বিছানায় পড়ে ছিল শুকতারার গলা ও হাত কাটা মরদেহ,

প্রকাশিত: জুন ৫, ২০২৪; সময়: ১০:২২ পূর্বাহ্ণ |
বিছানায় পড়ে ছিল শুকতারার গলা ও হাত কাটা মরদেহ,

পদ্মাটাইমস ডেস্ক : রংপুরের গঙ্গাচড়া উপজেলায় ঘর থেকে এক গৃহবধূর গলাকাটা লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ। ঘটনার পর থেকে ওই গৃহবধূর স্বামী পলাতক। মঙ্গলবার (৪ জুন) সকালে উপজেলার আলমবিদিতর ইউনিয়নের ব্রহ্মত্ত বালাপাড়ায় এ ঘটনা ঘটে। গঙ্গাচড়া মডেল থানার ওসি মাসুমুর রহমান বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

নিহত শুকতারা বেগম (৩৫) বালাপাড়া গ্রামের মাহাবুব হাসান রাহাত ওরফে বল্টুর স্ত্রী। এ ছাড়া রাহাত আলমবিদিতর ইউনিয়নের সাবেক চেয়ারম্যান মনছুর আলী সরকারের নাতি। জানা গেছে, প্রায় ১৬ বছর আগে রাহাতের সঙ্গে দিনাজপুরের পার্বতীপুর সদর এলাকার শুকতারার বিয়ে হয়। তাদের নবম শ্রেণিতে পড়ুয়া একটি ছেলে রয়েছে।

স্থানীয়দের বরাতে গঙ্গাচড়া মডেল থানার ওসি মাসুমুর রহমান জানান, রোববার রাহাতের মা ও তার ছেলে রংপুরে এক আত্মীয়ের বাড়িতে বেড়াতে যান। বাড়িতে তারা স্বামী-স্ত্রী ছিলেন। পরবর্তীতে মঙ্গলবার (৪ জুন) সকাল ১০টার দিকে বাড়ি থেকে বের হয়ে যান রাহাত। তবে দীর্ঘসময় শুকতারাকে না দেখে প্রতিবেশীরা তার ঘরে ঢুকে বিছানায় গলা ও হাত কাটা অবস্থায় তাকে পড়ে থাকতে দেখেন।

ওসি বলেন, শুকতারার গলা ও হাত কাটাসহ শরীরের বিভিন্ন স্থানে আঘাতের চিহ্ন রয়েছে। ময়নাতদন্তের জন্য রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে মরদেহ পাঠানো হয়েছে। পাশাপাশি শুকতারার স্বজনদের খবর দেয়া হয়েছে। তারা আসলে কথা বলে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেয়া হবে। এছাড়া তার স্বামীকে গ্রেপ্তারের চেষ্টা চলছে বলেও জানান পুলিশের এই কর্মকর্তা।

রংপুরের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (এ সার্কেল) হোসেন মোহাম্মদ রায়হান বলেন, প্রাথমিকভাবে ধারণা করা হচ্ছে, মধ্যরাতে স্বামী-স্ত্রীর মধ্যে ঝগড়ার পর ওই গৃহবধূকে গলা কেটে হত্যা করেছেন স্বামী রাহাত। ঘটনার তদন্ত করা হচ্ছে। ময়নাতদন্তের প্রতিবেদন পেলে আসল রহস্য উদ্‌ঘাটন করা যাবে।

পদ্মাটাইমস ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন
topউপরে