প্রচণ্ড দাবদাহে নাজেহাল গ্রিস, ৬ পর্যটকের মৃত্যু

প্রকাশিত: জুন ২৯, ২০২৪; সময়: ৩:৩৩ অপরাহ্ণ |
প্রচণ্ড দাবদাহে নাজেহাল গ্রিস, ৬ পর্যটকের মৃত্যু

পদ্মাটাইমস ডেস্ক : প্রচণ্ড দাবদাহে নাজেহাল ইউরোপের দেশ গ্রিস। দেশজুড়ে রেকর্ড তাপমাত্রায় এ পর্যন্ত ছয়জন পর্যটকের মৃত্যুর খবর পাওয়া গেছে। আরও অনেকে নিখোঁজ রয়েছেন বলেও বিভিন্ন গণমাধ্যমের খবরে জানা গেছে। এছাড়া তীব্র গরমে এথেন্স ও এর বাইরের বেশ কিছু পর্যটন কেন্দ্র বন্ধ রাখতে বাধ্য হয়েছে দেশটি।

গ্রিসের একাধিক দ্বীপ থেকে ছয়জন পর্যটকের মরদেহ উদ্ধার করেছে কর্তৃপক্ষ। মৃত্যুবরণকারীরা গ্রীষ্মকালীন ছুটি কাটাতে গিয়েছিলেন গ্রিসে। বিশেষজ্ঞরা বলছেন, প্রচণ্ড গরমে হিট স্ট্রোকে মৃত্যু হয়েছে এসব পর্যটকের।

সর্বশেষ গত সোমবার (২৪ জুন) গ্রিসের ক্রিট দ্বীপ থেকে এক জার্মান পর্যটকের মরদেহ উদ্ধার করা হয়েছে। ৬৭ বছর বয়সী ওই জার্মান নাগরিক তার স্ত্রীকে নিয়ে গ্রিসে বেড়াতে গিয়েছিলেন। সেখানে হাইকিং করতে চেয়েছিলেন।

তিনি ক্রিট দ্বীপের ওমালস মালভূমি থেকে ২৪ কিলোমিটারের রাস্তা পায়ে হেঁটে জেলেদের গ্রামে যাওয়ার জন্য একাই রওনা দিয়েছিলেন। যাওয়ার পথে স্ত্রীকে ফোন করে জানিয়েছিলেন তার শরীর ভালো লাগছে না। এরপর আর কথা হয়নি তাদের। পরে নিখোঁজ ডায়েরি করেন স্ত্রী। অবশেষে আইনশৃঙ্খলা বাহিনী গত সোমবার ওই ব্যক্তির মরদেহ উদ্ধার করে।

গ্রিসে গরমে মৃত্যুবরণকারী ছয়জনই হাইকিং করতে গিয়ে মারা গেছেন বলে জানা গেছে। এছাড়াও তিনজন এখনো নিখোঁজ রয়েছেন। এর মধ্যে আমেরিকান এক অবসরপ্রাপ্ত পুলিশ অফিসার ও দুইজন নারী রয়েছেন। তারা প্রত্যেকেই পঞ্চাশোর্ধ।

এর আগে গত ৫ জুন গ্রিসের ক্রিটে ৬৭ বছর বয়সী এক ডাচ পর্যটকের মরদেহ পাওয়া যায়। একইদিনে স্থানীয় গণমাধ্যমের খবরে বলা হয়, ৭০ বছর বয়সী ফরাসি এক পর্যটক ক্রিটের সিটিয়ায় সমুদ্র সৈকতে হাঁটার সময় অজ্ঞান হয়ে মারা যান।

গত ৯ জুন সিমি দ্বীপে মাইকেল মোসল নামের এক চিকিৎসককে মৃত অবস্থায় পাওয়া যায়। ৬৭ বছর বয়সী মাইকেল মোসল একজন টিভি উপস্থাপক ছিলেন।

এছাড়া গত ১৩ জুন গ্রিসের উত্তর-পূর্বাঞ্চলীয় শহর মালিয়ার কাছে একটি প্রত্নতাত্ত্বিক স্থানের কাছে বেলজিয়ান ৮০ বছর বয়সী এক বৃদ্ধকে নিজের হোটেল থেকে বের হওয়ার পর রাস্তায় মৃত অবস্থায় পাওয়া যায়। গত ১৯ জুন ক্রিটে আরেক ডাচ পর্যটক প্রাণ হারান।

গ্রিসের গ্রীষ্ম উপভোগের জন্য জুন মাস বিখ্যাত। তাই জুন মাসে গ্রিসে সবচেয়ে বেশি পর্যটক ভিড় জমান। এবার জুন মাসে রেকর্ড তাপমাত্রা ছুঁয়েছে গ্রিস। তাপমাত্রা দেশটির বিভিন্ন স্থানে ৪৪ ডিগ্রি সেলসিয়াস ছাড়িয়ে গেছে।

এই গরমে গ্রিক সরকার ‘লেভেল থ্রি হিট অ্যালার্ট’ জারি করে নাগরিকদের ফোনে স্বয়ংক্রিয় সতর্কবার্তা পাঠিয়ে বাড়িতে থেকে কাজ করার আহ্বান জানাচ্ছে। সেইসঙ্গে বাইরে কঠোর কাজকর্ম এড়িয়ে চলার আহ্বান জানাচ্ছে।

গ্রিসের আবহাওয়াবিদরা বলছেন, গ্রিসে বিংশ শতাব্দীতে তেমন কোনো তাপপ্রবাহ দেখা যায়নি। একবিংশ শতাব্দীতে আমরা বেশ কয়েকটি তাপপ্রবাহের মুখোমুখি হয়েছি।

পদ্মাটাইমস ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন
topউপরে