মঞ্চে ডেকে আসাদকে যা বললেন শেখ হাসিনা

প্রকাশিত: জানুয়ারি ৩০, ২০২৩; সময়: ৫:৪৬ অপরাহ্ণ |
মঞ্চে ডেকে আসাদকে যা বললেন শেখ হাসিনা

নিজস্ব প্রতিবেদক : রাজশাহীর জনসভা মঞ্চে ওঠার পাশ না পেয়ে সভামঞ্চের বাইরে দাঁড়িয়ে জনসভা শুনছিলেন রাজশাহী জেলা আওয়ামী লীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক আসাদুজ্জামান আসাদসহ দলের কয়েকজন প্রবীণ নেতা।

তবে, জনসভা মঞ্চে ওঠার পরই নেতাদের সাথে কুশল বিনিময়ের সময় আসাদের খোঁজ করেন প্রধানমন্ত্রী ও দলের সভাপতি শেখ হাসান। এ সময় নেতাদের মাধ্যমে আসাদুজ্জামানকে মঞ্চে ডেকে পাঠান দলীয় প্রধান। পরে আসাদ সেখানে উপস্থিত হলে প্রধানমন্ত্রী ভাষন শেষে তার সাথে কথা বলেন।

মঞ্চে ডেকে কথা বলার জন্য প্রধানমন্ত্রীর প্রতি কৃতজ্ঞতা জানিয়েছেন আসাদ। প্রধানমন্ত্রীর পাশে দাঁড়ানো তার একটি ছবি ফেসবুকে পোস্ট করে আসাদুজ্জামান লিখেছেন ‘‘কৃতজ্ঞতা রাষ্ট্রনায়ক শেখ হাসিনা আপা’’।

সংশ্লিষ্ট সূত্রে জানা গেছে, আসাদুজ্জামান আসাদসহ রাজশাহী জেলা আওয়ামী লীগের প্রবীন কয়েকজন নেতা জনসভাস্থলের বাইরে দাঁড়িয়ে জনসভা শুনছিলেন। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা জনসভা মঞ্চে ওঠার পর নেতৃবৃন্দের কাছে আসাদুজ্জামান আসাদের খোঁজ করেন। নেতাদের মাধ্যমে আসাদকে মঞ্চে ডেকে পাঠান। মোবাইলে এই তথ্য পেয়ে মঞ্চে যান আসাদ। প্রধানমন্ত্রীর বক্তব্য শেষে আসাদ দেখা করেন প্রধানমন্ত্রীর সাথে। এসময় প্রধানমন্ত্রী আসাদের সাথে কিছুক্ষণ কথা বলে মঞ্চ থেকে নেমে যান।

তবে, তাকে নিয়ে সেখানে কি কথা হয়েছে সে নিয়ে সাংবাদিকদের সাথে কোন কথা বলতে চাননি আসাদুজ্জামান আসাদ। জানার জন্য তাকে ফোন করা হলে আসাদ বলেন, আমাকে আপা মঞ্চে না দেখতে পেয়ে ডেকে নিয়েছেন এজন্য আমি আপার কাছে কৃতজ্ঞ।

তবে, মঞ্চ সূত্রে জানা গেছে, বক্তব্য শেষে প্রধানমন্ত্রীর সামনে দাঁড়িয়ে সালাম দেন আসাদুজ্জামান আসাদ। এ সময় প্রধানমন্ত্রী আসাদের কাছে জানতে চান তুমি মঞ্চে নেই কেন। আসাদ উত্তর দেন মঞ্চে আসার আমাকে পাশ দেয়া হয়নি। এর পর প্রধানমন্ত্রী জেলার নেতৃবৃন্দের কাছে প্রশ্ন করেন আসাদ মঞ্চে নেয় কেন? তাকে কেন পাশ দেয়া হয়নি।

এ সময় জেলার সাধারণ সম্পাদক আব্দুল ওয়াদুদ দারা বলেন, তিনি (আসাদ) সব সময় নৌকার বিরোধীতা করেন। তাকে পাশ দিয়ে কি হবে। এ সময় নগর আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক মীর ইসতিয়াক আহমেদ লেমন বলেন, সদ্য জেলা পরিষদে নির্বাচনে আপনি যাকে মনোনয়ন দিয়েছিলেন তার বিরোধিতা করেছেন। এর আগের জেলা পরিষদ নির্বাচনে দলীয় প্রার্থীর বিরোধীতা করেছেন তিনি। এ সময় প্রধানমন্ত্রী আসাদকে উদ্দেশ্য করে বলেন, এই তুমি নৌকার বিরোধীতা কর কেন? যাকে মনোনয়ন দিয়ে তার বিরোধীতা করো কেন।

এ সময় আসাদ বলেন, আমি নৌকার বিরোধীতা করি না। যারা দলের নাম ভাঙ্গিয়ে বিতর্ক সৃষ্টি করে তাদের বিরোধীতা করি। এ সময় প্রধানমন্ত্রী বলেন, আমি তো অনেক কিছুই শুনি।

পদ্মাটাইমস ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন
topউপরে