আগুনে পুড়লো নতুন বই, বাকরুদ্ধ তিথি

প্রকাশিত: ফেব্রুয়ারি ৭, ২০২৪; সময়: ৮:৫৭ অপরাহ্ণ |
আগুনে পুড়লো নতুন বই, বাকরুদ্ধ তিথি

নিজস্ব প্রতিবেদক, মান্দা : সাজানো গোছানো ছোট্ট সংসার এখন শুধুই অতীত। আগুনে পুড়ে গেছে বসতবাড়ির সমুদয় মালামাল। কোনো কিছুই আস্ত নেই। সেই আগুনে পুড়ে ছাই হয়েছে শিক্ষার্থী তামান্না তাসলিমা তিথির নতুন বই। বইয়ের সঙ্গে তার স্বপ্নও পুড়ে গেছে এমন শঙ্কায় বাকরুদ্ধ হয়ে পড়েছে তিথি। হাতড়ে ফিরছে কয়েক ঘন্টা আগের অতীত।

তামান্না তাসলিমা তিথি নওগাঁর মান্দা উপজেলার কাঁশোপাড়া ইউনিয়নের ফালাঙ্গাপাড়া গ্রামের নির্মাণশ্রমিক সাইফুল ইসলামের মেয়ে। সে কাঁশোপাড়া উচ্চবিদ্যালয়ের অষ্টম শ্রেণির শিক্ষার্থী। কাজের সুবাদে বাবা সাইফুল ইসলাম কক্সবাজারে থাকেন। মা তারা বানুকে নিয়ে বাড়িতে থাকত তিথি।

আজ বুধবার বেলা ১১টার দিকে বিদ্যুতের শটসার্কিট থেকে তিথিদের শয়নঘরে আগুনে সূত্রপাত হয়। এসময় তিথি বাড়ির পাশের মাঠে ছিল। তার মা তারা বানু প্রতিবেশি জানিকুল্লা সরদারের বাড়িতে চুল বাছাইয়ের কাজে ছিলেন। হঠাৎ ধোঁয়ার কুণ্ডুলি দেখে মা ও মেয়ে বাড়িতে ছুটে। ততক্ষণে আগুনের লেলিহান শিখা গ্রাস করে পুরো বাড়ি।

তিথির মা তারা বানু বলেন, ‘আগুন পুরো বাড়িতে ছড়িয়ে পড়ায় কোনো মালামাল বের করা সম্ভব হয়নি। চোখের সামনেই সব শেষ হয়ে যায়। আমার ও মেয়ের পরনে যা আছে এটাই এখন আমাদের সম্বল। স্বামী বাড়িতে নেই। এ অবস্থায় মেয়ে তিথিকে নিয়ে চোখে অন্ধকার দেখছি। সাজানো গোছানো ছোট্ট সংসার এখন শুধুই অতীত।

সরেজমিনে ফালাঙ্গাপাড়া গ্রামে গিয়ে দেখা গেছে, পোড়া বাড়ির ধ্বংস স্তুপে বসে আপন খেয়ালে পুড়ে যাওয়া মালামাল নাড়াচাড়া করছে শিক্ষার্থী তিথি। কারো সঙ্গেই কথা বলছে না। এ দৃশ্যের ছবি ধারণ করতে গেলে হাউমাউ করে কেঁদে ওঠে সে। এসময় তাকে শান্তনা দেওয়ার ভাষা হারিয়ে ফেলেন উপস্থিত লোকজন।

শিক্ষার্থী তানিয়া তাসলিমা তিথি জানায়, ‘আগুনে বাড়ির সব মালামালের সঙ্গে পুড়ে গেছে তার নতুন বই। লেখাপড়া শিখে ভালো মনের মানুষ হওয়ার ইচ্ছা ছিল। মুহুর্তের আগুন আমার সব স্বপ্ন শেষ করে দিয়েছে।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
পদ্মাটাইমস ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন
topউপরে