মাছ ধরা ফাঁদে রাসেলস ভাইপার, পুরস্কারের আশায় নিয়ে এলেন বাড়িতে

প্রকাশিত: জুন ২৮, ২০২৪; সময়: ১:০২ অপরাহ্ণ |
মাছ ধরা ফাঁদে রাসেলস ভাইপার, পুরস্কারের আশায় নিয়ে এলেন বাড়িতে

পদ্মাটাইমস ডেস্ক : ঝিনাইদহের মহেশপুরে কৃষকের মাছ ধরা ফাঁদে ধরা পড়ে বিষধর রাসেলস ভাইপার। সাপটির দৈর্ঘ্যে সাড়ে ৩ ফুট। বৃহস্পতিবার (২৭ জুন) সকাল ১২টায় মহেশপুর উপজেলার স্বরুপপুর ইউনিয়নের পেপুলবাড়িয়া গ্রামে ভারতের সীমান্তবর্তী ইছামতি নদীতে ধরা পড়ে সাপটি।

পরে পুরস্কারের আশায় সাপটি জীবিত উদ্ধার করে বন কর্মকর্তাদের খবর দেন ওই কৃষক। এ সময় সাপটিকে এক নজর দেখতে ভিড় জমায় ওই এলাকার উৎসুক জনতা।

সাপ উদ্ধার করা কৃষকের নাম উজ্জ্বল হোসেন। তিনি স্বরুপপুর ইউনিয়নের পিপুলবাড়িয়া গ্রামের মৃত নুর ইসলাম মেম্বারের ছেলে।

উজ্জ্বল হোসেন জানান , তিনি একজন কৃষক। ভারতের সীমান্তবর্তী ইছামতী নদীতে মাছ ধরার জন্য বাঁশের তৈরি বিশেষ যন্ত্র পেতে রেখেছিলেন। প্রতিদিনই একবার করে মাছ ধরা পড়েছে কিনা সেটা দেখতেন তিনি।

সে অনুযায়ী গতকাল বেলা ১২টার দিকে মাছ দেখতে নদীতে যান তিনি। যন্ত্রগুলো দেখতে গিয়ে দেখেন সাপটিকে। অনলাইনে এমন রঙয়ের সাপ আগেই দেখেছেন তিনি। এই সাপ জীবিত ধরে দিতে পারলে পুরস্কার দিচ্ছে সেটাও নাকি তিনি শুনেছেন আগেই। এজন্যই বিষধর এই সাপটি বাড়িতে নিয়ে এসেছেন বলে জানান তিনি।

বন বিভাগের বেনাপোল অফিসের জুনিয়র ওয়াইল্ড স্কাউট জাহাঙ্গীর হোসেন বলেন, আমরা খুলনা হেড অফিসের মাধ্যমে জানতে পেরেছি, ঝিনাইদহের মহেশপুরে কৃষকের মাছ ধরা ফাঁদে একটি রাসেলস ভাইপার সাপ ধরা পড়েছে। আমরা বেনাপোল অফিস থেকে মহেশপুরের উদ্দেশে রওনা দিয়েছি। ঘটনাস্থলে যাওয়ার পর সাপটি দেখে তারপর আমরা সিদ্ধান্ত নেবো।

পদ্মাটাইমস ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন
topউপরে