গোদাগাড়ীতে ঐতিহাসিক সান্তাল হুল দিবস পালন

প্রকাশিত: জুন ৩০, ২০২৪; সময়: ৪:৫৪ অপরাহ্ণ |
গোদাগাড়ীতে ঐতিহাসিক সান্তাল হুল দিবস পালন

নিজস্ব প্রতিবেদক : “যেখানে অধিকার বঞ্চনা সেখানেই হুল” স্লোগানকে সামনে রেখে গোদাগাড়ী উপজেলায় ঐতিহাসিক সান্তাল হুল দিবস পালন করা হয়েছে।

রোববার সকালে উপজেলার রাজাবাড়ীহাট উচ্চ বিদ্যালয় মাঠ প্রাঙ্গণে রাজশাহী বিভাগীয় ক্ষুদ্র নৃ-গোষ্ঠী কালচারাল একাডেমি ও সিসিবিভিও’র যৌথ আয়োজনে এবং রক্ষাগোলা সমন্বয় কমিটি ও গ্রাম সংগঠন সমূহের সহযোগিতায় রক্ষাগোলা সংগঠনের পাঁচ শতাধিক নৃতাত্বিক জনগণের অংশগ্রহণে বর্ণাঢ্য র‌্যালি ও আলোচনা সভার মাধ্যমে দিবসটি পালন করা হয়।

দিবস পালনের অনুষ্ঠানে আলোচনা সভায় সভাপতিত্ব করেন সিসিবিভিও’র সভাপতি প্রফেসর মোঃ আব্দুস সালাম। অনুষ্টানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন সিসিবিভিও’র সাধারণ সম্পাদক ও নির্বাহী প্রধান বীর মুক্তিযোদ্ধা সারওয়ার-ই-কামাল।

বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন দৈনিক সোনার দেশ পত্রিকার সম্পাদক ও রাজশাহী বিভাগীয় ক্ষুদ্র নৃ-গোষ্ঠী কালচারাল একাডেমির নির্বাহী সদস্য হাসান মিল্লাত, সিসিবিভিও’র সমন্বয়কারী আরিফ ইথার, রাজশাহী বিভাগীয় ক্ষুদ্র নৃ-গোষ্ঠী কালচারাল একাডেমির প্রতিনিধি মানুয়েল সরেন, রক্ষাগোলা সমন্বয় কমিটির সভাপতি সরল এক্কা, রাজাবাড়ীহাট উচ্চ বিদ্যালয়ের ভারপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষক মোঃ মতিউর রহমান, দিঘরী বাইসি প্রধান ও সুরশুনিপাড়া রক্ষাগোলা গ্রাম সমাজ সংগঠনের মাঞ্জি হাড়াম সিষ্টি বারে, হিন্দু-বৌদ্ধ-খ্রিষ্টান ঐক্য পরিষদের গোদাগাড়ী শাখার সভাপতি কৃষ্ণ কুমার সরকার, গড়ডাইং রক্ষাগোলা গ্রাম সমাজ সংগঠনের নেত্রী কাথারিনা হাঁসদা ও শাহানাপাড়া রক্ষাগোলা গ্রাম সমাজ সংগঠনের নেত্রী ঝর্ণা লাকড়া।

র‌্যালিটি রাজাবাড়ী হাট উচ্চ বিদ্যালয় মাঠ প্রাঙ্গণ হতে বাজার প্রদক্ষিণ করে শহীদ মিনারে পুষ্পস্তবক অর্পণের মাধ্যমে দিবস পালনের আনুষ্ঠানিকতা শুরু হয়। জাতীয় সঙ্গীত পরিবেশন ও সান্তাল হুলের শহীদদের স্মরণে এক মিনিট নিরবতা পালনা করা হয়। সভার সভাপতির সূচনা বক্তব্যের মাধ্যমে আলোচনা সভা শুরু করা হয়।

অতিথিবৃন্দ তাদের বক্তব্য ও আলোচনার মাধ্যমে হুল দিবসের মাহাত্ম্য ঘোষণা করেন। প্রধান অতিথির বক্তব্যে সারওয়ার-ই-কামাল বলেন, “সিসিবিভিও রক্ষাগোলা সংগঠনের মাধ্যমে নৃতাত্তি¡ক জনগণকে সংগঠিত করেছে। রক্ষাগোলা সংগঠনে মালিক তারা নিজেই, তারা নিজেই নিজেদের সংগঠন পরিচালনা করে, তাদের আর্থিক সিদ্ধান্ত তারা নিজেরাই গ্রহণ করে, সিসিবিভিও তাদের মাঝে কোন হস্তক্ষেপ করে না। স্থানীয় প্রশাসনের নজরে এই বিষয়টি আসা উচিত এবং রাজশাহী বিভাগীয় ক্ষুদ্র নৃ-গোষ্ঠী কালচারাল একাডেমিসহ অন্যান্য দপ্তরের কমিটিতে রক্ষাগোলা সংগঠনের নেতৃত্বকে জায়গা দেওয়ার কথা বিবেচনায় আনার পরামর্শ দেন। ”

ঐতিহাসিক সান্তাল হুল দিবস অনুষ্ঠানের সঞ্চালনা করেন সিসিবিভিও’র প্রশিক্ষণ ও সাংস্কৃতিক কর্মকর্তা সৌমিক ডুমরী ও সমাজ সংগঠক মানিক এক্কা। অনুষ্ঠানের সার্বিক তত্ত¡াবধায়ন করেন উর্দ্ধতন মাঠ কর্মকর্তা নিরাবুল ইসলাম ও সার্বিক সহযোগিতা করেন পরিবীক্ষণ ও আইটি কর্মকর্তা মোঃ শাহাবুদ্দিন ও সমাজ সংগঠকবৃন্দ।

 

পদ্মাটাইমস ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন
topউপরে