এটি বিশ্বের সবচেয়ে দামি বিস্কুট, দাম শুনলে চমকে যাবেন

প্রকাশিত: জুন ২৬, ২০২৪; সময়: ১১:০৪ পূর্বাহ্ণ |
এটি বিশ্বের সবচেয়ে দামি বিস্কুট, দাম শুনলে চমকে যাবেন

পদ্মাটাইমস ডেস্ক : বিস্কুট ছাড়া তো বাঙালির চা পান অসম্পূর্ণ। বিস্কুট কত ধরনের হয় তা তো আপনারা জানেনই। টক, ঝাল, মিষ্টি সব রকমেরই বিস্কুট হয়। অনেকে আবার বিস্কুটের সঙ্গে কুকিকে গুলিয়ে ফেলেন। বিস্কুট ও কুকি কিন্তু আলাদা দুটি খাবার।

চা ও বিস্কুট খেতে ভালোবাসে না এমন বাঙালি খুঁজে পাওয়া কঠিন৷ বুড়ো থেকে বাচ্চা সবাই বিস্কুট খেতে খুবই ভালোবাসে। এই বিস্কুট চায়ে ডুবিয়ে খেতে লোভ হয় অনেকেরই।

সকালে ঘুম থেকে ওঠার পরই গরম, গরম চা বা কফির সঙ্গে বিস্কুট খাওয়ার মজাই আলাদা। তাই প্রতিদিন সকালে বিস্কুট খাওয়ার অভ্যাস অনেক মানুষেরই আছে।

আপনি যদি বাজারে বিস্কুট কিনতে যান, আপনি ৩০-৫০ টাকায় মোটামুটি বিস্কুটের একটি ভালো প্যাকেট পাবেন। কিন্তু বিশ্বে এমন একটি বিস্কুট আছে, যার দাম অনেক।

এর দাম এত বেশি যে আপনি সেই পরিমাণ দিয়ে একটি গাড়িও কিনতে পারবেন! এটি বিশ্বের সবচেয়ে দামি বিস্কুট। কিন্তু প্রশ্ন জাগে কেন এত দাম?

বিবিসির ২০১৫ সালের প্রতিবেদন অনুসারে, একটি বিস্কুট নিলাম হয়েছিল, যার দাম ছিল ১৫ হাজার পাউন্ড অর্থাৎ আজকের হিসাবে প্রায় সাড়ে ২২ লাখ টাকা। এটি এত দামী কারণ এটিই একমাত্র বিস্কুট যা টাইটানিকে ছিল এবং নিরাপদ পাওয়া গিয়েছিল।

টাইটানিকের একটি লাইফ বোটে রাখা সারভাইভাল কিটে স্পিলার অ্যান্ড বেকারস পাইলট ক্র্যাকার বিস্কুট পাওয়া গেছে। এই কারণে, এটি বিশ্বের সবচেয়ে মূল্যবান বিস্কুট হিসাবে বিবেচিত হয়।

এটি আপনার মেটাবলিজম ব্যাহত করে এবং স্থূলতা বাড়ায়। হৃদরোগের ঝুঁকিও থাকতে পারে। তাই রাস্ক বা এই ধরনের বিস্কুট অল্প খাওয়াই ভালো।

এটি গ্রিসের একজন সংগ্রাহক কিনেছিলেন। টাইটানিকের জীবিতদের উদ্ধার করতে আরএমএস কার্পাথিয়া জাহাজটিকে ডাকা হয়েছিল।

এরপর দম্পতি বিস্কুটটি তুলে কোডাক ফিল্মের খামে রেখে দেন। এই বিস্কুটের পাশাপাশি এই দম্পতি কিছু ছবির নেগেটিভও সংরক্ষণ করেছিলেন।

পদ্মাটাইমস ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন
topউপরে