পার্লার কর্মীদের গ্রাহক কম, ব্যস্ততা বেশি সেলুনে

প্রকাশিত: জুন ১৬, ২০২৪; সময়: ৩:৪৮ অপরাহ্ণ |
পার্লার কর্মীদের গ্রাহক কম, ব্যস্ততা বেশি সেলুনে

জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক, বাঘা : কোরবানির ঈদে ব্যবসায় ভাটা পড়েছে পার্লার কর্মীদের। পার্লারগুলোতে নেই গ্রাহকের ভিড়। অলস সময় কাটছে পার্লার কর্মীদের। সাধারণত রোজার ঈদের সময় বিউটি পার্লারগুলোতে তিল ধারণের ঠাঁই থাকে না। নারীরা ঈদের দিন নিজেদের সুন্দর দেখতে চান। এ উৎসাহে কোরবানির ঈদে অনেকটাই ভাটা দেখা যায়।

রোববার (১৬ জুন) উপজেলার বিভিন্ন বিউটি পার্লারে গিয়ে এমন দৃশ্য দেখা যায়। রোজার ঈদের মতো ভিড় ও ব্যস্ততা নেই পার্লারগুলোয়; কর্মীরা অলস সময় পার করছেন। রোজার ঈদে নারীরা বিভিন্ন প্যাকেজ সেবা নিলেও এ ঈদে সাধারণ সেবা নিচ্ছেন।

পার্লারের স্বত্বাধিকারীরা বলছেন, ঘরের কাজ থেকে একটু অবসর পেলেই নারীরা হাত, মুখ, চুল, ত্বকের যত্নের জন্য পার্লারে যান বিশেষ দিনে নিজেকে একটু আলাদাভাবে উপস্থাপনের জন্য।

তবে ঈদুল আজহায় পশু কোরবানি ও মাংস সংরক্ষণের কাজে ব্যস্ত থাকায় অনেক নারী ঈদের পর পার্লারে যান। তারা বলছেন কোরবানির ঈদের সময় উপচে পড়া ভিড় কখনোই থাকে না। সবাই কোরবানি নিয়েই ব্যস্ত থাকেন।

উপজেলার প্রিয় ডিজিটাল বিউটি পার্লারের স্বত্তাধিকারি ডালিয়া ইসলাম বলেন, ‘এখন অনেকটাই কর্মহীন। এক-দুটা সার্ভিস দিচ্ছি শুধু। কারণ, সবাই ঈদের পর আসবে। সবার টার্গেট এটা যে, ঈদের সব কাজ শেষ করে পেডিকিউর-মেনিকিউর বা অন্যান্য সার্ভিস নিতে আসবে।’

যে ব্যস্ততা আশা করেছিলাম, তা থেকে অনেক কম ব্যস্ততা এবারের ঈদে। অনেক বেশি ভিড় নেই। আশা করছি, কোরবানির ঈদের ব্যস্ততা শেষে নারীরা পার্লারে সেবা নিতে আসবেন। বিউটি পার্লারে ফেসিয়াল, হেয়ার সার্ভিস বেশি নিয়ে থাকেন নারীরা। এবার ঈদে বৌসাজ কনট্রাক্ট চলছে।

সেবা নিতে আসা কয়েকজন নারীর কাছ থেকেও একই তথ্য পাওয়া গেছে। লিজা নামের একজন নারি বলেন, কোরবানির ঈদের আগে এখন হেয়ার ও ফেসিয়ালটাই করে থাকি। ঈদের পর হাত ও পায়ের সার্ভিস নিতে আসব।

জেমস পার্লারের স্বত্তাধিকারি রফিক হোসেন জানান ,সব পার্লারে এখন বিভিন্ন ধরনের ফেসিয়াল, হেয়ার কেয়ার, ক্লুপ্লাপ, হারবাল ফেসিয়াল, ফেয়ার পলিশসহ হেয়ার স্টাইলের মধ্যে বাহারি রঙের চুল কালার করার পাশাপাশি বিভিন্ন শেপের হেয়ার কাটিংসের প্যাকেজ অফার করছে ঈদ উপলক্ষে।

এছাড়া তারা সিঙ্গেল সার্ভিসও দিচ্ছে। কোরবানির ঈদে যদিও হাতে মেহেদি দেওয়ার চাহিদা কম থাকে, তবুও কিছু পার্লারে মেহেদি প্যাকেজও থাকছে অন্যান্য সার্ভিসের সঙ্গে।

বাঘা পৌর এলাকার বাচ্চু সেলুনের স্বত্তাধিকারি বাচ্চু হোসেন বলেন, হেয়ার সার্ভিস বেশি নিচ্ছেন পুরুষরা। সাধারণভাবে রোজার ও কোরবানির ঈদে ভিড় বেশি থাকে।

 

পদ্মাটাইমস ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন
topউপরে