মস্কোতে হামলার পেছনে ‘উগ্র ইসলামপন্থিরা’, স্বীকার করলেন পুতিন

প্রকাশিত: মার্চ ২৬, ২০২৪; সময়: ১১:১০ পূর্বাহ্ণ |
মস্কোতে হামলার পেছনে ‘উগ্র ইসলামপন্থিরা’, স্বীকার করলেন পুতিন

পদ্মাটাইমস ডেস্ক : কয়েকদিন আগেই রাশিয়ার রাজধানী মস্কোর ক্রোকাস সিটি কনসার্ট হলে ভয়াবহ সন্ত্রাসী হামলার ঘটনা ঘটেছে। এতে কমপক্ষে ১৩৭ জন নিহত হন এবং এই হামলাটিকে গত ২০ বছরের মধ্যে রাশিয়ায় সবচেয়ে বড় হামলা বলে মনে করা হচ্ছে।

এদিকে ভয়াবহ এই হামলার পেছনে ‘উগ্র ইসলামপন্থিরা’ জড়িত বলে প্রথমবারের মতো মন্তব্য করেছেন রাশিয়ার প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিন। একইসঙ্গে এই হামলায় ইউক্রেনের জড়িত থাকার ইঙ্গিতও দিয়েছেন তিনি।

মঙ্গলবার (২৬ মার্চ) এক প্রতিবেদনে এই তথ্য জানিয়েছে সংবাদমাধ্যম আল জাজিরা।

প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, গত সপ্তাহে মস্কোর বাইরে একটি কনসার্ট হলে হামলার পেছনে ‘কট্টরপন্থি ইসলামপন্থিরা’ ছিল বলে প্রথমবারের মতো বলেছেন প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিন। একইসঙ্গে ইউক্রেনও কোনো না কোনোভাবে এই হামলায় জড়িত ছিল বলেও ইঙ্গিত দিয়েছেন তিনি।

শুক্রবারের সেই হামলার ঘটনায় এগারো জনকে আটক করা হয়েছে। হামলায় সময় ছদ্মবেশী বন্দুকধারীরা মস্কোর ক্রোকাস সিটি হলে ঢুকে পড়ে এবং কনসার্ট-অনুষ্ঠানকারীদের ওপর গুলিবর্ষণ শুরু করে। পরে তারা ভবনে আগুনও ধরিয়ে দেয়। এতে অন্তত ১৩৭ জন নিহত হয়েছেন।

সোমবার টেলিভিশনে প্রচারিত এক বৈঠকে প্রেসিডেন্ট পুতিন বলেন, ‘আমরা জানি, অপরাধটি কট্টরপন্থি ইসলামপন্থিদের হাতেই সংঘটিত হয়েছে, যাদের আদর্শের বিরুদ্ধে ইসলামিক বিশ্ব নিজেরাই বহু শতাব্দী ধরে লড়াই করে আসছে।’

এসময় ইউক্রেনের কথা উল্লেখ করে পুতিন বলেন, ‘এই নৃশংসতার সঙ্গে হয়তো তাদের একটি যোগসূত্র থাকতে পারে যারা ২০১৪ সাল থেকে আমাদের দেশের সাথে যুদ্ধ করে আসছে।’

পুতিন প্রশ্ন করেন, ‘অবশ্যই, এই প্রশ্নের উত্তর পাওয়া দরকার, ‘কেন অপরাধ করার পরে সন্ত্রাসীরা ইউক্রেনে পালিয়ে যাওয়ার চেষ্টা করেছিল?’ সেখানে তাদের জন্য কে অপেক্ষা করছিল?’

পুতিন অবশ্য তার বক্তব্যে আইএসআইএল (আইএসআইএস) এর সহযোগীদের কথা উল্লেখ করেননি। যদিও তারাই মস্কোতে হামলার দায় স্বীকার করেছে।

আইএসআইএল এর সহযোগী আইএসআইএস-কে এই হামলার দায় স্বীকার করার পর যুক্তরাষ্ট্রের গোয়েন্দারাও তাদের সেই দাবি সমর্থন করে।

পরে ফরাসি প্রেসিডেন্ট ইমানুয়েল ম্যাক্রোঁও বলেছেন, ফ্রান্সের কাছে যে গোয়েন্দা তথ্য রয়েছে যাতে দেখা যাচ্ছে, ‘আইএসআইএলের একটি অংশ’ এই হামলার জন্য দায়ী।’

এর আগে সোমবার ক্রেমলিনের মুখপাত্র দিমিত্রি পেসকভ হামলার জন্য কাউকে দোষ দিতে অস্বীকার করেন এবং রাশিয়ায় তদন্তের ফলাফলের জন্য অপেক্ষা করার জন্য সাংবাদিকদের প্রতি আহ্বান জানান।

এছাড়া যুক্তরাষ্ট্র গত ৭ মার্চ মস্কোর কর্তৃপক্ষকে সম্ভাব্য হামলার বিষয়ে সতর্ক করেছিল বলে যে খবর বের হয়েছে সে বিষয়েও দিমিত্রি পেসকভ মন্তব্য করতে রাজি হননি। এই ধরনের যে কোনো গোয়েন্দা তথ্য গোপনীয় বলেও জানান তিনি।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
পদ্মাটাইমস ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন
topউপরে