নাটোর-৪ আসনের উপনির্বাচনে কে হচ্ছেন নৌকার প্রার্থী

প্রকাশিত: সেপ্টেম্বর ১৫, ২০২৩; সময়: ১২:১৫ অপরাহ্ণ |
নাটোর-৪ আসনের উপনির্বাচনে কে হচ্ছেন নৌকার প্রার্থী

নিজস্ব প্রতিবেদক, গুরুদাসপুর : নাটোর-৪ (গুরুদাসপুর-বড়াইগ্রাম) আসনের উপনির্বাচন আগামী ১১ অক্টোবর। এই উপনির্বাচনে কে হচ্ছেন আওয়ামী লীগের নৌকার প্রার্থী, এই নিয়ে দুই উপজেলা জুড়ে চলছে নানা জল্পনা-কল্পনা।

তবে সব জল্পনা-কল্পনার অবসান ঘটিয়ে নৌকার প্রার্থী কে হচ্ছেন তা আজ শুক্রবার (১৫ সেপটেম্বর) বিকেলে জানা যাবে।

গত ৩০ আগস্ট উত্তরাঞ্চলের বর্ষীয়ান ও কিংবদন্তী রাজনীতিবিদ বীর মুক্তিযোদ্ধা আলহাজ্ব অধ্যাপক আব্দুল কুদ্দসের মৃত্যুতে শূন্য হওয়ায় নাটোর-৪ (গুরুদাসপুর-বড়াইগ্রাম) আসনে উপনির্বাচনের তফসিল ঘোষণা করেন নির্বাচন কমিশন।

গুরুদাসপুর-বড়াইগ্রাম আসনে উপনির্বাচনে দুই উপজেলার মোট ১৭ জন প্রার্থী আওয়ামী লীগের দলীয় মনোনয়নপত্র কিনে জমাও দিয়েছেন।

আগামী দ্বাদশ জাতীয় নির্বাচনে যে সকল আওয়ামী লীগ নেতা দলীয় মনোনয়ন পেতে জোর তদবির ও প্রচারণা চালিয়ে যাচ্ছিলেন তারাই এই উপনির্বাচনে মনোনয়ন পেতে দলের শীর্ষ পর্যায়ের কেন্দ্রীয় নেতাদের কাছে দৌঁড়ঝাঁপ শুরু করেছেন।

৫ বারের নির্বাচিত সংসদ সদস্য ও নাটোর জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি, বঙ্গবন্ধুর ঘনিষ্ঠ সহচর বীর মুক্তিযোদ্ধা অধ্যাপক আব্দুল কুদ্দুস জীবিত থাকতে তিনি নিজেই আশাবাদী ছিলেন দলের সভাপতি শেখ হাসিনা তাকেই মনোনয়ন দেবেন।

কিন্তু তার মৃত্যুর পর অনুসারীরা বলছেন, এই আসনে যোগ্য পিতার স্থানটি পাবেন একমাত্র কন্যা অ্যাডভোকেট কোহেলী কুদ্দুস মুক্তি। মুক্তি বাংলাদেশ যুব মহিলা লীগের সাবেক সহ-সভাপতি ও বর্তমানে জেলা আওয়ামী লীগের সদস্য।

তিনি পিতার নিষ্ঠাবান সহচর ছিলেন এবং মাঠের রাজনীতিতে সার্বক্ষণিক সক্রিয় ছিলেন। গুরুদাসপুর ও বড়াইগ্রাম উপজেলায় তার মানবিক সেবার সুনাম রয়েছে।

দলীয় মনোনয়ন পাওয়ার বিষয়ে এ্যাডভোকেট কোহেলী কুদ্দুস মুক্তি বলেন, রাজনৈতিক কর্মকাণ্ডে দলের প্রতি শতভাগ আনুগত্য রেখে ত্যাগ স্বীকার করে এখন পর্যন্ত কাজ করে যাচ্ছি। আর ছাত্র জীবন থেকে ‘রাজনৈতিক কর্মকাণ্ডের সাথে জড়িত এ কারণে দল থেকে মনোনয়ন প্রত্যাশা করছি।

আশা করছি দল এবং মাননীয় প্রধানমন্ত্রী আমাকে নিরাশ করবেন না। তারপরও দলের হাইকমান্ড যার প্রতি আস্থা রাখবে তাঁর হয়েই আমি কাজ করে যাব।

তিনি আরও বলেন, আমি মনোয়ন পেলে গৌরবের প্রতিক নৌকা মার্কা নিয়ে নির্বাচিত হয়ে জননেত্রী প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার হাতকে শক্তিশালী করে নারী নেতৃত্ব যে দুর্বল নয় সেইটা প্রমাণ করে দিবো ইনশাল্লাহ্।

সেই সাথে আমার প্রয়াত বাবা ৫ বারের এমপি এবং নাটোর জেলা আওয়ামী লীগের দুই বারের সভাপতি ও উত্তর জনপদের বর্ষিয়ান নেতার স্বপ্ন পূরণে অসমাপ্ত কাজগুলো সমাপ্ত করে তার নির্মল ও আদর্শের রাজনীতির স্মৃতিকে ধরে রাখার চেষ্টা করবো।

এক বিশেষ সূত্রে জানা গেছে, গুরুত্বপূর্ণ এই আসনের উপ নির্বাচনে ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগের মনোনয়ন পেতে এগিয়ে রয়েছেন বাংলাদেশ যুব মহিলা লীগের সাবেক সহ-সভাপতি ও বর্তমানে জেলা আওয়ামী লীগের সদস্য এ্যাডভোকেট কোহেলী কুদ্দুস মুক্তি।

এছাড়াও রয়েছেন গুরুদাসপুর পৌর সভার তিন বারের মেয়র উপজেলা আওয়ামী লীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক ও জেলা আওয়ামী লীগের সদস্য শাহনেওয়াজ আলী মোল্লা, রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের সাবেক ছাত্রলীগ সভাপতি ও বর্তমানে জেলা আওয়ামী লীগের কোষাধ্যক্ষ আহম্মদ আলী মোল্লা, পৌর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও সাবেক উপজেলা চেয়ারম্যান জাহিদুল ইসলাম, বড়াইগ্রাম উপজেলা চেয়ারম্যন ডাঃ সিদ্দিকুর রহমান পাটওয়ারী, বনপাড়া পৌর আ.লীগের সভাপতি কে এম জাকির হোসেন।

গুরুদাসপুর পৌর সভার মেয়র শাহনেওয়াজ আলী মোল্লা আশাবাদী, এলাকার উন্নয়ন ও যোগ্যতার বিবেচনায় দল তাকেই মনোনয়ন দেবে। আমরা আওয়ামী লীগ পরিবারের সন্তান। আওয়ামী লীগের ত্যাগী কোন নেতাকে দলের মনোনয়ন দেয়া উচিত।

নির্বাচন অফিস সূত্রে জানা গেছে, সংসদ সদস্য বীর মুক্তিযোদ্ধা আলহাজ্ব অধ্যাপক আব্দুল কুদ্দসের মৃত্যুতে শূন্য হওয়ায় নাটোর-৪ (গুরুদাসপুর-বড়াইগ্রাম) আসনে উপনির্বাচনের তফসিল ঘোষণা করেছে নির্বাচন কমিশন। আগামী ১৭ সেপ্টেম্বর মনোনয়নপত্র দাখিলের শেষ দিন ধার্য করা হয়েছে।

মনোনয়নপত্র যাচাই-বাছাই ১৮ সেপ্টেম্বর। মনোনয়নপত্র বাছাইয়ের বিরুদ্ধে আপিল দায়ের ১৯ থেকে ২১ সেপ্টেম্বর। আপিল নিষ্পত্তি ২৩ সেপ্টেম্বর।

প্রার্থীতা প্রত্যাহারের শেষ তারিখ ২৪ সেপ্টেম্বর, ২৫ সেপ্টেম্বর প্রাথীদের প্রতীক বরাদ্দ এবং ১১ অক্টোবর ব্যালট পেপারের মাধ্যমে ভোট গ্রহণ অনুষ্ঠিত হবে।

 

পদ্মাটাইমস ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন
topউপরে