আমের আঁটি ও কাঁঠালের বিচি এর উপকারিতা

প্রকাশিত: জুন ৫, ২০২৪; সময়: ২:১৪ অপরাহ্ণ |
আমের আঁটি ও কাঁঠালের বিচি এর উপকারিতা

পদ্মাটাইমস ডেস্ক : আমরা সাধারণত ফল খেয়ে বিচি ফেলে দেই। অথচ বেশিরভাগ ফলের বিচিতেই রয়েছে নানা উপকার। যা শরীরের রোগ-প্রতিরোধ ক্ষমতা বৃদ্ধিসহ শরীরকে সুস্থ ও সবল রাখতে সাহায্য করে।

বর্তমানে চলছে আম ও কাঁঠালের মৌসুম। এসময়ে মানুষজন প্রচুর আম-কাঁঠাল খেয়ে থাকেন। তবে আম ও কাঁঠালের বিচি অনেকেই ফেলে দেন। কিন্তু এসব বিচির উপকারিতা জানলে আপনি অবাক হবেন।

গ্রীষ্মকালীন ফল হিসেবে আম বেশ জনপ্রিয় একটি ফল। যাকে ফলের রাজা বলা হয়। আম খেতে পছন্দ করেন না এমন মানুষ পাওয়া কঠিন। আম খেতে যেমন সুস্বাদু তেমনি আমের আঁটি বা বিচিরও রয়েছে নানা উপকার। যা আমরা অনেকেই জানি না। আম খেয়ে আমের আঁটি বা বিচি আমরা সাধারণত ফেলেই দেই। আসুন জেনে নেই আমের আঁটি বা বিচির উপকারিতা সম্পর্কে।

১. আমের বিচি ব্লাড সুগার লেভেল নিয়ন্ত্রণে রাখে।
২. কোলেস্টেরলের মাত্রা কমায়।
৩. ওবেসিটি বা অতিরিক্ত ওজনের সমস্যা থাকলে আমের বিচির নির্যাস খেতে পারেন। ফ্যাট বার্ন করতে আমের বিচি অত্যন্ত কার্যকরী।
৪. ডায়রিয়া হলে আমের বিচি শুকিয়ে গুঁড়ো করে পানির সঙ্গে খেলে উপকার পাওয়া যায়।
৫. এর গুঁড়ো স্ক্যাল্পে লাগালে খুশকির সমস্যা দূর হয়।

কাঁঠালের বিচির যত ব্যবহার-
আমাদের জাতীয় ফল কাঁঠাল। তবে কাঁঠাল জাতীয় ফল হলেও অনেকে কাঁঠাল খেতে পছন্দ করেন না। তবে কাঁঠাল খেতে পছন্দ না করলেও কাঁঠালের বিচি কিন্তু প্রায় সবার প্রিয়। ভর্তা করে, বিভিন্ন তরকারিতে ও মাছ-মাংসের সঙ্গে রান্না করে অথবা শুধু ভেজেও খাওয়া যায় কাঁঠালের বিচি। কাঁঠালের বিচির রয়েছে অনেক উপকারিতা। এর প্রোটিন শরীরের জন্য অত্যন্ত উপকারী। মাছ, মাংস যাদের কম খাওয়া হয় তাদের জন্য আমিষের চাহিদা মেটাতে কাঁঠালের বিচি উৎকৃষ্ট খাবার। কাঁঠালের বিচি বিপাক ক্রিয়া ত্বরান্বিত করে। কোষ্ঠকাঠিন্য দূর করে। হজম শক্তি বাড়ায়। থাইরয়েড নিয়ন্ত্রণে রাখতে সাহায্য করে ও আরও অসংখ্য উপকার পাওয়া যায়।

পদ্মাটাইমস ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন
topউপরে