মান্দায় হত্যা মামলায় নিরিহ লোকজনকে জড়ানোর প্রতিবাদে সংবাদ সম্মেলন

প্রকাশিত: জুন ২৭, ২০২৪; সময়: ১:৪১ অপরাহ্ণ |
মান্দায় হত্যা মামলায় নিরিহ লোকজনকে জড়ানোর প্রতিবাদে সংবাদ সম্মেলন

নিজস্ব প্রতিবেদক, মান্দা : নওগাঁর মান্দায় চায়ের দোকান নিয়ে বিরোধকে কেন্দ্র করে হত্যাকাণ্ডের শিকার হন সাদিকুল ইসলাম ছোটন (২৩) নামের এক যুবক। প্রকাশ্য দিবালোকের এ ঘটনায় অভিযুক্ত সাগর মণ্ডলের বিরুদ্ধে মান্দা থানায় মামলা করেন নিহত ছোটনের বাবা আব্দুর রাজ্জাক।

এ মামলার ১৪ দিন পর বাদি আব্দুর রাজ্জাক নওগাঁ আদালতে আরেকটি মামলা দায়ের করেন। এ মামলায় আসামি সাগর মণ্ডলসহ আরও ৫ব্যক্তিকে আসামি করা হয়। আদালতের মামলায় ঘটনার সঙ্গে জড়িত নন এমন ব্যক্তিদের আসামি করায় স্থানীয় বাসিন্দাদের মাঝে চরম ক্ষোভ ছড়িয়ে পড়েছে।

নিহত সাদিকুল ইসলাম ছোটন নওগাঁর মান্দা উপজেলার বাদলঘাটা গ্রামের আব্দুর রাজ্জাকের ছেলে। গ্রামের তিন মাথার মোড়ে চায়ের দোকান নিয়ে বিরোধকে কেন্দ্র করে গত ১২ এপ্রিল সন্ধ্যা সাড়ে ৬টার দিকে ছোটনকে পিটিয়ে জখম করে একই গ্রামের সাগর মণ্ডল।

আহত ছোটনকে উদ্ধার করে রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। সেখানে চিকিৎসাধীন অবস্থায় গত ১৫ এপ্রিল মারা যান ছোটন। অভিযুক্ত সাগর মণ্ডল একই গ্রামের হজরতুল্লাহ মণ্ডলের ছেলে।

এ হত্যাকাণ্ডের ঘটনায় নিরিহ গ্রামবাসিকে জড়িত করার প্রতিবাদে বৃহস্পতিবার দুপুরে মান্দা প্রেস ক্লাবে সংবাদ সম্মেলনের আয়োজন করে বাদলঘাটা গ্রামের লোকজন। সংবাদ সম্মেলনে বক্তব্য দেন বাদলঘাটা গ্রামের বাসিন্দা ও মান্দা সদর ইউনিয়ন পরিষদের সাবেক সদস্য আব্দুর রশিদ।

সাবেক ইউপি সদস্য আব্দুর রশিদ বলেন, বাদলঘাটা গ্রামের তিন মাথার মোড়ে ছোটনকে পিটিয়ে জখম করে সাগর মণ্ডল। এসময় সেখানে একশ’র বেশি লোকজন উপস্থিত ছিল। পরবর্তীকে ছোটন মারা গেলে সাগর মণ্ডলের বিরুদ্ধে মামলা করা হয়।

তিনি অভিযোগ করে বলেন, এ ঘটনার ১৪দিন পর গ্রামের একটি কুচক্রি মহলের ইন্ধনে নিহত ছোটনের বাবা আব্দুর রাজ্জাক নওগাঁ আদালতে গ্রামের ৫জন নিরিহ ব্যক্তির বিরুদ্ধে আরেকটি মামলা করেন।

যাদের এ মামলায় জড়িত করার পাঁয়তারা করা হচ্ছে তারা কেউই ঘটনাস্থলে ছিল না কিংবা অভিযুক্ত সাগর মণ্ডলের পরিবারের সদস্যও নয়। এ ঘটনার সঙ্গে নিরিহ লোকজনকে জড়িয়ে হয়রানী করা না হয় এ জন্য তিনি প্রশাসনের হস্তক্ষেপ কামনা করেন।

সংবাদ সম্মেললে বাদলঘাটা গ্রামের আনোয়ার হোসেন, আলাউদ্দিন সরদার, মাইনুল ইসলাম, আতিকুর রহমানসহ আরও অনেকে উপস্থিত ছিলেন।

 

পদ্মাটাইমস ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন
topউপরে