পশুর চামড়া কেনাবেচায় চলছে নৈরাজ্য

প্রকাশিত: জুন ১৮, ২০২৪; সময়: ১:৪০ অপরাহ্ণ |
পশুর চামড়া কেনাবেচায় চলছে নৈরাজ্য

পদ্মাটাইমস ডেস্ক : পশুর চামড়া কেনাবেচার বড় বাজার রংপুরে চলছে নৈরাজ্য। আড়তদার সিন্ডিকেটের বিরুদ্ধে কোটি কোটি টাকা হাতিয়ে নেয়ার অভিযোগ উঠেছে।

রংপুর নগরীর শাপলা চত্বরের পশুর চামড়া বিক্রির পাইকারী আড়ৎ। পবিত্র ঈদুল আযহা উপলক্ষে কোরবানীর পর পশুর চামড়া এখানেই বিক্রি করা হয়।

সরকার নির্ধারিত মূল্যে চামড়া কিনে বিক্রি করতে গেলে আড়তদারদের সিন্ডিকেটের কবলে পড়েন মৌসুমী ব্যবসায়ীরা। আড়তদাররা সর্বোচ্চ ৬ থেকে ৭শ’ টাকার বেশি দামে চামড়া কিনবেন না বলে সাফ জানিয়ে দিয়েছেন।

ফলে পুঁজি হারিয়ে বিপাকে মৌসুমী ব্যবসায়ীরা। তারা জানান, আমরা কিনতেছি ৭-৮শ’ টাকায় কিন্তু বড় ব্যবসায়ীরা এই দাম দিতে চাচ্ছেনা।

এই সিন্ডিকেটের বিরুদ্ধে জেলা প্রশাসন, আইন শৃংখলা রক্ষাকারী বাহিনী এমনকি ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ পরিষদের কোন তৎপরতাও লক্ষ্য করা যায়নি বলে অভিযোগ মৌসুমী ব্যবসায়ী ও নগরবাসির। মৌসুমী চামড়া ব্যবসায়ীরা জানান, হাজার-১২শ’ টাকায় কেনা চামড়ার দাম বলছে ৫-৬শ’ টাকা।

অন্যদিকে, চামড়াগুলো মানসম্মত নয় অজুহাত দেখিয়ে সরকার নির্ধারিত দামে কেনা সম্ভব নয় বলে জানিয়েছেন আড়তদাররা। চামড়া ব্যবসায়ী আড়তদাররা জানান, পুরো চামড়াটাই সুন্দর কিন্তু একটু করোনার জন্য ওই চামড়ার দাম ১শ’ টাকা।

প্রাণী সম্পদ বিভাগের হিসাব অনুযায়ী রংপুরে এবার ২ লাখ গরু ও এক লাখ ছাগল কোরবানী হয়েছে। গুটি কয়েক আড়তদারের এমন সিন্ডিকেটের বিরুদ্ধে কঠোর ব্যবস্থা নেয়ার দাবি সাধারণ মানুষ ও ব্যবসায়ীদের।

পদ্মাটাইমস ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন
topউপরে