অ্যাপলের বিরুদ্ধে মামলা যুক্তরাষ্ট্রের

প্রকাশিত: মার্চ ২২, ২০২৪; সময়: ১১:০১ পূর্বাহ্ণ |
অ্যাপলের বিরুদ্ধে মামলা যুক্তরাষ্ট্রের

পদ্মাটাইমস ডেস্ক : বৈশ্বিক টেক জায়ান্ট অ্যাপলের বিরুদ্ধে মামলা করেছে যুক্তরাষ্ট্রের সরকার। মামলার অভিযোগে বলা হয়েছে, কূটকৌশল এবং ক্ষমতার অপব্যবহারের মাধ্যমে স্মার্টফোনের বাজারে একচেটিয়া আধিপত্য বিস্তার ও বাজার নিয়ন্ত্রণের চেষ্টা চালাচ্ছে অ্যাপল।

এই প্রচেষ্টার অংশ হিসেবে কোম্পানিটি তার সবচেয়ে জনপ্রিয় পণ্য আইফোনের অ্যাপস্টোরের অপব্যবহার করছে বলেও উল্লেখ করা হয়েছে অভিযোগপত্রে।

বৃহস্পতিবার যুক্তরাষ্ট্রের নিউ জার্সি অঙ্গরাজ্যের ফেডারেল আদালতে মামলাটি দায়ের করেছে দেশটির বিচার বিভাগ। মামলা চালিয়ে নিতে ১৬ সদস্যের যে আইনজীবী দলটি গঠন করেছে সরকার, সেই দলের প্রত্যেকেই এক একটি অঙ্গরাজ্যের সর্বোচ্চ আইন কর্মকর্তা (অ্যাটর্নি জেনারেল)।

বৃহস্পতিবার আদালতে ৮৮ পৃষ্ঠার অভিযোগটিও জমা দেওয়া হয়েছে। সেখানে বলা হয়েছে, নিজেদের ব্যবসা পরিচালনা সংক্রান্ত সার্বিক অপারেশনের অন্তত ৫টি ক্ষেত্রে অনিয়ম ও ক্ষমতার অপব্যবহার করেছে কোম্পানিটি।

আরও বলা হয়েছে, বাজার নিয়ন্ত্রনের মাধ্যমে কৃত্রিমভাবে নিজের পণ্যের দাম বাড়ানো এবং নিজেদের পণ্যের হার্ডওয়্যার ও সফটওয়্যারে অন্যদের প্রবেশ ঠেকাতে অ্যাপল যেসব পদ্ধতি অবলম্বন করেছে, সেগুলো আইনসিদ্ধ নয়।

বৃহস্পতিবার নিউ জার্সির ফেডারেল আদালতে অভিযোগ জমা দেওয়ার পর সংবাদ সম্মেলন করেছে মার্কিন সরকারের আইনজীবী দলটি।

দলের অন্যতম সদস্য অ্যাটর্নি জেনারেল মেরিক গারল্যান্ড সংবাগদ সম্মেলনে বলেন, ‘স্মার্ট ফোনের বাজারে প্রতিযোগিতা থেকে দূরে থেকে সর্বোচ্চ মুনাফা নিশ্চিতের জন্য নিজেদের একচেটিয়া প্রভাবের অপব্যবহার করছে অ্যাপল,যা যুক্তরাষ্ট্রে প্রচলিত আইনে অপরাধ। ক্রেতাদের এমন কোনো কোম্পানির পণ্য চড়া মূ্ল্য দিয়ে কেনা উচিত নয়, যেটি আইনের কোনো পরোয়া করে না।’

সংবাদ সম্মেলনে মেরিক গারল্যান্ড বলেন, ‘অ্যাপল কখনও চায় না যে তাদের আইফোনের অ্যাপস্টোরে যেসব অ্যাপ রয়েছে, সেসবের চেয়ে উন্নত কোনো অ্যাপ বাজারে আসুক। নতুন প্রতিযোগী অ্যাপের আগমন ঠেকাতে অ্যাপল নিয়মিত তার ‘অ্যাপ রিভিউ’ প্রক্রিয়ার অপব্যবহার করছে।’

গারল্যান্ড আরও বলেন, স্মার্টওয়াচের বাজার নিজেদের দখলে রাখতে আইফোনে এমন সফটওয়্যার ব্যবহার করছে অ্যাপল, যার ফলে অ্যাপলের নিজেদের কোম্পানির তৈরি স্মার্টওয়াচ ব্যতীত অন্য কোনো কোম্পানির স্মার্টওয়াচের সঙ্গে যেন আইফোনের সংযোগ স্থাপন সম্ভব হচ্ছে না।

এছাড়া নিজেদের ট্যাপ-টু-পে প্রযুক্তি সেবায় ব্যাংক অন্যান্য আর্থিক প্রতিষ্ঠানকে প্রবেশ করতে দিচ্ছে না কোম্পানিটি এবং এই সেবা নিজেদের একচেটিয়া দখলে রেখে বাজার থেকে অন্যায় ভাবে কোটি কোটি ডলার হাতিয়ে নিচ্ছে।

‘অ্যাপ, বিভিন্ন পণ্য ও সেবার বাজারকে এমনভাবে নিয়ন্ত্রণ করছে অ্যাপল, যার ফলে ব্যবহারকারীরা আইফোনের ওপর অত্যধিক মাত্রায় নির্ভরশীল হয়ে পড়ছে। শুধু তাই নয়, এমন না হলে ভোক্তারাও কম খরচে অনেক পণ্য ও সেবা পেতে পারত,’ সংবাদ সম্মেলনে বলেছেন গারল্যান্ড।

এদিকে মামলা দায়েরের পর এক প্রতিক্রিয়ায় অ্যাপল জানিয়েছে, তারা কোনো অবৈধ তৎপরতার সঙ্গে যুক্ত নয় এবং কোম্পানি ‘সর্বশক্তি দিয়ে’ এসব ‘ভুয়া’ অভিযোগের বিরুদ্ধে লড়াই করবে।

অ্যাপলের মুখপাত্র ফ্রেড শেইনজ এ প্রসঙ্গে এক বিবৃতিতে বলেছেন , ‘তথ্য-উপাত্ত এবং আইনের ভিত্তিতে এ মামলা ভুল। অ্যাপল সর্বশক্তি দিয়ে এটি মোকাবিলা করবে।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
পদ্মাটাইমস ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন
topউপরে