মান্দায় এক রাতে ১০ মিটার চুরি

প্রকাশিত: জুলাই ৭, ২০২৪; সময়: ১০:০৫ অপরাহ্ণ |
মান্দায় এক রাতে ১০ মিটার চুরি

নিজস্ব প্রতিবেদক, মান্দা : নওগাঁর মান্দায় এক রাতে বিদ্যুতের ১০মিটার চুরির ঘটনা ঘটেছে। শনিবার রাতে উপজলার সদর ও কুসুম্বা ইউনিয়নের শামুকখাল গ্রামে এ চুরির ঘটনা ঘটে। এসময় চোরের দল মিটার ফেরত পেতে ফোন নাম্বারসহ একটি চিরকুট রেখে গেছে।

তাতে লেখা আছে উল্লেখিত নম্বরে ৫ হাজার টাকা বিকাশ করা হলে চুরি যাওয়া মিটারটি ফেরত দেওয়া হবে। এমন কাণ্ডে এলাকাবাসির মাঝ মিটার চুরি আতঙ্ক ছড়িয়ে পড়ছে।

উপজলার শামুকখাল গ্রামের বাসিন্দা মিলন চন্দ্র প্রামাণিক বলেন, ‘বুড়িদহ বাজারে আমার বিদ্যুৎ চালিত রাইস মিল আছ। শনিবার সন্ধ্যার পর ঘরটি তালাবদ্ধ করে বাড়ি চল যাই। আজ রাবিবার সকালে এসে দেখি বিদ্যুত মিটারটি নাই।’

মিলন প্রামানিক আরও বলেন, মিটারের কাছে একটি চিরকুট পাওয়া যায়। তাত লেখা ফোন নম্বরে ৫ হাজার টাকা দিলে মিটারটি ফেরত দেওয়ার নিশ্চয়তা দেওয়া হয়েছে।

উপসহকারী কৃষি কর্মকর্তা নাজমুল হক টুটুল বলেন, শনিবার রাত ১২টার দিকে হাসপাতাল মোড় এলাকার আব্দুর কৃষক প্রশিক্ষণ কেন্দ্রের বিদ্যুৎ চলে যায়। প্রথমদিকে লোডশেডিং হতে পারে বলে ধারণা করছিলাম। কিন্তুু রবিবার দুপুর পর্যন্ত বিদ্যুৎ না আসার কারণ অনুসন্ধান দেখা যায় ওই ভবনের বিদ্যুৎ মিটারটি নাই। সেখানে সিগারেটের খালি প্যাকটের ভেতর একটি চিরকুট মোবাইল নম্বর লিখা ছিল। ওই নম্বরে যোগাযোগ করা হলে মিটারটি পেতে ১০ হাজার টাকা দাবি করা হয়।

বিদ্যুত মিটার চুরির বিষয় জানতে চাইলে পল্লী বিদ্যুৎ সমিতির জিএম শামীম পারভেজ বলন, শনিবার রাতে কিছু এলাকা থেকে বিদ্যুতের ১০টি মিটার চুরি গেছে। বিষয়টি উর্ধতন কর্তৃপক্ষসহ পুলিশকে অবহিত করা হয়েছে।

ডিজিএম শামীম পারভজ আরও বলেন, এর আগেও একইভাবে মিটার চুরি যায়। বিষয়টি নিয়ে আইন শৃঙ্খলা সভায় আলোচনা হয়। থানা পুলিশকেও বিষয়টি লিখিতোভাবে জানানো হয়েছিলো। এরপরও মিটার চুরি বন্ধ হয়নি।

এ প্রসঙ্গে মান্দা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোজাম্মেল হক কাজী বলেন, বিষয়টি নিয়ে কাজ করছে পুলিশ। খুব শিগগিরই সংঘবদ্ধ চোরচক্রকে আইনের আওতায় আনা হব।

পদ্মাটাইমস ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন
topউপরে