মস্কোতে হামলা চালিয়েছে আইএস-কে : যুক্তরাষ্ট্র

প্রকাশিত: মার্চ ২৩, ২০২৪; সময়: ১০:৫৩ পূর্বাহ্ণ |
মস্কোতে হামলা চালিয়েছে আইএস-কে : যুক্তরাষ্ট্র

পদ্মাটাইমস ডেস্ক : মস্কোর ক্রোকাস সিটি হলের ভয়াবহ হামলার জন্য আন্তর্জাতিক ইসলামি সন্ত্রাসীগোষ্ঠী ইসলামিক স্টেটের আফগানিস্তান শাখা ইসলামিক স্টেট-খোরাসান (আইএস-কে) দায়ী করেছেন মার্কিন গোয়েন্দা কর্মকর্তারা। অন্তত ২ বছর ধরে আইএস-কের সদস্যরা মস্কোতে অবস্থান করছেন বলেও দাবি করেছেন মার্কিন কর্মকর্তারা।

শুক্রবার সন্ধ্যায় রাশিয়ার রাজধানী মস্কোর ক্রাসনোগরস্ক এলাকার ক্রোকাস সিটি হল অ্যান্ড শপিং সেন্টারে ভয়াবহ বন্দুক ও বোমা হামলায় অন্তত ৬০ জন নিহত হয়েছেন, আহত হয়েছেন আরও ১৪৭ জন।

মস্কোর আইনশৃঙ্খলা কর্মকর্তারা জানিয়েছেন, নিহতের সংখ্যা আরও বাড়তে পারে; কারণ আহতদের মধ্যে প্রায় ৬০ জনের অবস্থা আশঙ্কাজনক।

হামলার কয়েক ঘণ্টা পর সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম টেলিগ্রামে এক পোস্টে এই হামলার দায় স্বীকার করে বিবৃতি দেয় ইসলামিক স্টেট।

সেই বিবৃতিতে বলা হয়েছে, ‘মস্কোতে আইএস যোদ্ধারা হামলা চালিয়ে শতাধিক মানুষকে হতাহত করেছে এবং ঘটনাস্থলে ব্যাপক ধ্বংসযজ্ঞ চালিয়ে নিরাপদে তাদের ঘাঁটিতে ফিরে আসতে সক্ষম হয়েছে।’

মূল আইএস গোষ্ঠীর তৎপরতা প্রধানত ইরাক এবং সিরিয়ায় সীমাবদ্ধ। এটির শাখা আইএস-কে প্রতিষ্ঠিত হয় ২০১৪ সালে, আফগানিস্তানে।

একের পর সন্ত্রাসী হামলা এবং ভয়াবহ নৃশংসতার জন্য প্রতিষ্ঠার অল্প সময়ের মধ্যে ব্যাপক পরিচিত পেতে সক্ষম হয় আইএস-কে। আফগানিস্তানের পাশপাশি বর্তমান এটির তৎপরতা ইরান এবং রাশিয়ার অন্যতম প্রতিবেশী রাষ্ট্র তুর্কমেনিস্তানেও ছড়িয়ে পড়েছে।

ওয়াশিংটনভিত্তিক সামরিক থিঙ্কট্যাংক সংস্থা সৌফান সেন্টারের গবেষক কলিন ক্লার্ক বার্তাসংস্থা এএফপিকে বলেন, ‘আমাদের কাছে তথ্য রয়েছে যে অন্তত ২ বছর ধরে মস্কোতে অবস্থান করছে আইএস-কের সদস্যরা এবং দীর্ঘ সময় ধরে পরিকল্পনার পর এই হামলা চালিয়েছে।’

মূলত সিরিয়া এবং ইরাকে রুশ বাহিনীর টানা বিমান অভিযানের ‘প্রতিশোধ’ নিতে এই হামলা আইএস-কে চালিয়েছে বলে ধারণা করছেন তারা।

ওয়াশিংটনভিত্তিক অপর থিঙ্কট্যাংক সংস্থা উইলসন সেন্টারের কর্মকর্তা মিখায়েল কুগেলম্যান বলেন, ‘মস্কোতে আইএস-কে’র একার পক্ষে এ ধরনের হামলা চালানোর মতো সাহস নেই। গত দুই বছর অবস্থান করে তারা মধ্য এশিয়াভিত্তিক বিভিন্ন সন্ত্রাসী গোষ্ঠীর সঙ্গে আঁতাত করেছে। এই আঁতাতের ভিত্তিতেই চলানো হয়েছে হামলা।’

প্রসঙ্গত শুক্রবার ক্রোকাস সিটি হলে হামলার পর যুক্তরাষ্ট্রের গোয়েন্দা কর্মকর্তারা দাবি করেছেন, গোয়েন্দা সূত্রে এই হামলার তথ্য তারা আগেই পেয়েছিলেন এবং রাশিয়ার সরকারকে সতর্কও করেছিলেন। রয়টার্সকে এক কর্মকর্তা বলেন, ‘আমরা সম্ভাব্য হামলার আভাস পেয়েছিলাম। যথাযথভাবে রাশিয়ার সরকারকে সতর্কও করেছিলাম।’

রাশিয়ার কেন্দ্রীয় নিরাপত্তা সংস্থা এফএসবির কর্মকর্তারাও স্বীকার করেছেন যে দু’সপ্তাহ আগে মার্কিন গোয়েন্দা সংস্থা এই সতর্কবার্তা দিয়েছিল।

তবে এই বার্তা আসার কয়েক ঘণ্টা আগে মস্কোর একটি সিনাগগে (ইহুদিদের উপাসনালয়) আইএসের একটি সম্ভাব্য হামলা রুখে দেওয়া হয়েছিল বলে জানিয়েছেন রুশ কর্মকর্তারা।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
পদ্মাটাইমস ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন
topউপরে