ঈশ্বরদীর রেলক্রসিংয়ে দুই ট্রেনের সংঘর্ষ

প্রকাশিত: মার্চ ২৭, ২০২৪; সময়: ১০:০৫ পূর্বাহ্ণ |
ঈশ্বরদীর রেলক্রসিংয়ে দুই ট্রেনের সংঘর্ষ

নিজস্ব প্রতিবেদক, ঈশ্বরদী : পাবনার ঈশ্বরদীতে রেল ক্রসিং পারাপারের সময় মালবাহী দুই ট্রেনের মুখোমুখি সংঘর্ষ হয়েছে। এতে একটি ইঞ্জিন ও দুটি বগি লাইনচ্যুত হয়েছে। এ ঘটনায় ঢাকা-খুলনা রেল যোগাযোগ বন্ধ রয়েছে।

মঙ্গলবার রাত পৌনে ১২টার দিকে ঈশ্বরদী রেলওয়ে জংশনের অদূরে রেলগেট এলাকায় দুর্ঘটনা ঘটে। তবে এ ঘটনায় এখন পর্যন্ত কোনো হতাহত হওয়ার খবর পাওয়া যায়নি।

সরেজমিনে দেখা যায়, একটি ইঞ্জিন ও দুটি বগি লাইনচ্যুত হয়ে পড়ে আছে। ট্রেনের চাকা ভেঙে রেল লাইনের ওপর পড়ে আছে। ঈশ্বরদী-বানেশ্বর মহাসড়কের মধ্যবর্তী ঈশ্বরদী শহরের রেল গেটটি বন্ধ রয়েছে এ দুর্ঘটনার কারণে। ফলে রেলগেটের উভয়পাশে দীর্ঘ যানজটের সৃষ্টি হয়েছে।

এদিকে ঘটনার পরপরই ঈশ্বরদীর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) সুদীপ কুমার দাস, সহকারী কমিশনার (ভূমি) টি এম রাহসান কবীর ও ঈশ্বরদী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মো. রফিকুল ইসলাম ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেন।

পাকশী বিভাগীয় রেলওয়ের পরিবহণ দপ্তর সূত্রে জানা যায়, মঙ্গলবার দিবাগত রাত ১২ টার দিকে ঈশ্বরদী রেল ইয়ার্ড থেকে মালবাহী ট্রেনের শানটিং চলছিল। ইতোমধ্যে ঈশ্বরদী রেলইয়ার্ড থেকে অপর আরেকটি তেলবাহী ট্রেন (ফাঁকা) পশান অর্ডার মনে করে ভুলবশত (লাইন ক্লিয়ার পেয়েছে মনে করে) খুলনা অভিমুখে যাত্রা করে। এতে মালবাহী দুটি ট্রেনের মুখোমুখি সংঘর্ষ হয়। এতে দুই ট্রেনের সংঘর্ষে মালবাহী ট্রেনের একটি ওয়াগনের চার চাকা তেলবাহী ট্রেনের লোকোমোটিভ ইঞ্জিনের ছয় চাকা লাইনচ্যুত হয়।

পাকশী বিভাগীয় বাণিজ্যিক কর্মকর্তা নাসির উদ্দিন জানান, একটি তেলবাহী ট্রেন পার্বতীপুরে তেল নামিয়ে দিয়ে খুলনার দিকে যাবার পথে ঈশ্বরদী জংশন স্টেশনে এসে দাঁড়ায়। ঘটনার সময় পাথর বোঝাই একটি মালবাহী ট্রেন ভারত থেকে ঢাকা যাওয়ার পথে একই স্টেশনে দাঁড়ায়।

এ সময় পাথর বোঝাই ট্রেনটি শানটিং করার সময় (বগি এক লাইন থেকে আরেক লাইনে নেওয়ার সময়) তেলবাহী ট্রেনের সাথে ধাক্কা লাগে। তখন তেলবাহী ট্রেনের ইঞ্জিন ও মালবাহী ট্রেনের একটি বগি লাইনচ্যুত হয়।

ঘটনার পরপরই উদ্ধারকারী রিলিফ ট্রেন বগি উদ্ধারে কাজ শুরু করেছে। ভোর পাঁচটা নাগাদ উদ্ধার কাজ শেষ হয়ে ট্রেন চলাচল স্বাভাবিক হতে পারে বলে জানান তিনি।

পশ্চিমাঞ্চল রেলওয়ের ব্যবস্থাপক শাহ সূফী নুর মোহাম্মদ জানান, ঈশ্বরদী লোকোমোটিভ থেকে উদ্ধারকারী ট্রেন ইতোমধ্যেই রওনা করেছে। আমরা প্রাথমিকভাবে রেলগেটের কারণে যে যানবাহন চলাচল বন্ধ রয়েছে সেটি ক্লিয়ার করব। আশা করছি ৪০ মিনিটের মধ্যে এটুকু ক্লিয়ার হয়ে যাবে। কিছু লাইন ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে সেগুলো ৩-৪ ঘণ্টার মধ্যে মেরামত হয়ে যাবে।

তিনি আরও জানান, আপাতত খুলনা থেকে ঈশ্বরদী পর্যন্ত ট্রেন চলাচল বন্ধ আছে অন্যান্য রুটে ট্রেন চলাচল স্বাভাবিক আছে।

দুর্ঘটনার কারণ সম্পর্কে জিজ্ঞাসা করলে তিনি জানান, পারবর্তীপুর থেকে খুলনার উদ্দেশ্যে মালবাহী একটি ট্রেন ঈশ্বরদী স্টেশন থেকে বের হয়। কিন্তু এটি বের হওয়ার কথা ছিল না। অপর একটি ট্রেন শানটিং করছিল। ফলে এই দুর্ঘটনাটি ঘটে বলে প্রাথমিকভাবে ধারণা করছি। তদন্ত কমিটি করে বিষয়টি খতিয়ে দেখার পরে বিস্তারিত জানা যাবে। প্রাথমিকভাবে আমরা স্টেশন মাস্টার, পারবর্তীপুর থেকে খুলনাগামী ট্রেনের এলএম ও এএলএমকে সাসপেনশন করা হয়েছে।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
পদ্মাটাইমস ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন
topউপরে