ফের গাজার ভাসমান বন্দর সরিয়ে নিচ্ছে যুক্তরাষ্ট্র

প্রকাশিত: জুন ১৫, ২০২৪; সময়: ১১:০৬ পূর্বাহ্ণ |
ফের গাজার ভাসমান বন্দর সরিয়ে নিচ্ছে যুক্তরাষ্ট্র

পদ্মাটাইমস ডেস্ক : গাজার উপকূলে স্থাপন করা ভাসমান বন্দরটি ফের সরিয়ে নেওয়ার প্রস্তুতি নিচ্ছে যুক্তরাষ্ট্র। সমুদ্র উত্তাল হওয়ার শঙ্কা থেকে এটি সরিয়ে নেওয়া হবে বলে জানিয়েছেন এক মার্কিন কর্মকর্তা।

গত মে মাসে ৩২০ মিলিয়ন ডলারের এই বন্দরটি গাজার উপকূলে স্থাপন করা হয়। কিন্তু খারাপ আবহাওয়ার কারণে বারবার এটির কার্যক্রম বাধাগ্রস্ত হয়েছে।

উত্তাল ঢেউয়ের কারণে কয়েকদিন আগে এটি ভেঙে যায়। এরপর মেরামতের জন্য এটি দখলদার ইসরায়েলের আসোদ বন্দরে নিয়ে যাওয়া হয়। মেরামত শেষে গত সপ্তাহে এটি আবারও গাজায় নিয়ে আসা হয়।

কিন্তু সপ্তাহ না পেরুতেই বন্দরটি সরিয়ে নেওয়া হচ্ছে। নাম প্রকাশ না করার শর্তে ওই মার্কিন কর্মকর্তা বলেছেন, যতদিন সমুদ্র শান্ত না হচ্ছে ততদিন এটি আসোদ বন্দরে থাকবে।

১৭ মে থেকে এটির কার্যক্রম শুরু হয়। জাতিসংঘ জানিয়েছে এ বন্দরটি দিয়ে তারা মাত্র ১৩৭ ট্রাক ত্রাণ তাদের গুদামে নিয়ে গেছে। এই বন্দরটি দিয়ে গাজায় এসেছে মাত্র ৯০০ টন ত্রাণ। গত সপ্তাহে বন্দরটি সচল হলেও গতকাল শুক্রবার জাতিসংঘ জানিয়েছে, নতুন করে এটি দিয়ে কোনো ত্রাণ তাদের কাছে আসেনি।

গত আট মাস ধরে দখলদার ইসরায়েল ও গাজাভিত্তিক সশস্ত্র গোষ্ঠী হামাসের মধ্যে যুদ্ধ চলছে। যুদ্ধ শুরু হওয়ার পর গাজায় ত্রাণবাহী ট্রাক প্রবেশ বন্ধ করে দিয়েছে ইসরায়েল।

এতে করে গাজার বাসিন্দরা খাদ্যের অভাবে পড়েছেন। যুক্তরাষ্ট্র চেয়েছিল ভাসমান বন্দর দিয়ে গাজায় তারা ত্রাণ নিয়ে যাবে। কিন্তু আপাতত এ পরিকল্পনা ব্যর্থ হয়েছে বলে মনে করা হচ্ছে।

পদ্মাটাইমস ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন
topউপরে