প্রধানমন্ত্রীর হস্তক্ষেপে জমি ফিরে পেয়েছি: মেজর আখতার

প্রকাশিত: মার্চ ২০, ২০২৪; সময়: ১১:১৩ পূর্বাহ্ণ |
প্রধানমন্ত্রীর হস্তক্ষেপে জমি ফিরে পেয়েছি: মেজর আখতার

নিজস্ব প্রতিবেদক, নাটোর : কিশোরগঞ্জ-২ আসনের সাবেক সংসদ সদস্য মেজর (অব.) মো. আখতারুজ্জামান বলেছেন, নাটোরের তিনি তার ২শ বিঘা জমি থেকে উচ্ছেদ হয়ে গিয়েছিলেন। সেই জমি থেকে ৩০ বছর বয়সী ২৯২টি গাছ কেটে নেওয়া হয়েছে। ওই জমিতে পুলিশ নিয়ে যেতে পারিনি। নিজের লোকজনকেও নিয়ে যেতে পারিনি। তখন আমি কিছু বললেই জামায়াত-বিএনপি, যুদ্ধাপরাধী হয়ে যেতাম।

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সহযোগীতায় তিনি তার দখল হয়ে যাওয়া তিনি ফিরে পেয়েছেন। সাবেক এই সেনা কর্মকর্তা অভিযোগের শুরে বলেন, প্রধানমন্ত্রী ছাড়া কেউ কাজ করেনা।সবাই শুধু খায়। তার কারনেই আমি আমার জমি ফিরে পেয়েছি।

মঙ্গলবার সন্ধ্যায় নাটোরের এক রেস্তোরায় আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে সাবেক এই সংসদ সদস্য মেজর (অবঃ) মোঃ আকতারুজ্জামান এসব কথা বলেন। বিএনপি থেকে বহিস্কৃত আলোচিত এই রাজনীতিক ও নাটোরের নলডাঙ্গা উপজেলার হালতিবিল এলাকার হালতিয়া ফার্মস’র ব্যবস্থাপনা পরিচালক মেজর (অব:) আকতারুজ্জামান সংবাদ সম্মেলনে দেশের খ্যাত নামা শিল্প প্রতিষ্ঠান প্রাণ কোম্পানীর বিরুদ্ধে জোড়পুর্বক জমি দখল ও ২৯২টি গাছ কেটে নেয়া সহ ৫টি বিষয়ের ওপর গুরুতর অভিযোগ এনেছেন। একই সঙ্গে উচ্চ পর্যায়ে তদন্তের দাবী জানান তিনি। সংবাদ সম্মেলনে প্রাণ কোম্পানিতে চাকরিচ্যুত ভুক্তভোগীদের কয়েকজন উপস্থিত ছিলেন।

সংবাদ সম্মেলনে মেজর (অব:) আকতারুজ্জামান অভিযোগ করে বলেন, তিনি প্রাণ কোম্পানীর কাছে ৫০ বিঘা জমি বিক্রির পর ২শ’ বিঘা জমি থেকে উচ্ছেদ হয়ে যান। প্রাণ কোম্পানী আমার জমি দখল করে নিয়েছিল। পরে আমি সরকারের উচ্চস্তরের সহযোগিতায় আমার জমি ফিরে পেয়েছি। কিন্তু আমার ২৯২টি কাটা গাছ আমি ফেরত পাইনি। তবে এ ঘটনায় মামলা রুজু করা হলেও কোন সুবিচার পাওয়া যায়নি।

পিবিআই ও নলডাঙ্গা থানা পুলিশ গাছ কাটার বিষয়ে সঠিক তদন্ত রির্পোট দেননি। তাই আবারও আমাকে নারাজি দিতে হলো আদালতে। অথচ গাছ কাটার প্রমাণ তার কাছে রয়েছে। দেশের প্রথম সারির জাতীয় শিল্প কারখানার কাছে আমরা তো এমন প্রত্যাশা করতে পারি না। আমাদের গলা চেপে ধরেছে অভাব। কোটিপতি তাদেরও অভাব ছাড়ছে না। অভাব আমাদের দুর হচ্ছে না। ফলে অভাবের কাছে আমাদের গলা আটকে আছে। কেউ কথা বলতে সাহস পায় না।

নাটোরের পুলিশ সুপার তারিকুল ইসলাম পিপিএম সাংবাদিকদের জানান, গাছ কাটার তদন্ত প্রতিবেদন সংক্রান্ত বিষয়টি তিনি প্রথম জানলেন। এ বিষয়ে যাচাই-বাছাই করে ঘটনার সত্যতা উদঘাটন করা হবে। কেউ যাতে ন্যয় বিচার থেকে বঞ্চিত না হয়, সেবিষয়টি নিশ্চিত করা হবে।

প্রাণ কোম্পানীর নাটোর কারখানার জেনারেল ম্যানেজার (জিএম) মোঃ হজরত আলী বলেন, এ বিষয়ে তার বলার কিছু নেই। যা বলার উর্ধতন কর্তৃপক্ষই বলবেন।

প্রাণ কোম্পানীর এজিএম (জনসংযোগ বিভাগ) তৌহিদুজ্জামান বলেন, উর্ধতন কর্তৃপক্ষের সাথে আলোচনা করে এবিষয়ে আজ বুধবার প্রাণ কোম্পানীর পক্ষ থেকে বিবৃতি দেয়া হবে।

 

  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
পদ্মাটাইমস ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন
topউপরে