা নয়।

বরং স্বাদ তো বাড়বেই, সেইসঙ্গে বাড়বে স্বাস্থ্য উপকারিতা, যদি আপনি কফির সঙ্গে ঘি মিশিয়ে খান। এটি এখনও তেমন প্রচলিত নয় বলে আপনার খেতে ইচ্ছা না হওয়াটাই স্বাভাবিক।

তবে বিশেষজ্ঞরা বলছেন, কফির সঙ্গে ঘি মিশিয়ে খেতে পারলে তা আপনাকে নানা স্বাস্থ্য সুবিধা দেবে। চলুন, জেনে নেওয়া যাক কফির সঙ্গে ঘি মিশিয়ে খেলে কী হয়-

১. রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়ায়

শরীর সুস্থ রাখার জন্য রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়ানো কতটা জরুরি তা জানা আছে নিশ্চয়ই? আপনি যদি কফির সঙ্গে কফি মিশিয়ে খান তাহলে তা আপনার রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়াতে দারুণভাবে কাজ করবে।

ঘিয়ে থাকে ভিটামিন এ এবং ই এর মতো অত্যাবশ্যক ভিটামিন এবং খনিজ, যা আপনাকে সুস্থ রাখতে কাজ করবে। সব ধরনের অসুখ ও সংক্রমণের বিরুদ্ধে লড়াই করার জন্য শরীরকে শক্তি দিতে এই পানীয় আপনাকে সাহায্য করবে।

২. হজমে সহায়তা করে

ঘিয়ে থাকা বুট্রিক অ্যাসিড স্বাস্থ্যকর অন্ত্রের ব্যাকটেরিয়া বৃদ্ধি করে, পেট ফাঁপা এবং বদহজমের মতো হজমের অস্বস্তি কমায়। আপনার সকালের কফির কাপে ঘি মিশিয়ে পেটের সমস্যাগুলোকে বিদায় জানান।

৩. মস্তিষ্কের কার্যকারিতা উন্নত করে

ঘিয়ে থাকা স্যাচুরেটেড ফ্যাট মস্তিষ্কের স্বাস্থ্যের জন্য সহায়ক। স্মৃতিশক্তি এবং মনোযোগ বাড়াতে কাজ করে এটি। মস্তিষ্কের কার্যকারিতা উন্নত করার জন্য আপনার কফিতে ঘি মিশিয়ে খান। এতে আপনার মানসিক স্বচ্ছতা বাড়বে বহুগুণ।

৪. শক্তির মাত্রা বাড়ায়

দ্রুত শক্তি বৃদ্ধির জন্য ঘিয়ে মিডিয়াম-চেইন ট্রাইগ্লিসারাইডের (MCTs) শক্তি ব্যবহার করুন। আপনার এনার্জি লেভেল বাড়াতে এবং দিনটিকে সুন্দর করতে ঘি-মিশ্রিত কফি দিয়ে আপনার সকালটা শুরু করুন।

৫. ওজন নিয়ন্ত্রণ করে

ঘিয়ের স্বাস্থ্যকর চর্বি ক্ষুধা নিবারণ করে, ক্যালোরি গ্রহণ কমিয়ে ওজন নিয়ন্ত্রণে সাহায্য করে। আপনার ওজন কমানোর যাত্রাকে সহজ করার জন্য ঘি মিশ্রিত কফি দিয়ে দিনটি শুরু করুন। এতে ওজন নিয়ন্ত্রণে রাখা সহজ হবে। ফলে ডায়াবেটিস, উচ্চরক্তচাপ সহ অনেক সমস্যাই দূরে থাকবে। আপনার সুস্থ থাকা সহজ হবে।

৬. কার্ডিওভাসকুলার স্বাস্থ্য ভালো রাখে

ঘিয়ে হার্ট-ফ্রেন্ডলি ফ্যাট থাকে যা প্রদাহের বিরুদ্ধে লড়াই করে এবং কোলেস্টেরলের মাত্রা কমিয়ে দেয়। যার ফলে কার্ডিওভাসকুলার সুস্থতা বৃদ্ধি পায়। আপনার সকালের কফির সঙ্গে ঘি যোগ করে পান করুন, এতে হার্ট ভালো থাকবে সহজেই।

৭. সুস্থ ত্বক

উজ্জ্বল, তারুণ্যময় ত্বকের জন্য ঘিয়ের অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট-সমৃদ্ধ বৈশিষ্ট্যগুলো উপভোগ করুন। আপনার ত্বকের ভেতর থেকে পুষ্টি জোগাতে ঘি-মিশ্রিত কফিতে চুমুক দিন এবং চেহারা থেকে বার্ধক্যের লক্ষণগুলো মুছে ফেলুন!

৮. প্রদাহ কমায়

আর্থ্রাইটিস এবং জয়েন্টে ব্যথার মতো অস্বস্তি দূর করতে ঘিয়ের প্রদাহ-বিরোধী শক্তি ব্যবহার করুন। আপনার কফির সঙ্গে ঘি যোগ করে প্রদাহ দূর করুন। কারণ বিশেষজ্ঞরা বলছেন, কফির সঙ্গে ঘি মিশিয়ে খেলে তা প্রদাহ কমাতে কাজ করে।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
পদ্মাটাইমস ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন
topউপরে