কলেজশিক্ষার্থী আত্মহত্যায় অভিযুক্ত প্রেমিক গ্রেপ্তার

প্রকাশিত: জুন ৫, ২০২৪; সময়: ১:১০ অপরাহ্ণ |
কলেজশিক্ষার্থী আত্মহত্যায় অভিযুক্ত প্রেমিক গ্রেপ্তার

পদ্মাটাইমস ডেস্ক : রাঙ্গামাটির লংগদু উপজেলার বাইট্টাপাড়া তিনটিলা নামক এলাকায় নিজ বসতঘরে গলায় ফাঁস দিয়ে আত্মহত্যা করা জেসমিন আক্তারের অভিযুক্ত প্রেমিককে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ।

নিহত জেসমিন আক্তারের মায়ের অভিযোগের ভিত্তিতে অভিযুক্ত প্রেমিক ফরহাদকে বুধবার (৫ জুন) গ্রেপ্তার করেছে লংগদু থানা পুলিশ।

ফরহাদ লংগদু সদর ইউনিয়নের বাইট্টাপাড়া তিনটিলা নামক এলাকার একই গ্রামের ওসমান গণির ছেলে। লংগদু থানা পুলিশ ও এলাকাবাসীর সূত্রে জানা যায়, ফরহাদ ও জেসমিনের মধ্যে দীর্ঘদিন প্রেমের সম্পর্ক ছিল। মোবাইলের কল লিস্টের মাধ্যমে জানা যায়, মৃত্যুর কিছুক্ষণ আগেও তারা মোবাইলে কথা বলেন। এরপরেই মেয়েটি আত্মহত্যা করেন।

জেসমিনের মা বলেন, ‘প্রতিবেশী ফরহাদ প্রায় সময় আমার মেয়েকে প্রেমের প্রস্তাবের মাধ্যমে কুপ্রস্তাব দিয়ে আসছে। এসব বিষয়ে ছেলের পরিবারকে বারবার বলা হলেও তারা কোনো রকম ব্যবস্থা নেয়নি। মৃত্যুর আগেও আমার মেয়ের সঙ্গে মোবাইল ফোনে কথা বলে ফরহাদ। তখন আমি বাসায় ছিলাম না। বাসায় এসে দেখি আমার মেয়ে গলায় ফাঁস দিয়েছে। প্রশাসনের মাধ্যমে আমি আমার মেয়ে হত্যার সুষ্ঠু বিচার দাবি করছি।’

লংগদু থানার ওসি হারুনুর রশিদ বলেন, ‘ঘটনাটি তদন্ত সাপেক্ষে মোবাইল ফোনের কললিস্ট, পরিবার এবং এলাকাবাসীর দেয়া তথ্যমতে তাদের প্রেমের সম্পর্কের কথা উঠে আসে। পরবর্তীতে মেয়ের মা বাদী হয়ে লংগদু থানায় অভিযোগ দায়ের করলে অভিযোগের ভিত্তিতে লংগদু থানা পুলিশ প্রেমিক ফরহাদকে গ্রেপ্তার করে। এর আগে জেসমিনের মরদেহ ময়নাতদন্ত করে পরিবারের নিকট মরদেহ বুঝিয়ে দেওয়া হয়। এ দিকে প্রেমিক ফরহাদকে গ্রেপ্তার করে আদালতে প্রেরণ করা হয়েছে।’

উল্লেখ্য, মঙ্গলবার সকাল ১১টার সময় লংগদু ইউনিয়নের বাইট্টাপাড়ার তিনটিলা নামক এলাকার নিজের বসতঘরে গলায় ফাঁস দেন জেসমিন। তিনি লংগদু মডেল কলেজের একাদশ শ্রেণির প্রথম বর্ষের ছাত্রী।

পদ্মাটাইমস ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন
topউপরে