স্মার্ট ও পরিকল্পিত নগরায়ণে কাজ করছে গণপূর্ত মন্ত্রণালয়

প্রকাশিত: জুন ৯, ২০২৪; সময়: ২:০৫ অপরাহ্ণ |
খবর > জাতীয়
স্মার্ট ও পরিকল্পিত নগরায়ণে কাজ করছে গণপূর্ত মন্ত্রণালয়

পদ্মাটাইমস ডেস্ক : গৃহায়ন ও গণপূর্ত মন্ত্রণালয়াধীন র আ ম উবায়দুল মোকতাদির চৌধুরী বলেছেন, স্মার্ট ও পরিকল্পিত নগরায়ণে লক্ষ্যে গৃহায়ন ও গণপূর্ত মন্ত্রণালয় নিরলসভাবে কাজ করে যাচ্ছে।

দেশের বিভাগীয় শহর, জেলা ও উপজেলাসহ প্রান্তিক জনপদে পরিকল্পিত নগরায়ণের জন্য মাস্টারপ্ল্যান প্রণয়ন করে নগর উন্নয়ন অধিদপ্তর। পরিকল্পিত ও স্মার্ট নগরায়ণের গণপূর্ত মন্ত্রণালয় নিরলসভাবে কাজ করছে।

রোববার (০৯ জুন) জাতীয় সংসদের অধিবেশনে খুলনা-১ আসনের সংসদ সদস্য ননী গোপাল মন্ডলের প্রশ্নের জবাবে এ কথা বলেন গৃহায়ন ও গণপূর্ত মন্ত্রী।

উবায়দুল মোকতাদির চৌধুরী জানান, স্মার্ট ও পরিকল্পিত নগরায়ণে লক্ষ্যে গৃহায়ন ও গণপূর্ত মন্ত্রণালয় ও এর আওতাধীন দপ্তর/সংস্থাগুলো নিরলসভাবে কাজ করে যাচ্ছে।

গৃহায়ন ও গণপূর্ত মন্ত্রণালয়াধীন নগর উন্নয়ন অধিদপ্তর দেশের বিভাগীয় শহর, জেলা ও উপজেলাসহ প্রান্তিক জনপদে পরিকল্পিত নগরায়ণের জন্য মাস্টার প্ল্যান প্রণয়ন করে থাকে এ মন্ত্রণালয়ের আওতাধীন উন্নয়ন কর্তৃপক্ষসমূহ তাদের স্ব-স্ব অধিক্ষেত্রের মাস্টার প্ল্যান প্রণয়ন করে থাকে।

মন্ত্রী জানান, নগর উন্নয়ন অধিদপ্তরের মাধ্যমে ২০০৯-২০২২ সাল পর্যন্ত ডিজিটাল পদ্ধতিতে জিআইএস ডাটাবেজ, ড্রোন, স্যাটেলাইটের মাধ্যমে সংগৃহীত থ্রিডি ইমেজ, আরটিকে জিপিএস ইত্যাদি ব্যবহার করে ২৯টি উপজেলার মাস্টার প্ল্যান তৈরি করা হয়েছে।

বর্তমানে চারটি প্রকল্পের আওতায় ২৮টি উপজেলার মাস্টার প্ল্যান তৈরির কার্যক্রম চলমান রয়েছে। আরও ১১০টি উপজেলার মাস্টার প্ল্যান প্রণয়নের জন্য ডিপিপি প্রণয়নের কার্যক্রম চলমান রয়েছে।

এছাড়া সমগ্র দেশব্যাপী সমন্বিত মাস্টার প্ল্যান তৈরির লক্ষ্যে প্রণীত প্রকল্প প্রস্তাব অনুমোদনের জন্য শিগগিরই পরিকল্পনা কমিশনে পাঠানো হবে।

এছাড়া, ঢাকা মহানগরী ও রাজউক অধিভুক্ত অন্যান্য এলাকার বর্তমান ও ভবিষ্যৎ উন্নয়নের দিকনির্দেশনা দেওয়ার জন্য রাজউকের মাধ্যমে ঢাকা মহানগরীতে নতুন মহাপরিকল্পনা : বিশদ অঞ্চল পরিকল্পনা (ড্যাপ) (২০২২-৩৫) প্রণয়ন করা হয়েছে।

তিনি আরও জানান, পরিকল্পিত নগরায়ণ নিশ্চিত করতে ঢাকাসহ দেশের ৩৮টি জেলা এবং ৮টি উপজেলায় জাতীয় গৃহায়ন কর্তৃপক্ষের ৬৬টি হাউজিং এস্টেট রয়েছে। ২০টি ফ্ল্যাট নির্মাণ প্রকল্পে ৫ হাজার ৬৯৬টি ফ্ল্যাট এবং ৪১টি প্লট প্রকল্পে ২১ হাজার ৫৫৪টি প্লট তৈরির কাজ সম্পন্ন হয়েছে।

বর্তমানে ঢাকাসহ দেশের বিভিন্ন জেলা ও উপজেলায় ৮টি ফ্ল্যাট প্রকল্পে ৪ হাজার ২৬৩টি ফ্ল্যাট নির্মাণ এবং ১১টি প্লট উন্নয়ন প্রকল্পে ১ হাজার ৬৭৬টি প্লট উন্নয়ন কাজ চলমান রয়েছে।

জাতীয় গৃহায়ন নীতিমালা-২০১৬ অনুযায়ী জাতীয় গৃহায়ন কর্তৃপক্ষের বাস্তবায়িত ও বাস্তবায়নাধীন প্রকল্পগুলো স্মার্ট, টেকসই ও পরিকল্পিত নগরায়ণে ভূমিকা রাখছে। এছাড়া জাতীয় গৃহায়ন কর্তৃপক্ষের মাধ্যমে ঢাকা শহরের পার্শ্ববর্তী অঞ্চলে চতুর্দিকে ৪টি স্যাটেলাইট টাউন নির্মাণের জন্য ডিপিপি প্রণয়নের কাজ চলমান আছে।

তিনি জানান, গণপূর্ত অধিদপ্তর ‘রূপকল্প-২০৪১’ অনুযায়ী সরকারের উন্নয়ন পরিকল্পনার আওতায় উন্নত দেশ গড়ার লক্ষ্যে যুগোপযোগী ও পরিবেশবান্ধব অবকাঠামো নির্মাণ ও রক্ষণাবেক্ষণে কাজ করে যাচ্ছে। স্থাপত্য অধিদপ্তরের মাধ্যমে গণপূর্ত অধিদপ্তর, জাতীয় গৃহায়ন কর্তৃপক্ষ ও রাজধানী উন্নয়ন কর্তৃপক্ষের চাহিদা অনুযায়ী দৃষ্টিনন্দন, বিদ্যুৎ ও জ্বালানি সাশ্রয়ী এবং পরিবেশ বান্ধব নকশা প্রণয়ন করার পরামর্শ দিয়ে যাচ্ছে।

এছাড়া, চট্টগ্রাম উন্নয়ন কর্তৃপক্ষ কর্তৃক কর্তৃপক্ষের আওতাধীন এলাকায় ২০২০-২০৪১ সাল মেয়াদি মহাপরিকল্পনা প্রণয়নের কার্যক্রম চলমান রয়েছে।

এর বাইরেও বিদ্যমান বিশদ অঞ্চল পরিকল্পনার এক্সটেনশন হিসেবে খুলনা শহরের পার্শ্ববর্তী বাগেরহাট জেলার মোংলা ও যশোর জেলার নওয়াপাড়া এলাকার প্রায় ৩১৯ বর্গ কিলোমিটার জায়গা জুড়ে বিশদ অঞ্চল পরিকল্পনা প্রণয়নের নিমিত্ত ‘খুলনা ও মোংলা এলাকার জন্য স্ট্রাকচার প্ল্যান, মাস্টার প্ল্যান এবং ডিটেইল্ড এরিয়া প্ল্যান প্রণয়ন (বিদ্যমান ডিটেইল্ড এরিয়া প্ল্যান এলাকার বাইরে)’ শীর্ষক প্রকল্পের ডিপিপি অনুমোদনহীন আছে।

পদ্মাটাইমস ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন
topউপরে