ইংল্যান্ডকে গুড়িয়ে দিয়ে ফাইনালে ভারত

প্রকাশিত: জুন ২৮, ২০২৪; সময়: ৭:০৫ পূর্বাহ্ণ |
খবর > খেলা
ইংল্যান্ডকে গুড়িয়ে দিয়ে ফাইনালে ভারত

পদ্মাটাইমস ডেস্ক : টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের দ্বিতীয় সেমিফাইনালের লড়াইয়ে ইংল্যান্ডকে গুড়িয়ে দিয়ে ফাইনালে ভারত। ১৭২ রানের লক্ষ্যে খেলতে নেমে ভারতীয়দের বোলিং তোপে ১০৩ রানে গুটিয়ে যায় বর্তমান বিশ্বচ্যাম্পিয়নরা।

ফলে একপেশে সেমিফাইনালে ৬৮ রানের জয় নিয়ে ফাইনালে পৌঁছে গেছে শর্মা-কোহলিরা। আগামী শনিবার (২৯ জুন) ব্রিজটাউনে ফাইনালের মঞ্চে দক্ষিণ আফ্রিকার মুখোমুখি হতে যাচ্ছে ভারত।

১৭২ রান তাড়ায় শুরুটা ভালোই করেছিলেন জস বাটলার। কিন্তু ১৫ বলে ২৩ করে অক্ষর প্যাটেলের বলে রিভার্স সুইপ করে উইকেট বিলিয়ে দেন ইংলিশ অধিনায়ক। তিনি ফিরতেই ৯ রানের মধ্যে ৩ উইকেট হারিয়ে বসে ইংল্যান্ড।

ফিল সল্টকে (৫) বোল্ড করেন জাসপ্রিত বুমরাহ। জনি বেয়ারস্টো শূন্য রানেই স্টাম্প হারান অক্ষরের ঘূর্ণিতে। বাঁহাতি এই স্পিনারের তৃতীয় শিকার মঈন আলি (১০ বলে ৮)।

আউটটি ছিল বেশ অদ্ভুত। বল প্যাডে লেগে উইকেটরক্ষক পান্তের হাতে চলে গেলে খেয়াল করেননি মঈন, কিছুটা সামনে চলে আসেন। বল ধরে স্টাম্প ভেঙে দেন পান্ত।

স্যাম কারান প্রমোশন পেয়ে ওপরে নেমেও দলের কাজে লাগেননি। ৪ বলে ২ করে কুলদীপ যাদবের বলে এলবিডব্লুর ফাঁদে পড়েন তিনি। হ্যারি ব্রুক ভালো খেলছিলেন।

কুলদীপকে রিভার্স সুইপে দারুণ এক বাউন্ডারি হাঁকিয়েছিলেন। কিন্তু ওই ওভারেই আরেকবার একই শট খেলতে গিয়ে বোল্ড হয়ে যান ১৯ বলে ২৫ করা এই ব্যাটার। ইংল্যান্ডের আশা আসলে শেষ তখনই।

স্বীকৃত ব্যাটারের মধ্যে ছিলেন কেবল লিয়াম লিভিংস্টোন। তিনিও পড়েন রানআউটের ফাঁদে (১৬ বলে ১১)। ৮৮ রানে ৯ উইকেট হারানো ইংলিশরা কোনোমতে একশ পেরিয়েছে জোফরা আর্চারের ব্যাটে।

১৫ বলে ১ চার আর ২ ছক্কায় ২১ করেন তিনি। ১৬.৪ ওভারে ইংল্যান্ড অলআউট হয় ১০৩ রানে। ভারতের দুই স্পিনার কুলদীপ যাদব আর অক্ষর প্যাটেল নেন ৩টি করে উইকেট। দুটি উইকেট বুমরাহর।

এর আগে, গায়ানার প্রোভিডেন্স স্টেডিয়ামে টস জিতে বোলিংয়ের সিদ্ধান্ত নিয়েছেন ইংলিশ অধিনায়ক জস বাটলার। ব্যাটিংয়ে নেমে শুরুতেই চাপে পড়ে ভারত। ৯ বলে ৯ রান করে বিরাট কোহলি বোল্ড হয়ে যান পেসার রিস টপলের দারুণ এক ডেলিভারিতে।

পাওয়ার প্লের শেষ ওভারে রিশাভ পান্তকেও হারিয়ে বসে ভারত। ৬ বলে ৪ রানে থাকার সময় স্যাম কারানকে ফ্লিক করতে গিয়ে জনি বেয়ারস্টোর হাতে ধরা পড়েন উইকেটরক্ষক এই ব্যাটার। এরপর রোহিত-সূর্যকুমার চালিয়ে খেলা শুরু করেন। এর মধ্যে ৮ ওভার শেষ হতেই ঝমঝমিয়ে নামে বৃষ্টি। ভারতের রান তখন ২ উইকেটে ৬৫।

বৃষ্টির পর খেলা শুরু হলে ৩৬ বলে ফিফটি তুলে নেন রোহিত। হাফসেঞ্চুরি করার পরের ওভারেই অবশ্য আউট হয়ে যান ভারতীয় অধিনায়ক। ৩৯ বলে ৬ চার আর ২ ছক্কায় ৫৭ করে আদিল রশিদের গুগলিতে বোল্ড হন তিনি। ৫০ বলে ৭৩ রানের জুটি ভাঙে তাতে।

সূর্যরও সুযোগ ছিল হাফসেঞ্চুরি হাঁকানোর। কিন্তু ৩৬ বলে ৪৭ রানে থামতে হয় তাকে। জোফরা আর্চারকে ছক্কা হাঁকাতে গিয়ে লংঅনে ধরা পড়েন হার্ডহিটিং এই ব্যাটার।

১৩ বলে ১ বাউন্ডারি আর ২ ছক্কায় ২৩ রানের ক্যামিও ইনিংস খেলে দিয়ে যান হার্দিক পান্ডিয়া। তাকে তুলে নেন ক্রিস জর্ডান। ওই ওভারেই শূন্য করে ফেরেন শিভাম দুবে।

শেষদিকে অক্ষর প্যাটেল ৬ বলে ১০ আর রবীন্দ্র জাদেজা ৯ বলে অপরাজিত থাকেন ১৭ রানে। ইংল্যান্ডের জর্ডান ৩৭ রান খরচ করলেও তুলে নেন ৩টি উইকেট।

পদ্মাটাইমস ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন
topউপরে