চুয়েটের হলে গভীর রাতে শিক্ষকের মদপান, তদন্ত কমিটি গঠন

প্রকাশিত: জুন ৫, ২০২৪; সময়: ৩:৩৩ অপরাহ্ণ |
চুয়েটের হলে গভীর রাতে শিক্ষকের মদপান, তদন্ত কমিটি গঠন

পদ্মাটাইমস ডেস্ক : চট্টগ্রাম প্রকৌশল ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের (চুয়েট) শহীদ তারেক হুদা হলে বসে মদপানের অভিযোগ উঠেছে এক শিক্ষকের বিরুদ্ধে। এ ঘটনায় গতকাল (৪ জুন) চুয়েট প্রশাসন দুই সদস্যবিশিষ্ট তদন্ত কমিটি গঠন করেছে।

অভিযুক্ত শিক্ষকের নাম শাফকাত আর রুম্মান। তিনি চট্টগ্রাম প্রকৌশল ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের পুরকৌশল বিভাগের প্রভাষক।

জানা যায়, গত শুক্রবার (৩১ মে) চুয়েটের ১৮তম ব্যাচের শিক্ষা সমাপনীর শেষদিন উপলক্ষে বিশ্ববিদ্যালয়ের বাস্কেটবল মাঠে একটি কনসার্ট আয়োজন করা হয়। কনসার্ট চলাকালীন সময়ে ভোর ৪টা নাগাদ শাফকাত আর রুম্মান বিশ্ববিদ্যালয়ের শহীদ তারেক হুদা হলে মদপান করতে যান।

পরে অভিযুক্ত শিক্ষকের স্ত্রী ও চুয়েটের ইলেকট্রনিক্স অ্যান্ড টেলিকমিউনিকেশন ইঞ্চিনিয়ারিং বিভাগের প্রভাষক কাজী জান্নাতুল ফেরদৌস তাকে মদ পান করতে দেখেন। এসময় অভিযুক্ত শিক্ষক নিজের স্ত্রী ও সহকর্মীকে দেখে উত্তেজিত হয়ে বকাঝকা করতে থাকেন। পরে হলের বিভিন্ন শিক্ষার্থীরা উপস্থিত হয়ে তাকে শিক্ষক ডরমিটরিতে পৌঁছে দেন।

এ ঘটনা জানাজানি হলে চুয়েট প্রশাসনের নজরে আসে এবং তারা এর সত্যতা যাচাইয়ের জন্য বিশ্ববিদ্যালয়ের গণিত বিভাগের অধ্যাপক ড. সুনীল ধরকে সভাপতি এবং তড়িৎ ও ইলেকট্রনিক কৌশল বিভাগের অধ্যাপক ড. মোহাম্মদ আহসান উল্লাহ সদস্য করে দুই সদস্যবিশিষ্ঠ তদন্ত কমিটি গঠন করেন।

এ বিষয়ে চুয়েটের ডিপুটি রেজিস্ট্রার রাশেদুল ইসলাম বলেন, বিশ্ববিদ্যালয়ের এক শিক্ষকের বিরুদ্ধে মদপানের অভিযোগ উঠেছে। এ ঘটনায় একটি তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়েছে। তদন্ত কমিটি ঘটনা বিশ্লেষণ করে একটি প্রতিবেদন জমা দেবেন। সত্যতা পেলে ওই শিক্ষকের বিরুদ্ধে বিশ্ববিদ্যালয়ের আইন অনুযায়ী ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

এ বিষয়ে জানতে চুয়েট উপাচার্য অধ্যাপক ড. মোহাম্মদ রফিকুল আলমকে একাধিকবার ফোন করলেও তিনি ধরেননি।

পদ্মাটাইমস ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন
topউপরে